| বাংলার জন্য ক্লিক করুন

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   অর্থনীতি-ব্যবসা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
প্রিমিয়ার ব্যাংকের ১৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

দি প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড ঢাকায় ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে তাদের ১৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করেছে এবং সেই সাথে ঘোষণা দিয়েছে জনগণের সেবা ও জাতীয় উন্নয়নে তাদের অবদান অব্যহত থাকবে। 

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, অর্থ মন্ত্রণালয়, এম. এ. মান্নান, এমপি এবং বিশেষ অতিথি প্রিমিয়ার ব্যাংকের মাননীয় চেয়ারম্যান ডা: এইচ.বি.এম. ইকবাল এবং জনাব মো: আবুল বাশার, জেনারেল ম্যানেজার, আর্থিক অন্তর্ভুক্তি বিভাগ, বাংলাদেশ ব্যাংক, মিডিয়া প্রতিনিধি, শুভাকাঙ্খী ও ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে উদযাপনের অংশ হিসাবে একটি কেক কাটেন। সন্মানিত প্রধান ও বিশেষ অতিথিবৃন্দের উপস্থিতিতে এই অনুষ্ঠানে প্রিমিয়ার ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং সেবাটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে ব্যাংকের কর্পোরেট ডকুমেন্টরিতে দেখানো হয়- ব্যাংকিং কার্যক্রম, সফলতাসমূহ এবং সদ্য চালু হওয়া এই সেবাটির ব্যাংকিং নেটওয়াকের্র আওতার বাহিরে থাকা গ্রাহকদের ব্যাংকিং সেবায় আওতাভুক্ত করতে প্রধান ভূমিকা পালন করবে বলে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়।

এই শুভক্ষণ উপলক্ষে ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যান এম. ইমরান ইকবাল, সন্মানিত পরিচালক জনাব বি.এইচ. হারুন, এমপি ও জনাব আব্দুস সালাম মুর্শেদী, এবং প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান ও স্পসর শেয়ারহোল্ডার জনাব মঈন ইকবাল, পরিচালক জনাব জামাল জি. আহমদ, উপদেষ্টা জনাব মোহাম্মদ আলী, ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও জনাব খোন্দকার ফজলে রশিদ, কনসালটেন্ট জনাব এহসান খসরূ, অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব এম, রিয়াজুল করিম ও ব্যাংকের ডিএমডিগণ সহ ব্যাংকের সর্বস্তরের কর্মকর্তাগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, অর্থ মন্ত্রনালয়, এম.এ. মান্নান, এমপি তার বক্তৃতায় প্রিমিয়ার ব্যাংকের শুরুর দিকের যাত্রার কথা স্বরণ করেন এবং ১৮ বছরে ব্যাংকটির সাফল্য দেখতে পেয়ে অনেক খুশি হন। প্রিমিয়ার ব্যাংকের মাননীয় চেয়ারম্যান ডা: এইচ.বি.এম. ইকবাল ব্যাংকের কর্মকান্ডের সমর্থন ও বিশ্বাস করার জন্য সকল সন্মানিত শেয়ারহোল্ডার, গ্রাহক ও শুভাকাঙ্খী এবং নিয়ন্ত্রকদের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি ব্যাংকের অতীত ও বর্তমান কর্মচারীদের নতুনত্ব ও কঠোর পরিশ্রমের জন্য কৃতজ্ঞতা জানান এবং প্রতিশ্রুতি দেন যে, তারা আগামী দিনগুলোতে তৃনমূল পর্যায়ে এই ব্যাংকিং সেবা পৌছে দিবেন।

প্রিমিয়ার ব্যাংকের ১৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত
                                  

দি প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড ঢাকায় ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে তাদের ১৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করেছে এবং সেই সাথে ঘোষণা দিয়েছে জনগণের সেবা ও জাতীয় উন্নয়নে তাদের অবদান অব্যহত থাকবে। 

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, অর্থ মন্ত্রণালয়, এম. এ. মান্নান, এমপি এবং বিশেষ অতিথি প্রিমিয়ার ব্যাংকের মাননীয় চেয়ারম্যান ডা: এইচ.বি.এম. ইকবাল এবং জনাব মো: আবুল বাশার, জেনারেল ম্যানেজার, আর্থিক অন্তর্ভুক্তি বিভাগ, বাংলাদেশ ব্যাংক, মিডিয়া প্রতিনিধি, শুভাকাঙ্খী ও ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে উদযাপনের অংশ হিসাবে একটি কেক কাটেন। সন্মানিত প্রধান ও বিশেষ অতিথিবৃন্দের উপস্থিতিতে এই অনুষ্ঠানে প্রিমিয়ার ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং সেবাটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে ব্যাংকের কর্পোরেট ডকুমেন্টরিতে দেখানো হয়- ব্যাংকিং কার্যক্রম, সফলতাসমূহ এবং সদ্য চালু হওয়া এই সেবাটির ব্যাংকিং নেটওয়াকের্র আওতার বাহিরে থাকা গ্রাহকদের ব্যাংকিং সেবায় আওতাভুক্ত করতে প্রধান ভূমিকা পালন করবে বলে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়।

এই শুভক্ষণ উপলক্ষে ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যান এম. ইমরান ইকবাল, সন্মানিত পরিচালক জনাব বি.এইচ. হারুন, এমপি ও জনাব আব্দুস সালাম মুর্শেদী, এবং প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান ও স্পসর শেয়ারহোল্ডার জনাব মঈন ইকবাল, পরিচালক জনাব জামাল জি. আহমদ, উপদেষ্টা জনাব মোহাম্মদ আলী, ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও জনাব খোন্দকার ফজলে রশিদ, কনসালটেন্ট জনাব এহসান খসরূ, অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব এম, রিয়াজুল করিম ও ব্যাংকের ডিএমডিগণ সহ ব্যাংকের সর্বস্তরের কর্মকর্তাগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, অর্থ মন্ত্রনালয়, এম.এ. মান্নান, এমপি তার বক্তৃতায় প্রিমিয়ার ব্যাংকের শুরুর দিকের যাত্রার কথা স্বরণ করেন এবং ১৮ বছরে ব্যাংকটির সাফল্য দেখতে পেয়ে অনেক খুশি হন। প্রিমিয়ার ব্যাংকের মাননীয় চেয়ারম্যান ডা: এইচ.বি.এম. ইকবাল ব্যাংকের কর্মকান্ডের সমর্থন ও বিশ্বাস করার জন্য সকল সন্মানিত শেয়ারহোল্ডার, গ্রাহক ও শুভাকাঙ্খী এবং নিয়ন্ত্রকদের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি ব্যাংকের অতীত ও বর্তমান কর্মচারীদের নতুনত্ব ও কঠোর পরিশ্রমের জন্য কৃতজ্ঞতা জানান এবং প্রতিশ্রুতি দেন যে, তারা আগামী দিনগুলোতে তৃনমূল পর্যায়ে এই ব্যাংকিং সেবা পৌছে দিবেন।

বসুন্ধরায় ডেনিম এক্সপো সমাপ্ত
                                  


॥ মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন ॥


রাজধানীর কুড়িলে ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) বাংলাদেশ ডেনিম এক্সপোর সপ্তম সংস্করণের সাড়াজাগানিয়া সমাপনী হয়েছে। দুই দিনব্যাপী এ এক্সপোয় বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, হংকং, চীন, জার্মানি, ইতালি, জাপান, সিঙ্গাপুর, স্পেন, তুরস্ক, ভিয়েতনামের ৬৫টি প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য প্রদর্শন করেছে। এই শো’র থিম ছিল ‘ট্রান্সপারেন্সি’। যেখানে ৫ হাজার ১২৩ জন দর্শক, ১ হাজার ১৫টি কোম্পানি ও ৫২টি দেশ অংশ নেয়।

এবারের এক্সপোতে বাংলাদেশ থেকে বেশিসংখ্যক ডেনিম প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে; যা ডেনিম শিল্পে বাংলাদেশের সামর্থ্যরে জানান দেয়। তাদের মধ্যে প্যাসিফিক জিন্স, অনন্ত, বিটপি, ডেকো ও রেমন্ড ইকো অন্যতম। এক্সপোয় সাতটি সেমিনার ও একটি প্যানেল আলোচনা হয়; যাতে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বিশেষজ্ঞরা তাদের মতামত উপস্থাপন করেন। ট্রান্সপারেন্সি বা স্বচ্ছতাকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি বাংলাদেশ ডেনিম মিলস ও কারখানাগুলোয় যে অগ্রগতি হয়েছে তা বিভিন্ন কার্যক্রম এবং ঘটনার মাধ্যমে এই শোতে তুলে ধরা হয়। তা ছাড়া এক্সপোর প্রথম দিন সন্ধ্যায় প্যাসিফিক জিন্স গ্রুপের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয় বিশেষ ফ্যাশন শো ডেনিম ইনোভেশন নাইট।

অভিনব ডিজাইন এবং সৃজনশীল ডেনিম পোশাক প্রস্তুতে বাংলাদেশের নৈপুণ্য ও সক্ষমতাকে বিশ্বের কাছে তুলে ধরাই ছিল এই ফ্যাশন শো’র উদ্দেশ্য। বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন এবং এই মাত্রার ফ্যাশন শো দর্শকদের ব্যাপক প্রশংসা অর্জন করে। বাংলাদেশ ডেনিম এক্সপোর প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও মোস্তাফিজ বলেন, ‘এটি আমাদের জন্য এবং আমাদের দেশের জন্য একটি উল্লেøখযোগ্য অগ্রগতি। ডেনিম ও পোশাকশিল্পের উন্নতির মাধ্যমে বাংলাদেশকে শ্রেষ্ঠ হিসেবে তুলে ধরাই বাংলাদেশ ডেনিম এক্সপোর অন্যতম লক্ষ্য। সর্বোত্তম চর্চা ও অংশীদারিত্বের মাধ্যমে পোশাকশিল্পকে আরও স্বচ্ছ করার জন্য ক্রমবর্ধমান সহযোগিতা এবং একসঙ্গে কাজ করা প্রয়োজন। ’

আবারও কমল স্বর্ণের দাম
                                  


॥ মানাধিকার ডেস্ক ॥

আবারও কমেছে স্বর্ণের দাম। এবার ভরি প্রতি সর্বোচ্চ ১ হাজার ১৬৬ টাকা পর্যন্ত কমিয়ে নতুন দর নির্ধারণ করেছে স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের সংগঠন বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সারা দেশে প্রতি ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) ২২ ক্যারেট অর্থাৎ সবচেয়ে ভালো মানের সোনা ৪৭ হাজার ৮২২ টাকায় বিক্রি হবে। আর ২১ ক্যারেট ৪৫ হাজার ৭২৩ টাকা এবং ১৮ ক্যারেট সোনা বিক্র হবে ৪০ হাজার ২৪১ টাকায়। এছাড়া সনাতন পদ্ধতির সোনার ভরি দাঁড়াবে ২৫ হাজার ৩৪৭ টাকায়।

এদিকে সোনার দাম কমলেও রুপার দামে কোনো পরিবর্তন হয়নি। আগের মতোই প্রতি ভরি রুপা ১ হাজার ৫০ টাকায় বিক্রি হবে।

ন্যাশনাল ব্যাংকের আঞ্চলিক প্রধানদের কৌশলগত সম্মেলন
                                  


ন্যাশনাল ব্যাংকের সকল শাখা ব্যবস্থাপক ও আঞ্চলিক প্রধানদের অংশগ্রহনে ব্যাবসায়িক কৌশলগত সম্মেলন ১৬ সেপ্টেম্বর কুয়াকাটায় অবস্থিত সিকদার রিসোর্ট এন্ড ভিলাস এ অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (চলতি দায়িত্ব) চৌধুরী মোসতাক আহম্মদ। ব্যাংকের ১৯২টি শাখা’র ব্যবস্থাপক, আঞ্চলিক ব্যবস্থাপকবৃন্দ এবং প্রধান কার্যালয়ের বিভাগীয় প্রধানদের নিয়ে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে চলতি বছরের কার্যক্রমের অগ্রগতি এবং ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনা নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়। সম্মেলনে ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপকদেরকে ৬টি গ্রুপের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে দিনব্যাপী আলোচনা করা হয়।

অংশগ্রনকারীরা চলতি বছরে ব্যাংকের ব্যবসা প্রসারে, অনাদায়ী ঋণ আদায়ে এবং লক্ষমাত্রা অর্জনে সম্মিলিত এবং নিরলসভাবে কাজ করার আশা ব্যক্ত করেন। সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ব্যাংকের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালকবৃন্দ ওয়াসিফ আলী খান ও এম এ ওয়াদুদ, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালকবৃন্দ এএসএম বুলবুল, আব্দুস সোবহান খান এবং শাহ্ সৈয়দ আব্দুল বারী। - প্রেস বিজ্ঞপ্তি

শেষ হলো ৬ষ্ঠ বাংলাদেশ ডেনিম এক্সপো-২০১৭
                                  


রাজধানীর কুড়িলে অবস্থিত আর্ন্তজাতিক কনভেনশন সেন্টার বসুন্ধরায় শেষ হলো দুদিন ব্যাপি ৬ষ্ঠ বাংলাদেশ ডেনিম এক্সপো ও সাসটেনবল এপারেল ফোরাম। ১৭ মে থেকে শুরু হয়ে এই এক্সপো শেষ হয় ১৮ মে ২০১৭।
বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, হংকং, চীন, জার্মানী, জাপান, ইতালি, স্পেন, তুরস্ক, দক্ষিণ কোরিয়া এবং সান মারিনো/ইতালিসহ ১২ টি দেশ থেকে এক্সপোতে অংশ নেন ডেনিম পণ্য উৎপাদকারী প্রতিষ্ঠানগুলো।
ডেনিম পণ্য প্রদর্শন এর পাশাপাশি ডেনিমের বিস্ময়কর প্রযুক্তির সর্বোত্তম চর্চার জন্য সেমিনার ও বিশেষ ইভেন্ট এর আয়োজন হয়। ডেনিম এক্সপোর পাশপাশি চলে সাসটেইনেবল এপারেলস্ ফোরাম শীর্ষক সম্মেলন। এ ফোরামের আলোচনা সভার প্রথম দিন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় বাণিজ্য মন্ত্রী জনাব তোফায়েল আহমেদ। এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশস্থ জার্মান রাষ্ট্রদুত ড. থমাস প্রিন্স, নেদারল্যান্ডস এর রাষ্ট্রদূত লিয়োনি কুয়েলিনারে, ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত, রেমোটেক্স কর্পোরেশনের কর্ণধার মোঃ কামাল উদ্দিন সহ ডেনিম উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের মালিক ও কর্মকর্তাবৃন্দ।

ঈদে নভোএয়ারে ২০১৭ টাকায় ভ্রমণের সুযোগ
                                  


অর্থ ও বা নি জ্য
ঈদে নভোএয়ারে ২০১৭ টাকায় ভ্রমণের সুযোগ
মানবাধিকার খবর ডেস্ক

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দুটি রুটে বিশেষ মূল্য ছাড়ের ঘোষণা দিয়েছে দেশের অন্যতম বেসরকারি বিমান সংস্থা নভোএয়ার।
গতকাল বৃহস্পতিবার নভোএয়ারের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আগামী ২২ থেকে ২৬ জুন পর্যন্ত যশোর-ঢাকা ও  সৈয়দপুর-ঢাকা রুট ভ্রমণ করতে পারবেন সর্বনিম্ন মাত্র ২০১৭ টাকায়। এ ছাড়া ২৭ থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ঢাকা-যশোর ও ঢাকা-সৈয়দপুর রুটে ভ্রমণ করতে পারবেন সর্বনিম্ন মাত্র ২০১৭ টাকায়।
এ ছাড়া যাত্রী চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে কক্সবাজার রুটে ২৮ জুন থেকে ২ জুলাই পর্যন্ত নিয়মিত সিডিউল ফ্লাইটের পাশাপাশি প্রতিদিন অতিরিক্ত একটি করে ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।
    

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দুটি রুটে বিশেষ মূল্য ছাড়ের ঘোষণা দিয়েছে দেশের অন্যতম বেসরকারি বিমান সংস্থা নভোএয়ার।
গতকাল বৃহস্পতিবার নভোএয়ারের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আগামী ২২ থেকে ২৬ জুন পর্যন্ত যশোর-ঢাকা ও  সৈয়দপুর-ঢাকা রুট ভ্রমণ করতে পারবেন সর্বনিম্ন মাত্র ২০১৭ টাকায়। এ ছাড়া ২৭ থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ঢাকা-যশোর ও ঢাকা-সৈয়দপুর রুটে ভ্রমণ করতে পারবেন সর্বনিম্ন মাত্র ২০১৭ টাকায়।
এ ছাড়া যাত্রী চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে কক্সবাজার রুটে ২৮ জুন থেকে ২ জুলাই পর্যন্ত নিয়মিত সিডিউল ফ্লাইটের পাশাপাশি প্রতিদিন অতিরিক্ত একটি করে ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।
    

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দুটি রুটে বিশেষ মূল্য ছাড়ের ঘোষণা দিয়েছে দেশের অন্যতম বেসরকারি বিমান সংস্থা নভোএয়ার।
গতকাল বৃহস্পতিবার নভোএয়ারের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আগামী ২২ থেকে ২৬ জুন পর্যন্ত যশোর-ঢাকা ও  সৈয়দপুর-ঢাকা রুট ভ্রমণ করতে পারবেন সর্বনিম্ন মাত্র ২০১৭ টাকায়। এ ছাড়া ২৭ থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ঢাকা-যশোর ও ঢাকা-সৈয়দপুর রুটে ভ্রমণ করতে পারবেন সর্বনিম্ন মাত্র ২০১৭ টাকায়।
এ ছাড়া যাত্রী চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে কক্সবাজার রুটে ২৮ জুন থেকে ২ জুলাই পর্যন্ত নিয়মিত সিডিউল ফ্লাইটের পাশাপাশি প্রতিদিন অতিরিক্ত একটি করে ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।
    

ঢাকা ব্যাংকের সিএসআর কার্যক্রম
                                  

মানবাধিকারখবর ডেস্ক
সম্প্রতি ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে অবস্থিত সেয়দপুর আবদুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৩,৬৯,৪০০ টাকার অনুদান প্রদান করে। বিদ্যালয়ের উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের নতুন একাডেমিক ভবনের নির্মাণ কার্য সম্পন্ন করার জন্য এই অর্থ ব্যয় হবে। ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও সেয়দ মাহবুবুর রহমান অনুদানের চেকটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সেয়দ মোহাম্মদ সেলিমের নিকট হস্তান্তর করেন। অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমরানুল হক, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক খান শাহাদাৎ হোসেন, কোম্পানী সচিব আরহাম মাসুদুল হক, কমিউনিকেশনস ও ব্র্যান্ডিং ডিভিশনের প্রধান খন্দকার আনোয়ার এহতেশাম এবং সেয়দপুর আবদুর রহমান বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির প্রধান এম. এ. কাশেমসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকায় সিএনজির পরিবর্তে আসছে বাজাজের ‘কিউট’গাড়ি
                                  



অর্থ-বাণিজ্য |

ভারতের গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বাজাজের উন্নত প্রযুক্তির তিন চাকার মালমাল পরিবহনযোগ্য যান এবং চার চাকার যাত্রী পরিবহন গাড়ি ‘কিউট’ বাংলাদেশের বাজারে এনেছে রানার অটোমোবাইল লিমিটেড। বাজাজের নতুন এসব যানবাহনে জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা যাবে তরলিকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) ও ডিজেল।

সোমবার রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) এসব গাড়ির আনুষ্ঠানিক বাজারজাতকরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। বাংলাদেশে পরিবহনের চাহিদা পূরণে বাজাজের নতুন বাহন ‘কিউট’ এবং মালামাল পরিবহনে বাজাজের তিন চাকার যান আনতে সম্প্রতি বাজাজের সঙ্গে একটি সমঝোতা চুক্তি করেছিল রানার অটোমোবাইল লিমিটেড।

অনুষ্ঠানে বাজাজের জেনারেল ম্যানেজার (ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস) মনিষ শিংরাথোর বলেন, ‘বাংলাদেশে বাজাজের এলপিজি এবং ডিজেলচালিত তিন চাকার যাত্রী ও মালবাহী যান প্রথমবারের মতো আনতে পেরে আমরা আনন্দিত। একই সাথে চার চাকার কিউট ও রানারের মাধ্যমে বাংলাদেশের বাজারে আনতে পেরে আমরা গর্ববোধ করছি। কারণ এসব যানবাহন এদেশের নিরাপদ, আকর্ষণীয় জ্বালানি সাশ্রয়ী এবং পরিবেশের উপযোগী কিউট বাংলাদেশে পরিবহন খাতে বড় অবদান রাখবে। এছাড়া জনবসতিপূর্ণ নগরীর উপযোগী হবে। এরই মধ্যে এটি বিশ্বের ২০টি দেশে বাজারজাত করা হয়েছে।’

রানার গ্রুপের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান বলেন, ‘আজ আমাদের অত্যন্ত আনন্দের দিন। আমরা সারাবিশ্বের একটি সমাদৃত ব্র্যান্ড বাজাজের সাথে যুক্ত হবার মাধ্যমে রানার অটোমোবাইল লিমিটেড নতুন একটি যুগে প্রবেশ করলো। এই বিকল্প জ্বালানির থ্রি হুইলারের ব্যাপক উপযোগিতা রয়েছে। এটি বাংলাদেশের পরিবহন খানের উন্নয়নে অবদান রাখবে।’

তিনি আরও বলেন, এই উচ্চ ক্ষমতার টেকসই এবং প্রযুক্তিনির্ভর যান পরিবেশবান্ধব এটি সবুজ বাংলাদেশ গড়তে সহায়ক হবে।

রানার অটোমোবাইলসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মুকেশ শর্মা বলেন,‘পর্যায়ক্রমে রানার থ্রি হুইলার এবং কিউট সরবরাহের মাধ্যমে বাংলাদেশে একটি ভারসম্যপূর্ণ ইকো-সিস্টেম প্রতিষ্ঠা করবে। এই যানবাহনগুলো তূলনামূলক কম দামে বিক্রি হবে। ক্রেতার ক্রয়ক্ষমতার উপযোগী প্যাকেজে বিভিন্ন ব্যবহারকারীর কাছে বিক্রির ব্যবস্থা করা হবে। আগামী নয় মাসের মধ্যে এসব গাড়ি বাজারজাতকরণে ২০টি ডিলার নিয়োগ করা হবে বলে জানান তিনি।’

সম্প্রতি ঢাকায় শেষ হওয়াইন্দো-বাংলা মটরশোতে এসব যানবাহন প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠানে রানার অটোমোবাইলসের ডিলার, মালিক সমিতি, চালক সমিতির নেতা, বিভিন্ন এনজিও এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

* চার চাকার কিউট ব্র্যান্ডের গাড়ির দাম চার লাখ ৯৯ হাজার টাকা। তিন চাকার যাত্রীবাহী অটোরিকশার দাম তিন লাখ ৬০ হাজার থেকে চার লাখ ৩০ হাজার টাকা এবং তিন চাকার পণ্য পরিবহনের গাড়ির দাম চার লাখ ৬০ হাজার টাকা।

সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা পুঁজিবাজারে
                                  



অনলাইন ডেস্ক

সূচকের কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা আজ লক্ষ করা যাচ্ছে দেশের দুই পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই)।

আজ সোমবার সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস দৈনন্দিন লেনদেনের গতি কিছুটা বেড়েছে। এ ছাড়া বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দর বেড়েছে দুই পুঁজিবাজারেই।

ডিএসইতে আজ দুপুর সাড়ে ১২টা নাগাদ প্রধান সূচক ডিএসইএক্স সূচক ১৫ দশমিক ১৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫৫৮৮ পয়েন্টে। দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত লেনদেন হয়েছে প্রায় ৪১৪ কোটি ৯২ লাখ টাকা। গত কার্যদিবস এ সময় পর্যন্ত ডিএসইতে লেনদেন হয় ৩২৫ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। আজ দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নিয়েছে ৩১৪টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৮৩টির, কমেছে ৮৯টির। দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪২টি কোম্পানির।

অন্যদিকে, সিএসইতে আজ দুপুর ১২টা নাগাদ সার্বিক সূচক বেড়েছে ৫৮ পয়েন্ট। মোট লেনদেনের পরিমাণ প্রায় ১৯ কোটি ৭৮ লাখ টাকা। গত কার্যদিবস এ সময় পর্যন্ত লেনদেন হয় ১৯ কোটি ৪২ লাখ টাকা। আজ দুপুর সাড়ে ১২টা নাগাদ সিএসইতে লেনদেনে অংশ নিয়েছে ২০৫টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৩টির, কমেছে ৫২টির। দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টি কোম্পানির।

৬.৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হবে বাংলাদেশে
                                  

 


ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশে চলতি অর্থবছরে মোট দেশজ উৎপাদনে (জিডিপি) ৬ দশমিক ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। বুধবার বিশ্ব অর্থনীতির সম্ভাবনা নিয়ে ব্যাংকের অর্ধবার্ষিক প্রতিবেদন ‘গ্লোবাল ইকোনমিক প্রসপেক্টস’- এ এই পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশের সরকারি পূর্বাভাস অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ২ শতাংশ হবে বলে আশা করা হচ্ছে। গত ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক চূড়ান্ত হিসাবে প্রবৃদ্ধি হয় ৭ দশমিক ১১ শতাংশ।

প্রতিবেদনে চলতি অর্থবছর বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৬ দশমিক ৮ শতাংশ হওয়ার পূর্বাভাস দেওয়ার পাশাপাশি ২০১৭-১৮ অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি কমে যাওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছে বিশ্বব্যাংক।

এর আগে ‘গ্লোবাল ইকোনমিক প্রসপেক্টস’ এর জুন সংখ্যায় বিশ্বব্যাংক ২০১৬-১৭ অর্থবছরে বাংলাদেশে ৬ দশমিক ৩ শতাংশের বেশি জিডিপি প্রবৃদ্ধি পাবে না বলে উল্লেখ করেছিল। ছয় মাস পর জানুয়ারির প্রতিবেদনে যে প্রক্ষেপণ তারা দিয়েছে, তা আগের হিসাব থেকে দশমিক পাঁচ শতাংশ বেশি।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রবাসী আয় কমে যাওয়ায় ব্যক্তি পর্যায়ে ভোগ কমবে। একই সঙ্গে কমবে বিনিয়োগ। রাজস্ব খাতে ভারসাম্য আনতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া না হলে এবং আর্থিক ও করপোরেট খাতে স্থিতিশীলতার অবনমন ঘটলে আরো শ্লথ হয়ে যেতে পারে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি।

ফলে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি কিছুটা কমে ৬ দশমিক ৫ শতাংশে নামতে পারে। তবে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বাংলাদেশের অর্থনীতি আবার ঘুরে দাঁড়াবে, প্রবৃদ্ধি হবে ৬ দশমিক ৭ শতাংশ। এরপর ২০১৯-২০ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি কিছুটা বেড়ে সাত শতাংশ হবে।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, চলতি অর্থবছর দক্ষিণ এশিয়ার আট দেশের মধ্যে প্রবৃদ্ধি অর্জনে বাংলাদেশের অবস্থান হবে তৃতীয়। প্রথম অবস্থানে থাকবে ভুটান। দেশটির প্রবৃদ্ধি হবে ৯ দশমিক ৯ শতাংশ। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকবে ভারত, তাদের ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হবে। সার্বিক দিক দিয়ে চলতি অর্থবছর দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক প্রবৃদ্ধি বেড়ে হবে ৭ দশমিক ১ শতাংশ।

এ ছাড়া বৈশ্বিক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ২০১৭ সালে ২ দশমিক ৭ শতাংশ হবে বলে মনে করছে বিশ্বব্যাংক। বিদায়ী বছরের চেয়ে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বেশি হবে বলেই আশা করা হচ্ছে। বিদায়ী বছরে বিশ্বে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২ দশমিক ৩ শতাংশ। এই প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধির পেছনে কাজ করবে উন্নয়নশীল অর্থনীতির উদীয়মান বাজার।

ইসলামী ব্যাংকের পরিচালনায় বড় পরিবর্তন
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক | মানাধিকার খবর |

 

ইসলামী ব্যাংকের পরিচালনা ও ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে বড় ধরনের পরিবর্তন এসেছে। ব্যাংকটির চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি), নির্বাহী ও অডিট কমিটির চেয়ারম্যান পদে পরিবর্তন আনা হয়েছে।

ব্যাংকটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে জামায়াত-নিয়ন্ত্রিত ব্যাংক হিসেবেই পরিচিত ছিল। সেই পরিচয় থেকে ব্যাংকটিকে বের করে আনতে বেশ কিছুদিন ধরে এটির মালিকানা, পরিচালনা ও ব্যবস্থাপনায় ধাপে ধাপে পরিবর্তন আসছিল।

সর্বশেষ গতকাল দিনভর অনুষ্ঠিত পরিচালনা পর্ষদের সভায় বড় ধরনের পরিবর্তন আনা হয়।

জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ প্রতিষ্ঠান ইবনে সিনা ট্রাস্টের প্রতিনিধি হিসেবে এত দিন ব্যাংকটির চেয়ারম্যানের দায়িত্বে ছিলেন মুস্তাফা আনোয়ার। তাঁর জায়গায় দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সরকারের সাবেক সচিব আরাস্তু খানকে।

যুদ্ধাপরাধের দায়ে ফাঁসি কার্যকর হওয়া মীর কাসেম আলী ছিলেন ইসলামী ব্যাংকের অন্যতম উদ্যোক্তা। তিনি একসময় ইবনে সিনা ট্রাস্টেরও চেয়ারম্যান ছিলেন।

রাজধানীর পাঁচ তারকা রেডিসন হোটেলে অনুষ্ঠিত পর্ষদ সভায় ব্যাংকটিতে বড় ধরনের এ পরিবর্তন আনা হয়। পরিবর্তন আনা হয়েছে ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান পদেও।

নতুন পরিচালক হিসেবে গতকাল পর্ষদ সভায় যোগ দিয়েই ব্যাংকটির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সরকারের সাবেক সচিব আরাস্তু খান। আরমাডা স্পিনিং মিলস নামের একটি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি হিসেবে আরাস্তু খান ইসলামী ব্যাংকের পরিচালক মনোনীত হন। গতকালই তিনি প্রথম পর্ষদ সভায় যোগ দেন এবং সেখানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। চেয়ারম্যান পদ ছাড়াও ব্যাংকটির পরিচালক ও ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান পদ থেকেও পদত্যাগ করেন মুস্তাফা আনোয়ার। পদত্যাগ করেছেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল মান্নান। নতুন এমডি হিসেবে ইউনিয়ন ব্যাংকের এমডি আবদুল হামিদ মিঞার নাম অনুমোদন করা হয়। নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমোদন সাপেক্ষে তাঁর নিয়োগ কার্যকর হবে। তবে আবদুল মান্নান পর্ষদ সভায় উপস্থিত ছিলেন না।

যোগাযোগ করা হলে গতকাল রাতে মুস্তাফা আনোয়ার বলেন, পর্ষদের সভায় ব্যাংকের নতুন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। ভাইস চেয়ারম্যান আজিজুল হক ও এমডি আবদুল মান্নান পদত্যাগ করেছেন।

ইসলামী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের গতকালের সভায় চেয়ারম্যান ছাড়াও ভাইস চেয়ারম্যান আজিজুল হক পরিচালক পদ থেকে পদত্যাগ করেন। তাঁর স্থলে নতুন ভাইস চেয়ারম্যান করা হয় সৈয়দ আহসানুল আলমকে। তিনি ব্যাংকটির নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যানও ছিলেন। ভাইস চেয়ারম্যানের অপর একটি পদে ইউসুফ আবদুল্লাহ আল-রাজি পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন।

এ ছাড়া মেজর জেনারেল (অব.) আবদুল মতিনকে নির্বাহী কমিটি ও মো. জিল্লুর রহমানকে অডিট কমিটি এবং মো. আবদুল মাবুদকে ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান করে একাধিক কমিটি পুনর্গঠন করা হয়।

বড় ধরনের এ পরিবর্তন এলেও পরিচালনা পর্ষদের আকারে বড় পরিবর্তন আসেনি। পুনর্গঠনের পর ১৮ জনের পর্ষদ নেমে এসেছে ১৭ জনে। এর মধ্যে ৭ জনই স্বতন্ত্র পরিচালক। তাঁরাই মূলত ব্যাংকটি পরিচালনায় মূল ভূমিকা রাখছেন। ব্যাংকটির বিদেশি শেয়ারধারীদের মধ্যে পরিচালক হিসেবে রয়েছেন মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক আল-রাজি, ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক এবং সরকারি মালিকানাধীন দেশীয় প্রতিষ্ঠান ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) প্রতিনিধি। এ ছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে এবিসি ভেঞ্চার, গ্র্যান্ড বিজনেস লিমিটেড, এক্সেল ডাইং অ্যান্ড প্রিন্টিং, প্লাটিনাম এনডেভরস, প্যারাডাইস ইন্টারন্যাশনাল ও ব্লু ইন্টারন্যাশনালের প্রতিনিধি ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদে যুক্ত হয়েছেন। স্বতন্ত্র পরিচালকেরা হলেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল, পূবালী ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হেলাল আহমেদ চৌধুরী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ আহসানুল আলম, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সাবেক এমডি জিল্লুর রহমান, পুলিশের সাবেক অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক আবদুল মাবুদ, আইনজীবী বোরহান উদ্দিন আহমেদ ও বেক্সিমকো গ্রুপের প্রতিষ্ঠান শাইনপুকুর সিরামিক ও নিউ ঢাকা ইন্ডাস্ট্রিজের প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির।

এর আগে জামায়াতের কর্মকাণ্ডে সক্রিয়ভাবে জড়িত এমন পরিচালক ও কর্মকর্তাদের ইসলামী ব্যাংক থেকে সরিয়ে দিতে ব্যাংকটির ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ আল-রাজি সম্মতি দিয়েছেন বলে সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ জানিয়েছিলেন। অর্থমন্ত্রীর কাছে পাঠানো পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এক চিঠি থেকে এ তথ্য পাওয়া যায়। অর্থমন্ত্রীর নির্দেশে সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহর সঙ্গে এক বৈঠকে এমন মত দেন ইউসুফ আল-রাজি। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের কাছে পাঠানো পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়।

ইসলামী ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, ইসলামী ব্যাংকের শীর্ষ দুই বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠানই বিদেশি। এর মধ্যে একক প্রতিষ্ঠান হিসেবে ইসলামী ব্যাংকের সবচেয়ে বেশি শেয়ার রয়েছে আল-রাজি কোম্পানির। এ প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি হিসেবে ব্যাংকটির ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ আল-রাজি। এরপরই বেশি শেয়ার রয়েছে কুয়েতের পাবলিক অথরিটি ফর মাইনরস অ্যাফেয়ার্সের।

ইসলামী ব্যাংকের বিদেশি উদ্যোক্তারা হলেন ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক, কুয়েত ফিন্যান্স হাউস, ইসলামিক ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড করপোরেশন দোহা, ইসলামিক ব্যাংকিং সিস্টেম ইন্টারন্যাশনাল হোল্ডিং লুক্সেমবার্গ, শেখ আহমেদ সালেহ জামজুম, শেখ ফুয়াদ আবদুল হামিদ আল-খতিব, দ্য পাবলিক ইনস্টিটিউট ফর সোশ্যাল সিকিউরিটি কুয়েত, মিনিস্ট্রি অব জাস্টিস কুয়েত। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠাকালীন বিদেশি উদ্যোক্তা বাহরাইন ইসলামি ব্যাংক সব শেয়ার বিক্রি করে দিয়েছে। এ ছাড়া অপর এক উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান দুবাই ইসলামি ব্যাংকও বেশির ভাগ শেয়ার ছেড়ে দিচ্ছে।

বিদেশি বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি স্থানীয় বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান হলো বায়তুল শরীফ ফাউন্ডেশন, ইবনে সিনা ট্রাস্ট, বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টার, ইসলামিক ইকোনমিক রিসার্চ ব্যুরো। গতকালের পরিবর্তনের ফলে এসব প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিমুক্ত হলো ইসলামী ব্যাংক।

দেশি-বিদেশি যৌথ উদ্যোগে দেশে ১৯৮৩ সালে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের যাত্রা শুরু হয়। শুরুতে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক ১৩টি প্রতিষ্ঠানের ৬৩ শতাংশের বেশি মালিকানা ছিল ইসলামী ব্যাংকে। তবে দুই বছর ধরে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ইসলামী ব্যাংকে তাদের মালিকানা ছেড়ে দেওয়ায় উদ্যোক্তা অংশের পরিমাণ কিছুটা কমেছে।

ইসলামী ব্যাংক দেশের সবচেয়ে বড় ব্যাংক হিসেবে পরিচিত। সবচেয়ে বেশি প্রবাসী আয় আসে এ ব্যাংকের হাত ধরে। ২০১৬ সালে ব্যাংকটি ২ হাজার ৩ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা করেছে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের ব্যাংকটির গতকাল শেয়ারবাজারে দাম ছিল ৩০ টাকা।

ভালো গ্রহিতাদের প্রণোদনা দিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তাগিদ
                                  

 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | মানাধিকার খবর |

মঙ্গলবার (৩ জানুয়ারি) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত ব্যাংকার্স সভায় এ তাগিদ দেওয়া হয়।

সভায় উপস্থিত ছিলেন- গভর্নর ফজলে কবির, ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী ও এসএম মনিরুজ্জামান এবং বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালকরা (এমডি)।

সভায় চলতি ও নতুন মুদ্রানীতি, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে ঋণের সার্ভিস চার্জ, হলমার্ক গ্রুপের অনুকূলে সোনালী ব্যাংকের স্বীকৃত বিল ও আগের ব্যাংকার্স সভার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন বিষয়ে আলোচনা করা হয়।

দেশের উন্নত ঋণ সংস্কৃতি গড়ে তোলা ও ভালো ঋণগ্রহীতাদের নির্ধারিত সময়ে ঋণ পরিশোধে উৎসাহিত করতে প্রণোদনা দেওয়ার নির্দেশনা রয়েছে। ২০১৫ সালে আদায় করা সুদের উপর ১০ শতাংশ রিবেট (রিবেট) দেওয়ার বিধান জারি করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

কিন্তু মাত্র ছয়টি ব্যাংক ৫ কোটি ৬০ লাখ টাকা রিবেট দিয়েছে এবং ১৬টি ব্যাংক রিবেট দেওয়ার জন্য ৫৭ কোটি টাকা প্রভিশন সংরক্ষণ করেছে। বাকি ৩৪টি ব্যাংক এখনও রিবেট দেওয়ার কোনো উদ্যোগ নেয়নি। ভালো গ্রাহকদের প্রণোদনা (রিবেট) দিতে ব্যাংকার্স সভায় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বৈঠক শেষে এস কে সুর চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের ঋণের সার্ভিস চার্জ কমাতে ছয়টি খাত নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ভালো ঋণগ্রহিতাদের সুদ হারে প্রণোদনা দেওয়ার যে সিদ্ধান্ত ছিল তা মাত্র কয়েকটি ব্যাংক বাস্তবায়ন করেছে। বাকিগুলোকে এ জন্য তাগাদা দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, হুন্ডি বেড়ে যাওয়া রেমিটেন্স কমেছে। ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিটেন্স আনার ক্ষেত্রে ও হুন্ডি প্রতিরোধে ব্যাংকগুলোকে ভূমিকা রাখতে বলা হয়েছে। এছাড়া বর্তমানে বাজারে নগদ ডলারের সংকট মেটাতে ডলার আমদানির প্রক্রিয়া চলছে। এক্ষেত্রে আমদানি শুল্ক প্রত্যাহারে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ও অর্থমন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

বৈঠক সূত্র জানায়, কটেজ, মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি (সিএমএসএমই) শিল্পের ঋণের প্রায় ১৬ থেকে ১৮ ধরনের চার্জ আদায় করছে ব্যাংকগুলো। লোন অ্যাপ্লিকেশন ফি, লোন প্রসেসিং ফি, ডকুমেন্টেশন ফি, সার্ভিস চার্জ, লিগ্যাল ফি, অ্যাপ্রাইসাল ফি, সার্ভে ফি, মটগেজ ফি, আর্লি সেটেলমেন্ট ফি, ব্যাংক গ্যারান্টি, মনিটরিং ফি, রিনিউয়াল ফি ইত্যাদি নামে চার্জ আদায় করে।

এমনকি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সিআইবি চার্জের নামে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করে কোনো কোনো ব্যাংক। এতে ঋণের কার্যকর সুদ হার ৪ থেকে ৬ শতাংশ বেড়ে যাচ্ছে। তাই সার্ভিস চার্জ আদায়ের ছয়টি খাত নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে।

আমানত ও ঋণের সুদ হারের ব্যবধান স্প্রেড যৌক্তিক পর্যায়ে নামিয়ে আনার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে ব্যাংকগুলোকে। বর্তমানে বাজারে সুদের হার ক্রমশ কমছে। কিন্তু ব্যাংকে খেলাপি ঋণ বাড়ায় আমানতের বিপরীতে যে পরিমাণে সুদের হার কমেছে, ঋণের বিপরীতে সেই হারে কমেনি। এতে আমানতকারী ও ঋণগ্রহিতা উভয়ই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। গ্রাহক ঠকানো এ কৌশল বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বৈঠকে হলমার্ক জালিয়াতির ঘটনায় ব্যাংকগুলো সোনালী ব্যাংকের স্বীকৃত বিলের বিপরীতে ও গ্রাহকের অনুকূলে সৃষ্ট ফোর্সড লোনের বিপরীতে সুদ আদায় করবে না বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়া যেসব ব্যাংক পাওনা আদায়ে মামলা করেছিল ওই সব মামলা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হয়েছে বৈঠকে।

হুন্ডির কারণে দেশের রেমিটেন্স আয় কমে যাওয়ার কারণে বৈদেশিক খাতে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বাড়লেও বাজারে নগদ ডলারে সঙ্কট দেখা দিয়েছে। নগদ ডলারের সংকট মেটাতে ডলার আমদানির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। হুন্ডি বন্ধে ব্যাংকগুলোকে পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে।

ভারতে নির্বাচনে ধর্মের ব্যবহার নিষিদ্ধ
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | মানাধিকার খবর |

ভারতে নির্বাচনে ধর্ম ও জাত-পাতের ব্যবহার নিষিদ্ধ করে ঐতিহাসিক রায় দিয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।

সোমবার (২ জানুয়ারি) প্রধান বিচারপতিসহ সাত বিচারপতির সমন্বয়ে গঠিত সর্বোচ্চ আদালতের একটি বেঞ্চ এই রায় দেন। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম এ খবর দিয়েছে।

রায়ে বলা হয়, নির্বাচন হলো একটি ধর্মনিরপেক্ষ চর্চা। আর মানুষে মানুষে সম্পর্ক এবং তাদের প্রার্থনা-পূজা করার বিষয়টি একেবারেই আলাদা ও ব্যক্তিগত বিষয়। সুতরাং ধর্মনিরপেক্ষ চর্চায় এই বিষয়গুলোর ব্যবহার হতে পারে না।

১৯৯০ সালে মহারাষ্ট্রে দায়ের করা এক মামলার শুনানিকালে নির্বাচনে ধর্মের ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। এই রায়ের মাধ্যমে সে প্রশ্নের দীর্ঘ প্রতীক্ষারই অবসান ঘটলো।

আদালতের রায়ে বলা হয়, ভোট চাইতে গিয়ে ধর্মের ব্যবহার হলে তা হবে দুর্নীতির চর্চা এবং ক্ষমার অযোগ্য।

সংবাদমাধ্যম বলছে, সুপ্রিম কোর্ট এমন সময় এ ঐতিহাসিক রায় দিলেন যখন উত্তরপ্রদেশসহ ৫টি রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের জোর প্রস্তুতি চলছে।

ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র হলেও ভারতে সাম্প্রদায়িক চেতনার দল বেশি। এ কারণে নির্বাচন এলে ভোটের পোস্টার-ব্যানারে নেতাকর্মীদের ছবির পাশাপাশি অনেক সময় দেব-দেবীর ছবিও দেখা যায়।

নাস্তিক জুকারবার্গ এখন ধর্মের পথে
                                  


আন্তর্জাতিক ডেস্ক | মানাধিকার খবর |

ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ এতদিন নিজেকে নাস্তিক বলে পরিচয় দিয়ে আসলেও এবার ধর্মের পথে হাঁটতে শুরু করেছেন। ফেসবুকে তার নিজস্ব প্রোফাইলে এতদিন ধর্ম নাস্তিকতাবাদ উল্লেখ করে আসছিলেন জুকারবার্গ। কিন্তু গত ২৫ ডিসেম্বর ক্রিসমাস ডেতে তিনি সবাইকে মেরি ক্রিসমাস ও হ্যাপি হানুকাহ জানান তার নিজের স্ত্রী, কন্যা ও পোষা কুকুরের পক্ষ থেকে।



বিষয়টিতে বিস্মিত একজন মন্তব্যকারী জানতে চেয়েছেন, ‘আপনিতো নাস্তিক ছিলেন তাই না?’

উত্তরে জুকারবার্গ উত্তরে বলেছেন, আমি ইহুদি পরিবারে বড় হয়েছি এরপর একটা সময়ের মধ্য দিয়ে আমি গেছি যখন আমার মনে অনেক প্রশ্নই দেখা দিতো। কিন্তু আজ আমি বিশ্বাস করি ধর্ম খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়।

জুকারবার্গ অবশ্য তার ধর্মীয় বিশ্বাসের বিষয়টি সুনির্দিষ্ট করেন নি। তবে ফেসবুক বার্তায় ছিলো এই কথাটিই- “ক্রিসমাস সেলিব্রেট করছি’
গত গ্রীস্মে স্ত্রী প্রিসিলা চ্যানকে নিয়ে ভ্যাটিক্যানে পোপ ফ্রান্সিসের সঙ্গে দেখাও করেছিলেন জুকারবার্গ। তখন যোগাযোগ প্রযুক্তিকে কিভাবে বিশ্বের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর কাছে পৌঁছানো যায় সে বিষয়ে তাদের কথা হয়। তখনও জুকারবার্গ বলেছিলেন পোপের করুণাময়ী দৃষ্টিভঙ্গি তাকে মুগ্ধ করেছে।

স্ত্রী প্রিসিলার বৌদ্ধ ধর্মেও জুকারবার্গ নানা সময়ে তার আগ্রহ দেখিয়েছেন।

ইন্দোনেশিয়ায় নৌকায় অগ্নিকাণ্ডে ২৩ যাত্রীর মৃত্যু
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মানাধিকার খবর::

ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তার কাছে একটি নৌকায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিহত বেড়ে ২৩ জনে দাঁড়িয়েছে। রোববার জাকার্তা থেকে শতাধিক আরোহী নিয়ে যাত্রা শুরুর পর নৌকাটিতে আগুন ধরে।

দেশটির এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে বার্তাসংস্থা এপি এক প্রতিবেদনে বলছে, শতাধিক যাত্রী নিয়ে নৌকাটি জাকার্তা বন্দরের মাওরা আঙ্কে থেকে কেপুলন সারিবুর দ্বীপ তিদুংয়ের দিকে যাচ্ছিল। এ সময় ওই নৌকাটিতে আগুনের সূত্রপাত ঘটে।

স্থানীয় দুর্যোগ প্রশমন সংস্থার কর্মকর্তা সেপ্লে মাদরেতো মেট্রো টিভিকে বলেন, অগ্নিদগ্ধ ১০ জনেরও বেশি নৌকাযাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আগুনে নৌকাটির প্রায় অর্ধেক অংশ পুড়ে গেছে।

ইস্তাম্বুলে নাইটক্লাবে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত বেড়ে ৩৯
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :


তুরস্কের প্রধান ও অভিজাত নগরী ইস্তাম্বুলের একটি জনাকীর্ণ নাইটক্লাবে সশস্ত্র সন্ত্রাসী হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩৯ জন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও প্রায় ৬৯ জন। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর বরাত দিয়ে রোববার (০১ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সময় দুপুরের দিকে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো এ তথ্য জানিয়েছে।

ইংরেজি নববর্ষ উদযাপনকালে শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) রাতে (১ জানুয়ারির প্রথম প্রহরে) নগরীর বেসিকতাস এলাকার জনপ্রিয় রেইনা নাইটক্লাবে এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাটি ঘটে।

খবরে বলা হয়, একজন বন্দুকধারী নাইটক্লাবে হামলা চালিয়েছে। এ সময় তার বেশ-ভূষা ছিল সান্তা ক্লজের। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে গেছে পুলিশের অতিরিক্ত গাড়ি ও বেশ কিছু অ্যাম্বুলেন্স।

হামলার পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা, ছবি: সংগৃহীতএই হামলাকে ‘বর্বরোচিত’ ও ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড’ আখ্যা দিয়ে ইস্তাম্বুলের গভর্নর বাসিফ শাহীনের বলেন, লং-ব্যারেলড বন্দুক নিয়ে একজন সন্ত্রাসী রাত সোয়া ১টার দিকে ক্লাবে ঢুকে পড়ে, তার আগে সে ক্লাবের ফটকে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যকে হত্যা করে। এরপর ভেতরে ঢুকে গুলি করে হত্যা করে নববর্ষ উদযাপনে অন্য নিরীহ বেসামরিক নাগরিকদের।

নববর্ষ উদযাপনকে ঘিরে এশিয়া ও ইউরোপ দুই মহাদেশের নগরী বলে খ্যাত ইস্তাম্বুলে কড়া নিরাপত্তা নেওয়া হয়। উৎসব উদযাপন নির্বিঘ্ন করতে রাতভর মাঠে ছিলো ১৭ হাজার পুলিশ সদস্য। এমন নিরাপত্তার বলয় ভেঙেই সশস্ত্র হামলাটি চালানো হয়।

হামলার পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্ধার তৎপরতা, ছবি: সংগৃহীতহামলাটি কারা চালিয়েছে ঠিক এ বিষয়ে এখনও কোনো ধারণা না পাওয়া গেলেও গভর্নর জানান, এ ঘটনায় এরইমধ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে।

এ হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে জড়িতদের বিরুদ্ধে ভয়ংকর পরিণতির হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট রজব তৈয়্যব এরদোগান ও প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম।

হামলার কড়া নিন্দা জানিয়ে তুরস্কের পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাসহ বিশ্ব নেতারা। ঘটনার তদন্তে সহযোগিতারও প্রস্তাব দিয়েছেন ওবামা।

এই হামলার ঠিক তিন সপ্তাহ আগে ইস্তাম্বুলেই জোড়া বোমা হামলায় ৪৫ জন নিহত হন, যাদের বেশিরভাগই ছিলেন পুলিশ সদস্য।


   Page 1 of 3
     অর্থনীতি-ব্যবসা
প্রিমিয়ার ব্যাংকের ১৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত
.............................................................................................
বসুন্ধরায় ডেনিম এক্সপো সমাপ্ত
.............................................................................................
আবারও কমল স্বর্ণের দাম
.............................................................................................
ন্যাশনাল ব্যাংকের আঞ্চলিক প্রধানদের কৌশলগত সম্মেলন
.............................................................................................
শেষ হলো ৬ষ্ঠ বাংলাদেশ ডেনিম এক্সপো-২০১৭
.............................................................................................
ঈদে নভোএয়ারে ২০১৭ টাকায় ভ্রমণের সুযোগ
.............................................................................................
ঢাকা ব্যাংকের সিএসআর কার্যক্রম
.............................................................................................
ঢাকায় সিএনজির পরিবর্তে আসছে বাজাজের ‘কিউট’গাড়ি
.............................................................................................
সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা পুঁজিবাজারে
.............................................................................................
৬.৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হবে বাংলাদেশে
.............................................................................................
ইসলামী ব্যাংকের পরিচালনায় বড় পরিবর্তন
.............................................................................................
ভালো গ্রহিতাদের প্রণোদনা দিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তাগিদ
.............................................................................................
ভারতে নির্বাচনে ধর্মের ব্যবহার নিষিদ্ধ
.............................................................................................
নাস্তিক জুকারবার্গ এখন ধর্মের পথে
.............................................................................................
ইন্দোনেশিয়ায় নৌকায় অগ্নিকাণ্ডে ২৩ যাত্রীর মৃত্যু
.............................................................................................
ইস্তাম্বুলে নাইটক্লাবে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত বেড়ে ৩৯
.............................................................................................
ধর্মে বিশ্বাস ফিরেছে জুকারবার্গের
.............................................................................................
ভারতে ৫০০ ও হাজার টাকার নোট বাতিলে দিশাহারা মানুষ
.............................................................................................
৯ মাসে পশ্চিমবঙ্গের দার্জিলিং জেলায় প্রায় আড়াই হাজার নারী, শিশু ও কিশোরী নিঁখোজ
.............................................................................................
জানুয়ারি থেকেই কলকাতা-খুলনা ট্রেন
.............................................................................................
ভারতে শান্তিতে সমাপ্ত হলো দুর্গা উৎসব ও মহররম
.............................................................................................
রাম ঠাকুরের আশ্রমের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে চট্টগ্রামের কৈবল্য ধামের ভক্তরা
.............................................................................................
ভারতের আবাসিক স্কুলে ১২ ছাত্রীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
কলকাতায় ‘আহারে বাংলা উৎসব’ বাংলাদেশের খাবার খেতে উপচেপড়া ভিড়
.............................................................................................
ডোপ মেলডোনিয়াম সেবনের অভিযোগ মামলায় জিতেছেন শারাপোভা
.............................................................................................
উড়িষ্যার ঘটনা নিয়ে শর্টফিল্ম
.............................................................................................
১৬ দফা দাবিতে কলকাতায় কৃষক বিক্ষোভ ও সমাবেশ
.............................................................................................
মদমুক্ত পশ্চিমবঙ্গ গড়ার দাবি
.............................................................................................
চুল বিক্রি করে দু’মাসে মন্দিরের আয় ১৮ কোটি রুপি!
.............................................................................................
শান্তিনিকেতনে বাংলাদেশ ভবন
.............................................................................................
মৃতব্যক্তির সাথে এ কেমন অমানবিকতা কোমর ভেঙে বাঁশে ঝুলিয়ে নেওয়া হলো বৃদ্ধার লাশ
.............................................................................................
হায়-রে মানবতা! টাকা নেই, স্ত্রীর লাশ কাঁধে ১২ কিলোমিটার!
.............................................................................................
পশ্চিমবাংলায় বন্দী বাংলাদেশী শিশু-কিশোরদের ফেরত পাঠানোর দাবি
.............................................................................................
ফারাক্কা বাঁধ তুলে দেওয়ার প্রস্তাব বিহার মুখ্যমন্ত্রীর
.............................................................................................
ভারতে পাচারের শিকার ৪ কিশোর-কিশোরী বাংলাদেশে
.............................................................................................
যৌন হয়রানির অভিযোগ আনতে পারবে ছেলেরাও
.............................................................................................
মমতার সঙ্গে সৌজন্য সাখ্যাত বাংলাদেশের হাই কমিশনারের তিস্তার পানিবন্টন চুক্তি সম্পাদনের আশ্বাস
.............................................................................................
২৯৪ আসনের মধ্যে ২১১টিই তৃণমূলের পশ্চিমবঙ্গের মসনদে ফের মমতার শপথ
.............................................................................................
বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত বন্ধ করে দেব -আসামের হবু মুখ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীর ইলিশ নিয়ে শিল্পমন্ত্রী
.............................................................................................
ভারতের বরানগরে কোটি টাকার ফেনসিডিল উদ্ধার
.............................................................................................
মুরুগার দেবতার লেবু : দাম ৩৯ হাজার রুপি!
.............................................................................................
এক ঐতিহাসিক দৃশ্য! কলকাতায় এক মঞ্চে বুদ্ধ-রাহুল
.............................................................................................
ইকুয়েডরে মৃতের সংখ্যা ছাড়ালো ছয়শ, আবারও ভূমিকম্প
.............................................................................................
আহত জঙ্গিদের হত্যা করে অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ বিক্রি করছে আইএস
.............................................................................................
বাড়ি ছেড়ে গৃহহীন মানবেতর জীবনে ৪০ হাজার সিরীয়
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

Editor & Publisher: Rtn. Md Reaz Uddin
Mobile:+88-01711391530, Email: md.reaz09@yahoo.com Corporate Office
53,Modern mansion(8th floor),Motijheel C/A, Dhaka
E-mail:manabadhikarkhabar@gmail.com,manabadhikarkhabar34@yahoo.com,
Tel:+88-02-9585139
Mobile: +8801978882223 Fax: +88-02-9585140
    2015 @ All Right Reserved By manabadhikarkhabar.com    সম্পাদকীয়    Adviser List

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]