| বাংলার জন্য ক্লিক করুন

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   শেয়ার করুন
Share Button
   বিশেষ প্রতিবেদন
  লংগদুতে আদিবাসীদের ওপর হামলার বিচার নিশ্চিত করতে হবে
  20, July, 2017, 12:21:0:AM


দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক ও গোষ্ঠীগত হামলা হুমকি নাগরিকের ব্যক্তিগত নিরাপত্তার অধিকার ও সম্প্রতি ঘটে যাওয়া আদীবাসীদের ওপর হামলায় জড়িতদের বিচার নিশ্চিত ও ক্ষতিগ্রস্তদের পূর্ণবাসন দাবিতে এইচ আরএফবি’র সংবাদ সম্মেলন।
১ জুন দীঘিনালা-খাগড়াছড়ি সড়কের চারমাইল এলাকায় মূল সড়কের পাশে লংগদু উপজেলার সদর ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়নের লাশ পাওয়া যায়। পেশায় তিনি মোটরসাইকেল চালক। তাঁর লাশ পুলিশ উদ্ধার করে প্রথমে খাগড়াছড়ি সদর থানায় নিয়ে যায়। নিহত নয়ন লংগদু বাইট্রাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। নয়নের লাশ পাওয়ার ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর থেকে লংগদু এলাকায় উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। সন্ধ্যার দিকে লংগদু বাজারে নয়নের মৃত্যুর জন্য বাঙ্গালীরা ঢালাওভাবে আদিবাসীদের দোষারোপ করে নানা উষ্কানিমূলক কথা বলতে থাকে তখন অরুনতম চাকমা নামে একজন আদিবাসীকে বাঙ্গালীরা মারধর করে। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে আদিবাসীদের সন্দেহ শুরু হয় যে তাদের উপর হামলার ঘটনা ঘটতে পারে। ১৯৮৯ সালেও লংগদু উপজেলা চেয়ারম্যানের (বাঙ্গালী) মৃত্যুর পর আদিবাসীদের উপর ব্যাপক হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা হয়েছিল। এবার সেই আশঙ্কা থেকে আদিবাসী নেতৃবৃন্দ বারবার পুলিশ, সেনা-বাহিনীর জোন অধিনায়ক ও প্রশাসনকে তাদের নিরাপত্তা প্রদানের জন্য অনুরোধ জানান। কিন্তু প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের আশ্বস্ত করে বলা হয় যে, এবার কোনো সমস্যা হবে না, আদিবাসীকে পূর্ণ নিরাপত্তার জন্য কঠোর পদক্ষেপ/ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। কিন্তু পরদিন (২ জুন, ২০১৭) সকালে খাগড়াছড়ি থেকে নয়নের লাশ লংগদু থানায় আনা হলে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে পড়ে। আদিবাসীরা তখন আবারও পুলিশ, সেনাবাহিনী ও প্রশাসনকে পরিস্থিতি সম্পর্কে অবহিত করে পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য। বাইট্রাপাড়ার জানাযা শেষে বাঙ্গালীরা নয়নের লাশ নিয়ে মিছিল করে লংগদু থানা সদরে আসে। তখনই ঐ মিছিল থেকে আদিবাসীদের বাড়িঘরে হামলার জন্য উস্কানীমূলক স্লোগান দেয়া হয়। এত কিছুর মধ্যে বারংবার অনুরোধ করা হলেও প্রশাসন থেকে আদিবাসীদের নিরাপত্তার জন্য কোন ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হয়নি বলে আদিবাসীরা অভিযোগ করেন। এক পর্যায়ে সকাল নয়টার দিকে কয়েক হাজার বাঙ্গালী দা, কুড়াল, বল্লম, লাঠিসোটা সহ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আদিবাসীদের বাড়িঘরে
আক্রমণ শুরু করে। তখন তাদের হাতে পেট্রোল ও অকটেনের ছোট ছোট ড্রাম ছিল। এরপর তারা চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে এবং পর্যায়ক্রমে তিন টিলা, মানিক জোড় ছড়া ও বাইট্রাপাড়া পাহাড়ী আদিবাসীদের ঘরবাড়িতে হামলা, লুটপাট, ভাঙচুর ও অীগ্নসংযোগ করে, পাহাড়ীদের প্রায় প্রতিটি বাড়িই আগুনে পুড়ে ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে। আগুনে শুধু তাদের ঘরগুলো ভস্মীভূত হয়নি, আগুনে ছাই হয়েছে তাদের সব কিছু আসবাবপত্র ও সারা বছরের উৎপাদিত ধানসহ বিভিন্ন ফসল। ঘটনার সময় গুনমালা চাকমা ৭০ বছর বয়সী অসুস্থ এক আদিবাসী বৃদ্ধা লংগদু সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বাড়িতে তিনটিলা গ্রামে আশ্রয় নিয়েছিলেন। ওই বাড়িতে আগুন দেওয়ার সময় সবাই বেরিয়ে গেলেও তিনি ঘর থেকে বের হতে পারেননি পরে তাঁর হাড়গোড় উদ্ধার করা হয়। মৃতদেহটি আগুনে পুড়ে এমন অবস্থা হয়েছে যে, তাঁর মৃতদেহটি সৎকার করারও সম্ভব হয়নি। পরে পুলিশের লোকজন তাঁর হাড়গুলো উদ্ধার করে নিয়ে যায়। তাঁর মেয়ের অভিযোগ লংগদু থানার ওসি (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) “উদ্ধারকৃত হাড়গোড়গুলোকে কোনো পশুর হতে পারে” বলে মন্তব্য করেন।
  এইচআরএফবি একটি হত্যাকান্ডকে কেন্দ্র করে পুরো এলাকার আদিবাসীদের ওপর এমন হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানায়। ফোরাম মনে করে, নিহত যুবলীগ নেতার হত্যার সাথে জড়িতদের যেমন যথাযথ আইনানুগ বিচার হওয়া প্রয়োজন ঠিক তেমনি এ ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনায় সাধারণ নাগরিকদের মৌলিক অধিকার যে চরমভাবে লঙ্ঘিত হয়েছে, তার ন্যায্য প্রতিকার হওয়া অপরিহার্য। সরকারের কাছে ফোরামের দাবীসমুহ রেখেছেন ঃ
স্বল্প মেয়াদের দাবীঃ
১. লংগদুর ঘটনার নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু তদন্তসহ দায়ী ব্যক্তিদের যথাযথ বিচার প্রক্রিয়া অনুসরণ করে শাস্তি প্রদান।
২. ঘটনার সময় প্রশাসন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও সেনা সদস্যদের ভূমিকা নিরপেক্ষভাবে বিশ্লেষণ করা এবং যথাযথ প্রক্রিয়ায় জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা।
৩. ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতির সার্বিক বিবরণসহ একটি পূর্ণাঙ্গ তালিকা তৈরী করা এবং তার ভিত্তিতে অতি দ্রুত পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ সহ পুনর্বাসনের ব্যবস্থা নেয়া। ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য চিকিৎসা সেবা ও প্রয়োজনীয় ঔষধ ব্য শিশুদের জন্য পাঠ্যবই সরবরাহের ব্যবস্থা করা।
৪. স্থানীয় আদিবাসীদের মধ্যে যে ভীতি,
আতঙ্ক কাজ করছে তা দূর করার জন্য সরকারের উচ্চ পর্যায়ের রাজনৈতিক দিক নির্দেশনা ও প্রশাসন থেকে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া।
দীর্ঘমেয়াদে দাবী ঃ
১. আদিবাসী জনগোষ্ঠীকে সাংবিধানিক স্বীকৃতি প্রদান।
২. আদিবাসীদের ওপর সহিংসতা ও নির্যাতনের সব অভিযোগ গুরুত্বসহকারে
নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্ত ও বিচার নিশ্চিত করা।
৩. আর সময়ক্ষেপন না করে পার্বত্য শান্তি চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন নিশ্চিত করার জন্য একটি সুনির্দিষ্ট রোডম্যাপ তৈরি করা।
   ৪. আইন শৃঙ্খলা, পুলিশ (স্থানীয়), ভূমি ও ভূমি ব্যবস্থাপনা, পরিবেশ ও বন বিষয়ে অগ্রাধিকার প্রদান করে শান্তি চুক্তি অনুযায়ী ৩টি পার্বত্য জেলা পরিষদ এবং পার্বত্য আঞ্চলিক পরিষদের কাছে বিভিন্ন বিষয়ে ক্ষমতা হস্তান্তর করা।
৫. শান্তিচুক্তি অনুযায়ী পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে সকল অস্থায়ী ক্যাম্প প্রত্যাহার ও অপারেশন উত্তরণ এর নামে পার্বত্য চট্টগ্রামের সামরিকীকরণ বন্ধ করা।



সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 75        
   আপনার মতামত দিন
     বিশেষ প্রতিবেদন
নবাব ফয়জুন্নেছা চৌধুরানী সমাজ ও নারী উন্নয়নের কান্ডারী ছিলেন
.............................................................................................
অবক্ষয় ঠেকাতে মানবিকতার চর্চা অপরিহার্য
.............................................................................................
গ্রাফিক্স ডিজাইনার তারেকের অকাল মৃত্যু
.............................................................................................
বিশ্বমানবাধিকার আজ কোথায়?
.............................................................................................
লংগদুতে আদিবাসীদের ওপর হামলার বিচার নিশ্চিত করতে হবে
.............................................................................................
কৃষি উন্নয়নে অবদানে বাকৃবিতে ১১ ব্যক্তিকে সংবর্ধনা
.............................................................................................
বামাফা’র জঙ্গীবাদ সন্ত্রাসবাদ ও মাদক বিরোধী সেমিনার অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
খাদে ভরা স্বর্ণ ব্যবসা
.............................................................................................
একজন ক্রীড়া সংগঠক - দক্ষ রাজনীতিবিদ - সফল মেয়র বাগেরহাটের সর্বস্তরের জনপ্রিয় একটি নাম খাঁন হাবিবুর রহমান
.............................................................................................
মানবাধিকার খবরের অনুসন্ধানী প্রতিবেদন মায়ের কাছে ফিরেছে ভারতীয় কিশোরী বৈশাখী
.............................................................................................
বাবা-মেয়ের আত্মহত্যা এ দায় কার?
.............................................................................................
পরিবারের সাত সদস্য পাগল।
.............................................................................................
মাস্তান প্রকৃতির লোক রাখা হচ্ছে পরিবহনে চরম ভোগান্তিতে যাত্রীরা
.............................................................................................
নারীর মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় যত্নবান হতে হবে : হেলেনা জাহাঙ্গীর
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীর বিমানে ত্রুটি: ১৯ ফেব্রুয়ারি তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ
.............................................................................................
মানবাধিকার খবরের উদ্যোগ ভারত থেকে দেশে ফিরছেন দুই কিশোর এক নারী
.............................................................................................
দেশ ও মানবতার কল্যাণে কার্যকরী ব্যবস্থা জরুরী
.............................................................................................
সন্ত্রাসী-চাঁদাবাজ, অপপ্রচার ও কুচক্রের শিকার
.............................................................................................
সংকট উত্তরণের উপায় কি নেই? জঙ্গিবাদ : মানবাধিকারের উপর চরম হুমকি
.............................................................................................
মসজিদের আর্থিক ‘কর্তৃত্ব পেতে’ পুরান ঢাকায় দু’বছরের পরিকল্পনায় মুয়াজ্জিন খুন
.............................................................................................
আমি সবার প্রেসিডেন্ট
.............................................................................................
যুক্তরাজ্যের বার্ষিক মানবাধিকার প্রতিবেদন বাংলাদেশসহ ৩০টি দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি উদ্বেগজনক
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

Editor & Publisher: Rtn. Md Reaz Uddin
Mobile:+88-01711391530, Email: md.reaz09@yahoo.com Corporate Office
53,Modern mansion(8th floor),Motijheel C/A, Dhaka
E-mail:manabadhikarkhabar@gmail.com,manabadhikarkhabar34@yahoo.com,
Tel:+88-02-9585139
Mobile: +8801978882223 Fax: +88-02-9585140
    2015 @ All Right Reserved By manabadhikarkhabar.com    সম্পাদকীয়    Adviser List

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]