খেলাধুলা
   | বাংলার জন্য ক্লিক করুন

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   খেলাধুলা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বিশ্বকাপ ফুটবল রাশিয়া-২০১৮

খেলাধুলা
বিশ্বকাপ ফুটবল রাশিয়া-২০১৮
যে দেশে গরিবের গায়ে ঈেেদর পোশাক জোটেনা, সে দেশে উড়ে হাজারো ভিনদেশী পতাকা
॥ আছিয়া আক্তার স্বপ্না॥
বিশ্বকাপকে সামনে রেখে ফুটবল-প্রেমিদের মনে উঠে এসেছে আনন্দের জোয়ার । বিশ্বকাপ এলেই দেখা যায় বাংলাদেশের ফুটবল প্রেমিকদের তুফান । আকাশে উড়তে থাকে নানা রঙের ভিন্ন দেশের পতাকা ।
বাঙালিরা একটু বেশি সাংস্কৃতিক ও সাচ্ছন্দ্য প্রিয়। বিশ্বকাপ সামনে এলে দেখা যায় বিভিন্ন দলের সমর্থকরা পতাকা তৈরী করছেন তাদের নিজ জায়গা জমি বিক্রি করে। বাড়ির রঙ করছে প্রিয় সমর্থন দলের পতাকায় ।
কিন্তু কথা হচ্ছে এটা কতটা যুক্তি সংগত ?। যে দেশে গরিবরা সচ্ছলভাবে জীবন যাপন করতে অক্ষম, ঈদে নতুন পোশাক কেনাকাটা তাদের কাছে দুস্কর । সেই দেশের লোকেরা তাদের অর্থ ব্যয় করছে ভিন্ন দেশের পতাকা ক্রয়ে।
কিন্তু কেন ? বাংলাদেশ ছাড়া আমরা কি পারছি অন্য কোনো দেশে গিয়ে আমাদের দেশের পতাকা উওোলন করতে?
না, পারছিনা । তবে আমাদের কেন এতো জোয়ার ? মানব কল্যানে অসহায় ও হত দরীদ্রদের পাশে থেকে এমন কিছু করা উচিত যাতে বাংলাদেশে সচ্ছল ও উন্নত রাষ্ট্র হিসিবে পরিচিতি পায়, যাতে আমরা সম্মানের সহিত আমাদের পতাকা উত্তোলন করতে পারি।
রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ালেন ফুটবলার এমেকা
॥মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন॥
কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দেখতে গিয়েছেন বিশ্বকাপ ফুটবলে নাইজেরিয়ার প্রতিনিধিত্ব করা এমেকা ইউজিগো। ৭ মে সকালে ঢাকার হাতিরপুলে পিকামলি সেন্টার থেকে জাতীয় প্রেস ক্লাব হয়ে রওয়ানা দেন তিনি।ওয়ার্ল্ড ফুটবলারস্ ফোরামের আহ্বায়ক ড. আব্দুল ওয়াদুদের আমন্ত্রণে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পাশে দাঁড়াতে আমেরিকা থেকে বাংলাদেশে ছুটে এসেছেন এমেকা ইউজিগো।
বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের অর্থ সহায়তার জন্য তহবিল সংগ্রহে তিনি মাঠে নেমেছেন । তার এই উদ্যোগের সঙ্গে রয়েছে ওয়ার্ল্ড ফুটবলারস ফোরাম। বিপন্ন ও মানবতার পাশে দাঁড়াতে সবার সহমর্মিতা নিতে কলকাতা হয়ে সড়ক পথে দৌড়ে ঢাকায় আসেন এমেকা। ঢাকা থেকে দৌড়ে কুমিল্লা, ফেনী, চট্টগ্রাম হয়ে কক্সবাজারের কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ক্যাম্পে যাবেন তিনি।
দু’টি প্রদর্শনী ফুটবল ম্যাচ আয়োজনের কথাও জানান এমেকা। রোহিঙ্গাদের সাহায্য করতে ইতালির সাবেক ফুটবলার এবং নাইজেরিয়ার সাবেক ফুটবলারদের নিয়ে প্রতি ফুটবল ম্যাচ আয়োজনের কথাও জানান এই নাইজেরিয়ান। এছাড়াও ভারতের মাটিতে তিনটি প্রীতি ম্যাচ আয়োজনের মধ্য দিয়ে রোহিঙ্গাদের জন্য ফান্ড আয়োজনের কথা জানান এমেকা।

বিশ্বকাপ ফুটবল রাশিয়া-২০১৮
                                  

খেলাধুলা
বিশ্বকাপ ফুটবল রাশিয়া-২০১৮
যে দেশে গরিবের গায়ে ঈেেদর পোশাক জোটেনা, সে দেশে উড়ে হাজারো ভিনদেশী পতাকা
॥ আছিয়া আক্তার স্বপ্না॥
বিশ্বকাপকে সামনে রেখে ফুটবল-প্রেমিদের মনে উঠে এসেছে আনন্দের জোয়ার । বিশ্বকাপ এলেই দেখা যায় বাংলাদেশের ফুটবল প্রেমিকদের তুফান । আকাশে উড়তে থাকে নানা রঙের ভিন্ন দেশের পতাকা ।
বাঙালিরা একটু বেশি সাংস্কৃতিক ও সাচ্ছন্দ্য প্রিয়। বিশ্বকাপ সামনে এলে দেখা যায় বিভিন্ন দলের সমর্থকরা পতাকা তৈরী করছেন তাদের নিজ জায়গা জমি বিক্রি করে। বাড়ির রঙ করছে প্রিয় সমর্থন দলের পতাকায় ।
কিন্তু কথা হচ্ছে এটা কতটা যুক্তি সংগত ?। যে দেশে গরিবরা সচ্ছলভাবে জীবন যাপন করতে অক্ষম, ঈদে নতুন পোশাক কেনাকাটা তাদের কাছে দুস্কর । সেই দেশের লোকেরা তাদের অর্থ ব্যয় করছে ভিন্ন দেশের পতাকা ক্রয়ে।
কিন্তু কেন ? বাংলাদেশ ছাড়া আমরা কি পারছি অন্য কোনো দেশে গিয়ে আমাদের দেশের পতাকা উওোলন করতে?
না, পারছিনা । তবে আমাদের কেন এতো জোয়ার ? মানব কল্যানে অসহায় ও হত দরীদ্রদের পাশে থেকে এমন কিছু করা উচিত যাতে বাংলাদেশে সচ্ছল ও উন্নত রাষ্ট্র হিসিবে পরিচিতি পায়, যাতে আমরা সম্মানের সহিত আমাদের পতাকা উত্তোলন করতে পারি।
রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ালেন ফুটবলার এমেকা
॥মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন॥
কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দেখতে গিয়েছেন বিশ্বকাপ ফুটবলে নাইজেরিয়ার প্রতিনিধিত্ব করা এমেকা ইউজিগো। ৭ মে সকালে ঢাকার হাতিরপুলে পিকামলি সেন্টার থেকে জাতীয় প্রেস ক্লাব হয়ে রওয়ানা দেন তিনি।ওয়ার্ল্ড ফুটবলারস্ ফোরামের আহ্বায়ক ড. আব্দুল ওয়াদুদের আমন্ত্রণে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পাশে দাঁড়াতে আমেরিকা থেকে বাংলাদেশে ছুটে এসেছেন এমেকা ইউজিগো।
বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের অর্থ সহায়তার জন্য তহবিল সংগ্রহে তিনি মাঠে নেমেছেন । তার এই উদ্যোগের সঙ্গে রয়েছে ওয়ার্ল্ড ফুটবলারস ফোরাম। বিপন্ন ও মানবতার পাশে দাঁড়াতে সবার সহমর্মিতা নিতে কলকাতা হয়ে সড়ক পথে দৌড়ে ঢাকায় আসেন এমেকা। ঢাকা থেকে দৌড়ে কুমিল্লা, ফেনী, চট্টগ্রাম হয়ে কক্সবাজারের কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ক্যাম্পে যাবেন তিনি।
দু’টি প্রদর্শনী ফুটবল ম্যাচ আয়োজনের কথাও জানান এমেকা। রোহিঙ্গাদের সাহায্য করতে ইতালির সাবেক ফুটবলার এবং নাইজেরিয়ার সাবেক ফুটবলারদের নিয়ে প্রতি ফুটবল ম্যাচ আয়োজনের কথাও জানান এই নাইজেরিয়ান। এছাড়াও ভারতের মাটিতে তিনটি প্রীতি ম্যাচ আয়োজনের মধ্য দিয়ে রোহিঙ্গাদের জন্য ফান্ড আয়োজনের কথা জানান এমেকা।

কচিকাঁচার ফুটবল উৎসব
                                  

প্রাণহীন বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে হঠাৎ প্রাণের জোয়ার। শূন্য গ্যালারিতে লোকে  লোকারণ্য। দেশের আনাচে-কানাচে থেকে উঠে আসা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মিলনমেলায় মুখর এই স্টেডিয়াম। ফুটবলের প্রাণকেন্দ্রের সবুজের ময়দানে কচিকাঁচা ফুটবলারদের লড়াই। লক্ষাধিক বিদ্যালয় থেকে গতকাল শ্রেষ্ঠত্বের অর্জনের লড়াইয়ে নামে ে ছেলে ও মেয়েদের মিলিয়ে চার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল ঘিরে উৎসবমুখর পরিবেশ ছিল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। সেই উৎসবের মধ্যমণি ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কোমলমতি শিশুদের গলায় মেডেল পরিয়ে দিয়েছেন ক্রীড়াপ্রেমী প্রধানমন্ত্রী। প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বপ্নের কথা শুনিয়েছেন, `একদিন আমরা বিশ্বকাপে খেলব। `সেই স্বপ্ন   তো খুদে ফুটবলারদের ঘিরেই। ফুটবলের প্রতিভা অন্বেষণের জন্য গত আট বছর ধরে হয়ে আসছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এ টুর্নামেন্ট। ২০১০ সালে প্রথম শুরু হয়েছিল বঙ্গবন্ধু  গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্ট। পরের বছরই যুক্ত হয় বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্ট। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে টানা তৃতীয়বার শিরোপা গেছে কক্সবাজারে। জমজমাট ফাইনালে পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার ভুলবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে ১-২ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কক্সবাজার পেকুয়া উপজেলার পূর্ব উজানটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। বঙ্গমাতা ফুটবলে হয়েছে নতুন চ্যাম্পিয়ন। রোমাঞ্চর ফাইনালটির নিষ্পত্তি হয় ভাগ্যের টাইব্রেকারে। যেখানে ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার পাঁচরুখী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে পেনাল্টি শুট আউটে ৫-৪ গোলে হারিয়ে শিরোপা জয়ের উৎসবে মেতে ওঠে ঝিনাইদহের শৈলকূপা উপজেলার দোহারো সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মেয়েরা। চ্যাম্পিয়ন দল ট্রফি ও এক লাখ টাকা পুরস্কার পায়। রানার্সআপ ৭৫ হাজার ও তৃতীয় স্থান হওয়া স্কুল পেয়েছে ৫০ হাজার টাকা।
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে এবং বাফুফের সহযোগিতায় এবারের দুটি ফাইনালে ছিল নানান বিনোদন ও মনোজ্ঞ ডিসপ্লে। ছেলেদের এবং মেয়েদের ফাইনালের মাঝ বিরতিতে দেশের কৃষ্টি-কালচার ফুটিয়ে  তোলেন শিল্পীরা। আর প্রধানমন্ত্রী মাঠে আসেন  মেয়েদের ফাইনালের বিরতিতে। তিনি আসার পর তার সম্মানে মধ্য বিরতিতে বেজে ওঠে ` মোরা একটি ফুলকে বাঁচাবো বলে যুদ্ধ করি` গানটি। সেই গানের তালে ডিসপ্লেতে অংশ  নেয় একদল শিক্ষার্থী। আর বঙ্গমাতা ফুটবলের  রোমাঞ্চকর ফাইনালটি উপভোগ করেন প্রধানমন্ত্রী। ফাইনাল শেষে বিজয়ী ও বিজিতদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন শেখ হাসিনা। উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান, বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনসহ আরও অনেকে।
হোক না প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ফুটবল টুর্নামেন্ট। দুই চ্যাম্পিয়ন দলের উচ্চ্বাস দেখে অনেকেই বলবেন তারা অনেক বড় টুর্নামেন্টে জিতেছে। আসলে তো তাই। বঙ্গবন্ধু  গোল্ডকাপে ৬৪ হাজার ৬৮৮ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে সেরা কক্সবাজার পেকুয়া উপজেলার পূর্ব উজানটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর পুরো মাঠে চক্কর দেয় বালকরা; যা দেখার মতো ছিল। ৫০ মিনিটের লড়াইটি তাদের কাছে কোনো ব্যাপারই ছিল না। আর বঙ্গমাতায় ৬৪ হাজার ৬৮৩টি স্কুলকে থেকে সেরা হয় শৈলকূপা  দোহারো সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। উৎসবে আরও এক ধাপ এগিয়ে তারা। মাঠের এক  কোনায় এসে কোমর দুলিয়ে নাচতে থাকে, যা  দেখে গ্যালারিতে আসা খুদে সমর্থক থেকে সব বয়সীরা বিনোদন পেয়েছেন। বিপরীতে পরাজিত দুটি স্কুলের ছেলেমেয়েরা হতাশাগ্রস্ত। প্রধানমন্ত্রী যখন অংশগ্রহণ করা সব স্কুলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তখন আনন্দ-বেদনার দৃশ্যটা একাকার হয়ে যায়। সবাই আনন্দে হাততালি দিতে থাকেন।



দুদকের শুভেচ্ছা দূত সাকিব
                                  


দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) শুভেচ্ছা দূত হলেন বিশ্ববিখ্যাত ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। জনগণকে বিশেষ করে তরুণ প্রজন্মকে দুর্নীতি থেকে মুক্ত থাকার প্রচারাভিযানে তার ভূমিকা রাখার লক্ষ্যে এই নিয়োগ দিয়েছে দুদক। রাজধানীর সেগুনবাগিচায় কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে ক্রিকেটের তিন ফর্মেই বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব এবং দুদকের মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। যদিও পাঁচ মাস আগেই দুদক তাকে শুভেচ্ছা দূত নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেয়।
দুদকের পক্ষে মহাপরিচালক (প্রতিরোধ) মো. জাফর ইকবাল এবং সাকিব নিজেই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।
অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে সাকিব বলেন, ‘আমি দুদকের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পেয়ে অত্যন্ত গর্বিত। এতে আমার প্রচেষ্টায় যদি একজন মানুষও দুর্নীতি থেকে দূরে থাকে, তবে আমি নিজেকে সফল মনে করব।’ জাতিকে দুর্নীতি মুক্ত রাখা ক্ষেত্রে সম্মিলিত প্রচেষ্টার ওপর রুত্বারোপ করে তিনি বলেন, ‘দুর্নীতিমুক্ত দেশ গড়তে দুদকের সঙ্গে আমি আমার যাত্রা শুরু করলাম।’ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে দুদকের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘সাকিব আল হাসান তার বুদ্ধিমত্তা, সৃজনশীলতা ও কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার হয়েছেন, যা তাকে দেশের গর্বিত সন্তান এবং তরুণ প্রজন্মের কাছে বড় অনুপ্রেরণা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে।’  তরুণ প্রজন্মকে সকল শক্তির উৎস হিসেবে বর্ণনা করে তিনি প্রশ্ন রাখেন, ‘সাকিবের মতো যুব সমাজ যদি ক্ষতিকর কাজের বিরুদ্ধে দাঁড়ায়, তাহলে কার এত সাহস আছে যে দুর্নীতি করে?’ দেশের উন্নয়ন নিশ্চিত করা, মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত করা এবং দেশকে ক্ষুধা, দারিদ্র্য ও দুর্নীতিমুক্ত দেশ হিসেবে গড়ে  তোলার লক্ষ্যে দুর্নীতির রিুদ্ধে সর্বশক্তি ব্যবহার করার জন্য তার সহযোগিদের পরামর্শ দিয়েছে দুদক।


রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রতিবাদ সিদ্দিকুরের
                                  

॥ মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন ॥
রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর বর্বর নির্যাতনের প্রতিবাদে মিয়ানমার ওপেন গলফ থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন বাংলাদেশের গলফার সিদ্দিকুর রহমান। সিদ্দিকুর রহমান সাম্প্রতিক খেলে এসেছেন সিঙ্গাপুর ওপেনে। ভালো করতে পারেননি, ৪৯তম হয়েছেন প্রথম এশিয়ান ট্যুরে। এরপর তাঁর সূচিতে ছিল মিয়ানমারের পুন হাইয়াং গলফ ক্লাবে শুরু হওয়া এশিয়ান ট্যুরের ৭ লাখ ৫০ হাজার ইউএস ডলার প্রাইজমানির (৬  কোটি ২৫ লাখ টাকা) লিওপ্যালেস টোয়েন্টি ওয়ান মিয়ানমার ওপেন। কিন্তু মিয়ানমারের  রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর নিপীড়ন-নির্যাতনের প্রতিবাদে মিয়ানমারে না গিয়ে সিদ্দিকুর ঢাকায়  খেলছেন মাত্র ৬০ হাজার ইউএস ডলার (৫০ লাখ টাকা) প্রাইজমানির দ্বিতীয় স্তরের ত্রিপক্ষীয় (এডিটি, পিজিটিআই ও বিপিজিএ) টুর্নামেন্ট সিটি ব্যাংক-আমেরিকান এক্সপ্রেস ব্যাংক ঢাকা ওপেনে। ঢাকা ওপেনের প্রথম রাউন্ড শেষে ৪ শট কম  খেলে লিডারবোর্ডর দুইয়ে আছেন সিদ্দিকুর। পারের চেয়ে ৫ শট কম খেলে বাংলাদেশের শাখাওয়াত হোসেন সোহেল রয়েছেন শীর্ষে।  শেষ শটটিতে যখন বার্ডি করেন সিদ্দিকুর, হাততালি দিয়েছেন জনা বিশেক। দেশসেরা গলফার এতেও কম খুশি নন! এ বছরে যত বেশি পারেন এশিয়ান ট্যুরে  খেলবেন বলে ঠিক করেছেন সিদ্দিকুর। কিন্তু মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন আর গণহত্যা ছুঁয়ে গেছে তাঁকে। তাই গলফার সত্তার ওপরে উঠে একজন বাংলাদেশি হিসেবে এ ঘটনার প্রতিবাদ করলেন মিয়ানমারে গলফ  খেলতে না গিয়ে। কাল ঢাকা ওপেনের প্রথম রাউন্ড শেষে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে সিদ্দিকুর বলছিলেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুর জন্যই মিয়ানমারে খেলতে গেলাম না। ওরা  রোহিঙ্গাদের ওপর যা করছে একজন বাংলাদেশি হিসেবে ওই ঘটনার প্রতিবাদ করেই  সেখানে যাইনি।’ গত তিন বছর এশিয়ান ট্যুরের টুর্নামেন্ট হয়েছে ঢাকায়। এবার এশিয়ান ট্যুরের আয়োজন করতে পারেনি গলফ ফেডারেশন। সুযোগটা কাজে লাগিয়ে বিপিজিএ (বাংলাদেশ প্রফেশনাল গলফার্স অ্যাসোসিয়েশন) আয়োজন করেছে ত্রিপক্ষীয় এই টুর্নামেন্ট। এশিয়ান ট্যুরের বড় তারকাদের এখানে সমাগম হয়নি। তবে মিথুন  পেরেরা, শঙ্কর দাস, সুজান সিং, দিগি¦জয় সিং, শামীম খানদের মতো পিজিটিএর সেরা গলফাররা এসেছেন। আর সিদ্দিকুর এতে অংশ  নেওয়ায় টুর্নামেন্টের আকর্ষণ একটু বেড়েছে। হাতের তালুর মতো চেনা কোর্সে সিদ্দিকুর ৫টি বার্ডি ও ১টি বগি করেছেন। প্রথম রাউন্ড শেষে সিদ্দিকুর দুইয়ে থাকলেও অখুশি নন, ‘সিঙ্গাপুরের সঙ্গে তুলনা করলে এই কোর্স দশ গুণ কঠিন। আমি ওখানে যে স্কোর করেছি সেই অনুযায়ী এখানে হয়নি। কিন্তু যা করেছি ঠিক আছে।’

সাফজয়ী ফুটবলারদের সংবর্ধনা প্রধানমন্ত্রীর
                                  

॥ মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন ॥ বিজয়ের মাসে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবলে শিরোপা জয় করেছে বাংলাদেশের কিশোরীরা। চ্যাম্পিয়ন দলকে গণভবনে সংবর্ধনা দেন প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনা। এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি খাতের উন্নয়ন বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ও সাউথ এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী মো. সালাহউদ্দিন, যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম। এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের নির্বাহী কমিটির সদস্যরা। গত মাসে কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহি মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল  স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশ নারী দল।

আদালতের রায়ে গেইল নির্দোষ
                                  

॥ মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন ॥

জাতীয় দল ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ক্রিস গেইল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে রঙিন পোশাকের সিরিজ খেলে এসছেন বেশ কয়েকদিন হলো। বর্তমানে টেস্ট নিয়ে ব্যস্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজ, গেইল অনেক বছর ধরে এই ফরম্যাটে খেলছেন না। ফ্রেঞ্চাইজি ভিত্তিক নামকরা টি-টোয়েন্টি লিগগুলোও হচ্ছে না কোথাও। তারপরও ক্রিস গেইল নামটা খবরের শিরোনামে।

স্বাভাবিকভাবেই খবরের কারণটা মাঠের নয়, মাঠের বাইরের অনেকদিন যাবত ব্যাট হাতে আগের সেই ‘খুনে গেইলে’র দেখা নেই। সেই কারণেই হয়তো মাঠের বাইরের বিতর্কগুলো একসাথে ছেকে ধরেছে ক্যারিবিয়ান ব্যাটিং দানবকে! অস্ট্রেলিয়ার এক ক্রীড়া সাংবাদিককে লাইভে ডেটিংয়ের প্রস্তাব দিয়ে বড় বিড়ম্বনা পোহাতে হয়েছে গেইলকে। ‘ গেইলের চরিত্র এমনই’ বলে অনেকেই অতীত নিয়েও খুঁচিয়েছে সাবেক ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ককে।

সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই শুরু হয়েছিল নতুন এক বিতর্ক। অস্ট্রেলিয়ান গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়, থেরাপি নেওয়ার সময় এক নারী থেরাপিস্টকে তোয়ালে খুলে গোপনাঙ্গ দেখিয়েছিলেন গেইল। ঘটনা সত্য নয় দাবি করে এতে তার ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে এই মর্মে মামলা ঠুকে দিয়েছিলেন গেইল। অস্ট্রেলিয়ার ফেয়ারফ্যাক্স গ্রুে পর কয়েকটি পত্রিকার বিরুদ্ধে করা সেই মামলায় জয় পেয়েছেন গেইল।

নিউসাউথ ওয়েলসের আদালত গেইলের পক্ষে রায় দিয়েছেন। ঘটনার সত্যতা প্রমাণিত না হওয়াতে গেইলকে নির্দোষ হিসেবে রায় দিয়েছেন আদালত। আদালতের রায় শোনার পর গেইল বেজায় খুশি। ক্যারিবিয়ান দানব বলেছেন, ‘অবশেষে আমি খুবই আনন্দিত। এটা খুবই আবেগী একটি মুহূর্ত। আমি ভালো লোক। আমি দোষী নই।’

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পাশে সাকিব
                                  


॥ মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন ॥

রোহিঙ্গাদের সাহায্যে এগিয়ে আসতে আহ্বান জানিয়েছেন সাকিব। মিয়ানমার থেকে শরণার্থী হয়ে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর পাশে দাঁড়ালেন সাকিব আল হাসান।

জাতিসংঘ শিশু তহবিলের (ইউনিসেফ) শুভেচ্ছা দূত হিসেবে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে গিয়ে দেশের মানুষকে রোহিঙ্গাদের সাহায্যে এগিয়ে আসার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

বিসিবির কাছ থেকে ছুটি নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্ট খেলছেন না সাকিব। ছুটির এই সময়টায় মিয়ানমার-বাংলাদেশ সীমান্তে দুর্বিষহ জীবনযাপনরত রোহিঙ্গাদের দেখতে গেলেন তিনি।

বিভিন্ন ক্যাম্প ঘুরে দেখে চলমান সংকট উত্তরণের জন্য সবার সহায়তা চেয়েছেন তিনি। ইউনিসেফের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে পোস্ট হওয়া এক ভিডিও বার্তায় সাকিব আল হাসান বলেছেন, ‘আমি এখন এই রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আছি। ইউনিসেফের সঙ্গে এসেছি। পুরো জায়গাটা ঘুরে দেখেছি, দেখেছি তাদের দুর্বিষহ জীবনযাপনের অবস্থা। আমি চাই আপনারা সবাই সাহায্য করুন।’

রোহিঙ্গা শিশুদের সঙ্গে শিক্ষা কার্যক্রমেও অংশ নিয়েছেন সাকিব।

তিনি আরও বলেন, ‘এখানে নারী ও শিশুর সংখ্যা অনেক বেশি। এ জন্য আপনাদের সাহায্য প্রয়োজন। সাহায্য করতে ইউনিসেফের ওয়েবসাইটে গিয়ে ডোনেট বাটনে ক্লিক করুন ও সাহায্য করুন।’

উল্লেখ্য, গত ২৪ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে একটি পুলিশ পোস্টে সহিংসতার পর থেকেই রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান শুরু হয়। হত্যা, ধর্ষণ, বাড়িঘরে আগুনসহ নানা নির্যাতনের মুখে পালিয়ে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিচ্ছে হাজার হাজার রোহিঙ্গা। জাতিসংঘের তথ্যমতে, এ পর্যন্ত ৪ লাখ ৩০ হাজার মানুষ বাংলাদেশে এসেছে। তবে স্থানীয় সূত্রমতে এই সংখ্যা আরও বেশি।

শুরুতেই ফিরে গেছেন টাইগার ওপেনার তামিম ইকবাল
                                  

 

বিশেষ সংবাদদাতা

সিরিজ জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ২৮১ রান। তবে সেই লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হলো না বাংলাদেশের। ইনিংসের প্রথম ওভারেই কুলাসেকারাকে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরে গেছেন টাইগার ওপেনার তামিম ইকবাল। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ১ ওভার শেষ ১ উইকেট হারিয়ে ৪ রান।

বিস্তারিত আসছে...

জবান রাখলেন মাশরাফি
                                  

 

স্পোর্টস ডেস্ক

হোম, ইন আগেরদিন সাংবাদিকের সঙ্গে আলাপকালে টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বলেছিলেন লঙ্কানদের ২৮০ রানের মধ্যে বেঁধে রাখতে চান। সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে ঠিক ২৮০ তাই শেষ হল লঙ্কানদের ইনিংস। আর সিরিজ নিজেদের করে নিতে বাংলাদেশকে করতে হবে ২৮১ রান।

দ্বিতীয় ম্যাচটি বৃষ্টিতে পণ্ড হলেও ঐ ম্যাচে উপল থারাঙ্গার দল ৩১১ রানের বড় সড় স্কোর গড়ায় টাইগার সমর্থকদের মনে একটা অন্যরকম চিন্তারও উন্মেষ ঘটে। যত অনভিজ্ঞ ও অপরিপক্ক দল বলা হোক না কেন, থারাঙ্গা, কুশল মেন্ডিস চান্দিমাল, গুনারত্নে ও থিসারা পেরেরারা একদম দুর্বল ও কমজোরি নন। তাদেরও সামর্থ্য আছে ভালো কিছু করার। ৩০০ রানের কঠিন চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেবার।

তবে ভক্তদের জন্য আশাবাদী হবার মত খবর দেন অধিনায়ক মাশরাফি মুর্তজা। সিরিজ নিশ্চিতের ম্যাচে তার লক্ষ্য-পরিকল্পনার একটা বড় জায়গা জুড়ে আছে, কোন ভাবেই লঙ্কানদের ৩০০ করতে না দেয়া। আমাদের হয়তো ওখান থেকে আর ও ২০/২৫ রান কমানোর চেষ্টা করতে হবে। যেখানে তিনশ রান হয় সেখানে আমাদের চেষ্টা করতে হবে যেন ২৮০ রানের ভেতর রাখা যায়।

এদিকে তৃতীয় ম্যাচে ঠিক ২৮০ তেই শেষ হল স্বাগতিকদের ইনিংস। টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে অধিনায়ক উপুল থারাঙ্গা ও দানুশকা গুনাথিলাকারার দারুণ ব্যাটিং ৭৬ রানের জুটি গড়ে বড় স্কোরের ইঙ্গিত দিয়েছিল দলটি। ভয়ংকর হয়ে ওঠা এ জুটি ভাঙেন মেহেদী হাসান মিরাজ। মাহমুদউল্লাহর তালুবন্দি হয়ে সাজঘরে ফেরেন গুনাথিলাকারা। এরপর বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি থারাঙ্গাও। তাসকিনের বলে বোল্ড হন তিনি।


এরপর চান্দিমালকে নিয়ে দলের হাল ধরেন আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান কুশল মেন্ডিস। ৪৯ রানে জুটি গড়েছিলেন তারা। তবে চান্দিমালের নিজের ভুলে রানআউট হলে ম্যাচে ফিরে আসে বাংলাদেশ। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট তুলে নেয় টাইগাররা।

তবে ম্যাচের শেষ দিকে ভয় ধরিয়ে দিয়েছেন থিসারা পেরেরা। অষ্টম উইকেটে দিলরুয়ান পেরেরাকে নিয়ে ঝড়ো ব্যাটিং করতে থাকেন থিসারা। ৪৫ রানের দারুণ এক জুটি গড়ে তোলেন এ দুই ব্যাটসম্যান। আর এতেই ২৮০ রানের সংগ্রহ পায় স্বাগতিক শিবির।


মানবাধিকার খবর/এম আর

সিরিজ জয়ে টাইগারদের দরকার ২৮১
                                  

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক

থারাঙ্গা-গুনাথিলাকারা যখন ব্যাটিং করছিলেন তখন মনে মনে হয়তো আফসোসের জোয়ারে পুড়ছিলেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। হয়তো ভাবছিলেন টস জিতে কেন বোলিং নিলাম। তবে শুরুর আফসোস শেষ পর্যন্ত থাকেনি টাইগারদের। মাঝে দারুণ নিয়ন্ত্রিত বোলিং করে লক্ষ্যসীমার মধ্যেই আটকেছে লঙ্কানদের। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২৮০ রান করে থেমেছে থারাঙ্গার দল।

শনিবার সকালে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে শ্রীলঙ্কা। অধিনায়ক উপুল থারাঙ্গা ও দানুশকা গুনাথিলাকারার দারুণ ব্যাটিং ৭৬ রানের জুটি গড়ে বড় স্কোরের ইঙ্গিত দেয় দলটি। ভয়ংকর হয়ে ওঠা এ জুটি ভাঙেন মেহেদী হাসান মিরাজ। মাহমুদউল্লাহর তালুবন্দি হয়ে সাজঘরে ফেরেন গুনাথিলাকারা। এরপর বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি থারাঙ্গাও। তাসকিনের বলে বোল্ড হন তিনি।

এরপর চান্দিমালকে নিয়ে দলের হাল ধরেন আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান কুশল মেন্ডিস। ৪৯ রানে জুটি গড়েছিলেন তারা। তবে চান্দিমালের নিজের ভুলে রানআউট হলে ম্যাচে ফিরে আসে বাংলাদেশ। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট তুলে নেয় টাইগাররা।

তবে ম্যাচের শেষ দিকে ভয় ধরিয়ে দিয়েছেন থিসারা পেরেরা। অষ্টম উইকেটে দিলরুয়ান পেরেরাকে নিয়ে ঝড়ো ব্যাটিং করতে থাকেন থিসারা। ৪৫ রানের দারুণ এক জুটি গড়ে তোলেন এ দুই ব্যাটসম্যান।


দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৪ রানের ইনিংস খেলেন কুশল মেন্ডিস। ৭৬ বলে এ রান করেন এই তরুণ। এছাড়া শেষ দিকে ঝড় তুলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন থিসারা পেরেরাও। ৪০ বলে ৫২ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। ৪টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে নিজের ইনিংস সাজান তিনি। এছাড়া থারাঙ্গা ৩৫ রান এবং গুনাথিলাকা ও গুনারাত্নে ৩৪ রান করে করেন।

বাংলাদেশের পক্ষে ৬৫ রানের বিনিময়ে ৩টি উইকেট পান মাশরাফি। ৫৫ রানের বিনিময়ে ৫৫ রানের ২টি উইকেট নেন মোস্তাফিজুর রহমান। এছাড়া মিরাজ ও তাসকিন ১টি করে উইকেট নেন।

মানবাধিকার খবর/এম আর

টাইগারদের টার্গেট ৪৫৯
                                  

 

স্পোর্টস ডেস্ক | মোশতাক রাইহান

হায়দ্রাবাদ টেস্টে বাংলাদেশকে ৪৫৯ রানের বিশাল টার্গেট দিয়েছে স্বাগতিক ভারত। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমেছেন টাইগারদের ওপেনার তামিম ইকবাল এবং সৌম্য সরকার।

এর আগে বাংলাদেশকে ৩৮৮ রানে অলআউট করে ২৯৯ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে ভারত। ৪ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান তুলে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে ভারত। নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেট হারিয়ে ৬৮৭ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করেছিল টিম ইন্ডিয়া।

চতুর্থ দিন প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান বিজয়ের (৭) পর রাহুলকেও (৫) মুশফিকুর রহিমের গ্লাভসবন্দি করেন তাসকিন আহমেদ। ২৩ রানে দুই উইকেট হারায় টিম ইন্ডিয়া। দুই ওপেনার মুরালি বিজয় ও লোকেশ রাহুল দ্রুত বিদায় নিলে ৬৭ রানের জুটিতে রানের চাকা সচল রাখেন বিরাট কোহলি ও চেতশ্বর পুজারা। খুব বেশিক্ষণ অবশ্য টিকতে পারেননি প্রথম ইনিংসের ডাবল সেঞ্চুরিয়ান। কোহলিকে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ক্যাচ বানিয়ে ব্রেকথ্রু এনে দেন সাকিব আল হাসান।

ইনিংসের ২৭তম ওভারে রাহানেকে বোল্ড করেন সাকিব। বিদায়ের আগে রাহানের ব্যাট থেকে আসে ২৮ রান। পুজারার সঙ্গে ৩৮ রানের জুটি গড়েন দুটি চার আর একটি ছক্কা হাঁকানো রাহানে। দ্বিতীয় সেশনের শেষ বলটি খেলে ইনিংস ঘোষণা করে ভারত। পুজারা ৫৪ ও রবীন্দ্র জাদেজা ১৬ রানে অপরাজিত থাকেন।

এর আগে স্বাগতিকদের রান পাহাড়ের জবাবে সবকটি উইকেট হারিয়ে ৩৮৮ রানে শেষ হয় টাইগারদের প্রথম ইনিংস। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে সেঞ্চুরিয়ান মুশফিকুর রহিমের উইকেটের মধ্য দিয়ে ২৯৯ রানের বড় লিড পায় স্বাগতিকরা।

টেস্ট ক্যারিয়ারের পঞ্চম সেঞ্চুরি করার পথে ২৩৬টি বল মোকাবেলা করেন মুশফিক। তাতে ছিল ১৩টি চার ও ১টি ছক্কার মার। ১২৮তম ওভারে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বলে আউট হওয়ার আগে ২৬২ বলে ১২৭ রানের অসাধারণ দায়িত্বশীল ইনিংস উপহার দেন ‘মি. ডিপেন্ডেবল’।

মুশফিককে ফিরিয়ে রেকর্ডবুকে জায়গা করে নেন টেস্টের নাম্বার ওয়ান বোলার অশ্বিন। ৪৫তম টেস্টে এসে দ্রুততম ২৫০ উইকেটের কীর্তি গড়েন ভারতীয় স্পিন সেনসেশন। ছাড়িয়ে যান অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি পেসার ডেনিস লিলিকে (৪৮ ম্যাচ)।

মুশফিক-মিরাজের অবিচ্ছিন্ন ৮৭ রানের জুটিতে ছয় উইকেটে ৩২২ রান নিয়ে ভালোভাবেই তৃতীয় দিন শেষ করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু, শুক্রবার (১২ ফেব্রুয়ারি) চতুর্থ দিনের প্রথম ওভারেই আউট হয়ে যান মিরাজ (৫১)। ভুবনেশ্বর কুমারের বলে বোল্ড হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন।

চাপের মুখে মুশফিকের সঙ্গে দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে নিজের সামর্থ্যের জানান দেন ১৯ বছরের তরুণ মেহেদি হাসান। রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট ফিফটি উদযাপন করেন এ উঠতি অলরাউন্ডার।

মিরাজের বিদায়ে স্পিনার তাইজুল ইসলামকে স্ট্রাইক দিয়ে ভরসা রাখেন মুশফিক। উমেশ যাদবের বাউন্সারে ঋদ্ধিমান সাহার গ্লাভসে আটকা পড়েন। তাইজুলের ইনিংস শেষ হয় ৩৮ বলে ১০ রান করে। রবিন্দ্র জাদেজার বলে স্লিপে থাকা অজিঙ্কা রাহানেকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তাসকিন। ৩৫ বলে এক চারে ৮ রান করেন তিনি।

বিরাট কোহলির ডাবল সেঞ্চুরি (২০৪), মুরালি বিজয় (১০৮) ও ঋদ্ধিমান সাহার (১০৬ অপ.) জোড়া শতকে রানের পাহাড় গড়ে স্বাগতিকরা। চেতশ্বর পুজারা ৮৩ ও অজিঙ্কা রাহানের ব্যাট থেকে আসে ৮২। সাহার সঙ্গে ৬০ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন রবিন্দ্র জাদেজা। ছয় উইকেটে ৬৮৭ রান তোলার পর ইনিংস ঘোষণা করে টিম ইন্ডিয়া।

জবাবে ১০৯ রানে চার উইকেট হারিয়ে চাপের মুখেই পড়েছিল সফরকারীরা। সাকিব-মুশফিকের ১০৭ রানের পার্টনারশিপে ম্যাচে ফেরে টাইগাররা। সেঞ্চুরি থেকে ১৮ রান দূরে থাকতে অশ্বিনের বলে উমেশ যাদবের হাতে ধরা পড়েন সাকিব আল হাসান। এর আগে মুমিনুল হকের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে অযথাই রানআউটের শিকার হন ওপেনার তামিম ইকবাল (২৪)।

মুমিনুলও বেশিদূর এগোতে পারেননি। মাত্র ১২ রান করেই যাদবের বলে এলবিডব্লু হয়ে সাজঘরে ফেরেন। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে (২৮) এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলেন ইশান্ত শর্মা। রবিন্দ্র জাদেজাকে সুইপ করতে গিয়ে ইনিংসের তৃতীয় এলবিডব্লু আউটে নাম লেখান সাব্বির রহমান (১৬)।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মুমিনুল হক, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), সাব্বির রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ ও কামরুল ইসলাম রাব্বি।

ভারত একাদশ: মুরালি বিজয়, লোকেশ রাহুল, চেতশ্বর পুজারা, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), আজিঙ্কে রাহানে, উমেশ যাদব, ঋদ্ধিমান সাহা (উইকেটরক্ষক), রবিচন্দ্রন অশ্বিন, রবিন্দ্র জাদেজা, ইশান্ত শর্মা ও ভুবনেশ্বর কুমার।

প্রথম দিনের ৪০ ওভারে দেড়’শ করলো বাংলাদেশ
                                  


স্পোর্টস ডেস্ক |

ওয়েলিংটনে নিউজিল্যান্ড বনাম বাংলাদেশের মধ্যকার প্রথম টেস্টের প্রথম দিনে বৃষ্টি ও আলোর স্বল্পতার কারণে খেলা হলো মাত্র ৪০.২ ওভার। যেখানে তামিম ইকবাল ও মুমিনুল হকের হাফসেঞ্চুরিতে ১৫৪ রানে দিন শেষ করেছে বাংলাদেশ। মুমিনুল ৬৪ রানে অপরাজিত আছেন।

এদিন ম্যাচের ২৯তম ওভারে বৃষ্টি হামলা দেয়। খেলা আবার মাঠে গড়ালেও ৪১তম ওভারে আলো স্বল্পতা দেখা দেয়। পরে মাঠের আম্পায়ার মারাইস এরাসমাস ও পল রেইফেল প্রথম দিনের খেলা সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

এর আগে দিনের শুরুতে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ব্যাট হাতে তামিম ইকবাল আর ইমরুল কায়েস ক্রিজে আসেন। তবে বাংলাদেশ ইনিংসের প্রথম সেশনে টিম সাউদির প্রথম স্পেলের দ্বিতীয় ওভারেই প্রমাণ হয়ে যায় পিচ বিশ্লেষকদের বিশ্লেষণ। দুর্দান্ত বাউন্সে ক্যাচ ওঠাতে বাধ্য করেন ইমরুলকে। হয়তো বুঝিয়ে দিতে চাইলেন, ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভে এই টেস্টটা পেসারদেরই হবে।

এদিকে তামিম শুরুটা ভালই করেছিলেন। তামিমের ১৫ রানের সুবাদে তিন ওভার শেষে দলীয় সংগ্রহ তখন ১৬ রান। চতুর্থ ওভারে স্ট্রাইকে আসেন ইমরুল। টিজি সাউদি ওভারের চতুর্থ বলটি শর্ট লেন্থে দুর্দান্ত এক বাউন্স ছোঁড়েন। লেগ স্ট্যাম্পের ওপর বুক উচ্চতায় ওঠা বলটি হুক করতে যেয়ে নিয়ন্ত্রণ হারান ইমরুল। ব্যাটের মাঝখানে খোঁচা খেয়ে বাতাসে ভেসে ওঠে বল। সহজ ক্যাচ লুফে নেন কাছেই দাঁড়িয়ে থাকা বোল্ট। সাত বলে এক রানের সংগ্রহ নিয়ে মাঠ ছাড়েন ইমরুল।

এদিন ইমরুল দ্রুত আউট হয়ে গেলেও আরেক ওপেনার তামিম ছিলেন বেশ আগ্রাসী। ট্রেন্ট বোল্টের বলে এলবিডব্লিউ হওয়ার আগে তুলে নেন ক্যারিয়ারের ২০তম হাফসেঞ্চুরি। শেষে ১১টি চারের সাহায্যে ৫০ বলে ৫৬ রান করেন তিনি।

দলীয় ৬০ রানে দুই উইকেট হারানোর পর টাইগারদের ইনিংসে মেরামতের কাজে লেগে পড়েন মুমিনুল ও রিয়াদ। দু’জনে বেশ সাবলীল ব্যাটিংয়ে মোকাবেলা করতে থাকেন কিউই বোলারদের। তবে বৃষ্টি বাধা এসে থামিয়ে দেয় ইনিংসের গতি।

বৃষ্টি বাধার পর ব্যাটিংয়ে নেমে হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন ব্যাটসম্যান ‍মুমিনুল হক। তৃতীয় উইকেট জুটিতে মুমিনুল ও মাহমুদউল্লা রিয়াদ মিলে ৮৫ রানের কার্যকরী এক জুটি গড়েন। এরই মাঝে প্রিয় প্রতিপক্ষ কিউইদের বিপক্ষে ক্যারিয়ারের ১১তম হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন মুমিনুল। তবে ব্যক্তিগত ২৬ রানে নেইল ওয়াগনারের বলে উইকেটরক্ষক বিজে ওয়াটলিংয়ে ক্যাচে পরিণত হয়ে ফেরেন রিয়াদ।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মমিনুল হক, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, সাব্বির রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, শুভাশীষ রায় ও কামরুল ইসলাম রাব্বি।

নিউজিল্যান্ড একাদশ: জিত রাভাল, টম লাথাম, কেন উইলিয়ামসন, রস টেইলর, হেনরি নিকোলস, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, বিজে ওয়াটলিং, মিচেল স্ট্যান্টনার, টিম সাউদি, নেইল ওয়াগনার ও ট্রেন্ট বোল্ট।

টাইগারদের হারিয়ে ৬ উইকেটের জয় তুলে নেয় কিউইরা
                                  

 

স্পোর্টস ডেস্ক | মানাধিকার খবর |

টাইগারদের দেওয়া ১৪২ রানের টার্গেটে ৪ উইকেট হারিয়ে টপকে যায় স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ১২ বল বাকি থাকতে ৬ উইকেটের জয় তুলে নেয় কিউইরা। ফলে, ১-০তে সিরিজে এগিয়ে রইলো কেন উইলিয়ামসনের দলটি।



মঙ্গলবার (০৩ জানুয়ারি) নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্কে টি-টোয়েন্টিতে নিজের ৫০তম ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ব্যাটে ভর করে শুরুর বিপর্যয় কাটিয়ে লড়াকু স্কোর পায় বাংলাদেশ। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে নিউজিল্যান্ডকে ১৪২ রানের লক্ষ্য বেঁধে দেয় টাইগাররা।

ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় টাইগাররা। দ্বিতীয় ওভারে ম্যাট হেনরির বলে লুক রঞ্চির গ্লাভসে আটকা পড়েন ইমরুল কায়েস (০)। ওপেনিংয়ে নির্ভরতার প্রতীক তামিম ইকবালও বেশিদূর যেতে পারেননি। তাকে টম ব্রুসের তালুবন্দি করে টি-২০ অভিষেকেই উইকেটের স্বাদ পান বাঁহাতি পেসার বেন হুইলার। পাওয়ার প্লে’র শেষ ওভারে জোড়া আঘাত হানেন এ ফরমেটে আরেক অভিষিক্ত পেসার লুকি ফার্গুসন। সাব্বির রহমানের (১৬) পর প্রথম বলেই সাজঘরে ফেরেন সৌম্য সরকার (০)। ব্যাটিং অর্ডারে নিচে নামিয়ে আনা হলেও টানা রান খরায় ভোগা সৌম্য ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বের হতে পারেননি। দলীয় ৩০ রানে চার উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে সফরকারীরা।

পঞ্চম উইকেটে ৩৭ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক চাপ সামাল দেন সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ১১তম ওভারে সাকিবকে (১৪) মিচেল স্যান্টনারের ক্যাচ বানিয়ে কিউইদের স্বস্তি এনে দেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। এক প্রান্ত আগলে রাখেন মাহমুদউল্লাহ। মোসাদ্দেক হোসেনকে নিয়ে আরো ৩২ রান যোগ করেন। ১৬তম ওভারে মোসাদ্দেককে (২০) কোরি অ্যান্ডারসনের ক্যাচে পরিণত করে উইকেটের খাতায় নাম লেখান স্পিনার মিচেল স্যান্টনার। মাত্র ১ রানে হুইলারের বলে কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের হাতে ধরা পড়েন মাশরাফি।

ইনিংসের শেষ ওভারে বিদায় নেন ইনিংস সর্বোচ্চ ৫২ রান করা মাহমুদুল্লাহ। ফার্গুসনের বলে বোল্ড হওয়ার আগে ৪৭ বলে তিনটি চার আর তিনটি ছক্কায় মাহমুদুল্লাহ তার ইনিংসটি সাজান। নুরুল হাসান ৭ রানে আর রুবেল হোসেন ২ রানে অপরাজিত থাকেন।

সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট দখল করেন লুকি ফার্গুসন। বেন হুইলার দু’টি আর একটি করে নেন ম্যাট হেনরি, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ও মিচেল স্যান্টনার।

কিউইদের হয়ে ব্যাটিং উদ্বোধন করতে নামেন কেন উইলিয়ামসন এবং নেইল ব্রুম। টাইগারদের হয়ে বোলিং শুরু করেন সাকিব আল হাসান। প্রথম ওভার থেকে স্বাগতিক ওপেনাররা তুলে নেন ৮ রান। দ্বিতীয় ওভার মাশরাফি করে বল হাতে তুলে দেন রুবেলকে। নিজের প্রথম আর ইনিংসের তৃতীয় ওভারে রুবেল ফেরান নেইল ব্রুমকে। বাউন্ডারি সীমানায় সাকিব দুর্দান্ত ক্যাচ নিয়ে ফেরান ৬ রান করা ব্রুমকে। দলীয় ২২ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারায় কিউইরা।

ইনিংসের চতুর্থ ওভারে বোলিংয়ে আসেন মোস্তাফিজ। নিজের দ্বিতীয় বলেই মোস্তাফিজ ফিরিয়ে দেন কলিন মুনরোকে। উইকেটের পেছনে নুরুল হাসান সোহানের গ্লাভসবন্দি হওয়ার আগে কোনো রানই করতে পারেননি মুনরো। মোস্তাফিজ তার প্রথম ওভারে ২ রানের বিনিময়ে তুলে নেন একটি উইকেট।

পাওয়ার প্লে’র পর ইনিংসের সপ্তম ওভারে বোলিংয়ে আসেন সাকিব। ফিরিয়ে দেন কোরি অ্যান্ডারসনকে। ওভারের তৃতীয় বলে সাকিবকে তুলে মারতে গিয়ে তামিমের হাতে ধরা পড়েন অ্যান্ডারসন। সাজঘরে ফেরার আগে তিনি ১৪ বলে করেন ১৩ রান। ইনিংসের ১১তম ওভারে মাশরাফির বলে রান নিতে গিয়ে রানআউট হন টম ব্রুস। ব্যক্তিগত ৭ রানে ফেরেন তিনি।

দলীয় ৬২ রানে চার উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে নিউজিল্যান্ড। সেখান থেকে দলের হাল ধরেন কেন উইলিয়ামসন এবং কলিন ডি গ্রান্ডহোম। এই উইকেট জুটিতে আসে অবিচ্ছিন্ন ৮১ রান। শেষ পর্যন্ত ব্যাট চালিয়ে উইলিয়ামসন ৭৩ রানে অপরাজিত থাকেন। গ্রান্ডহোম করেন অপরাজিত ৪১ রান। উইলিয়ামসন ৫৫ বলে ৫টি চার আর ২টি ছক্কায় তার ইনিংস সাজান। এদিকে, গ্রান্ডহোমের ২২ বলের ইনিংসে ছিল ৩টি চার আর ৩টি ছক্কার মার।

টাইগারদের হয়ে একটি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজ, সাকিব এবং রুবেল হোসেন। আগামী ০৬ জানুয়ারি বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টায় দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামবে দুই দল।

ওয়ানডেতে সুযোগ না পেলেও একাদশে ফেরেন পেসার রুবেল হোসেন। রান খরায় ভোগা সৌম্য সরকারের ওপরও আস্থা রাখে টিম ম্যানেজমেন্ট। ইনজুরির কারণে মুশফিকুর রহিম দলের বাইরে। প্রথম ওয়ানডেতে বাম পায়ের হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি তার জন্য কাল হয়ে দাঁড়ায়। অন্যদিকে, তৃতীয় ওয়ানডেতে হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি আক্রান্ত হয়ে টি-২০ সিরিজে ছিটকে গেছেন মার্টিন গাপটিল। স্কোয়াডে তার জায়গায় সুযোগ পেয়েছেন ওডিআই সিরিজের সর্বোচ্চ রানস্কোরার ৩৩ বছর বয়সী নেইল ব্রুম। এ ম্যাচ দিয়ে কিউইদের হয়ে তিনজনের টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হয়েছে। এরা হলেন টম ব্রুস, দুই পেসার লুকি ফার্গুসন ও বেন হুইলার।

প্রসঙ্গত, ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে র্যাংকিংয়ের এক নম্বর দল নিউজিল্যান্ড। পরিসংখ্যানে ব্ল্যাক ক্যাপদের সাফল্য শতভাগ। এখন পর্যন্ত পাঁচবারের মুখোমুখি সাক্ষাতে একবারও জয়ের দেখা পায়নি টাইগাররা। এর আগে সবশেষ গত বছর ভারতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে মোস্তাফিজ নৈপুণ্যে (একাই ৫ উইকেট নেন) কিউইদের ১৪৫ রানে আটকে রেখেও ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় বড় ব্যবধানে হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, সাব্বির রহমান, সাকিব অাল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সৌম্য সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন, নুরুল হাসান (উইকেটরক্ষক), মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন।

নিউজিল্যান্ড একাদশ: কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), নেইল ব্রুম, কলিন মানরো, কোরি অ্যান্ডারসন, টস ব্রুস, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, লুক রঞ্চি (উইকেটরক্ষক), মিচেল স্যান্টনার, বেন হুইলার, ম্যাট হেনরি, লুকি ফার্গুসন।

সম্মাননা পেলেন মার্কেন্টাইল ব্যাংকের এমডি
                                  

 

 

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন:

 

ব্যাংকিং খাতে অবদানের জন্য বিশেষ সম্মাননা পেয়েছেন বেসরকারি খাতের মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মসিহুর রহমান। মীরসরাই কণ্ঠের ১৬ বছর পূর্তি উপলক্ষে সম্প্রতি রাজধানীর বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রে আয়োজিত গুণীজন সংবর্ধনা-২০১৬ ও কৃতী শিক্ষার্থী বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে তাকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়।

কাজী মসিহুরের হাতে সম্মাননা তুলে দেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের কমিশনার প্রফেসর মো. হেলাল উদ্দিন নিজামী। এ সময় ব্যাংকের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. কামরুল ইসলাম চৌধুরী, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মতিউল হাসানসহ ঊর্ধ্বতন নির্বাহীরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের মহাসচিব এমদাদ হোসেন মতিন, আনসার ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. জালাল উদ্দীন, সামিট গ্রুপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইঞ্জিনিয়ার এস এম নূরউদ্দিন, প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. এএনএম মেসকাত উদ্দীন, পুলিশের ডিআইজি (ঢাকা) মো. মেজবাহুন্নবী, সাহিত্যিক কাইয়ুম নিজামী ও মীরসরাই কণ্ঠের সম্পাদক মো. শামসুদ্দীন শামস্

 

সৌদি আরবে শাখা খোলার অনুমোদন পেয়েছে এসআইবিএল ও স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক
                                  

 

 

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন:

 

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড (এসআইবিএল) ও স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংককে সৌদি আরবে শাখা খোলার অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে ব্যাংক দুটির কাছে এ সংক্রান্ত চিঠি দেয়া হয়েছে। এই চিঠি ব্যাংক দুটির কাছে এসে পৌঁছেছে বলে নিশ্চিত করেছে উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ।

সূত্র জানিয়েছে, চলতি বছরের ৩ থেকে ৭ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৫ দিনের সফরে সৌদি আরবে যান। ওই সময় বাংলাদেশের শ্রমবাজার সম্প্রসারণ, দ্বি-পাক্ষিক ব্যবসা-বাণিজ্যসহ বেশকিছু চুক্তি হয়। ওই চুক্তির অংশ হিসেবে বাংলাদেশি ব্যাংককে সৌদি আরবে শাখা খোলার অনুমতি দেয়া হয়েছে। ব্যাংক দুটি জেদ্দা ও মক্কায় শাখা খুলতে পারবে।

সৌদি আরবে ১৯৭৬ সালে বাংলাদেশের শ্রম বাজারের যাত্রা শুরু হয়। বর্তমানে দেশটিতে প্রায় ২৬ লাখ বাংলাদেশি কর্মরত রয়েছেন। সম্প্রতি বাংলাদেশ থেকে আরও ৫ লাখ কর্মী নেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে দেশটির সরকার। এই কর্মীদের বেশিরভাগ রয়েছে জেদ্দা ও মক্কা শহরে।

সূত্র দুটি জানিয়েছে, এই বাজার ধরতেই সেখানে শাখা খোলার আগ্রহ প্রকাশ করে তারা। এর মাধ্যমে প্রবাসীরা ব্যাংকিং লেনদেন ও রেমিটেন্স পাঠানোর কার্যক্রমে আরও একধাপ এগিয়ে যাবে।

এ বিষয়ে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মামুন‐উর‐রশিদ বলেন, সৌদি আরবে শাখা খোলার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে অনুমোদন পেয়েছি। সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি পেয়েছেন বলেও জানান তিনি। চিঠি পাওয়ার বিষয়ে এসআইবিএলের চেয়ারম্যান মেজর (অব.) ডা. মো. রেজাউল হক বলেন, দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিদেশে ব্যাংকিং সেবা দিতে চায় সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড। এ জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে আমরা আবেদন করেছিলাম। বাংলাদেশ ব্যাংক সেই অনুমোদন দিয়েছে।

ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের ব্রাইডাল মেলা
                                  

 

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদক:

 

গত ২৬ আগষ্ট ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড আয়োজিত তিন দিন ব্যাপি হোটেল ওয়েষ্টিনে ও নারায়ণগঞ্জ ক্লাবে ব্রাইডাল মেলা শুরু হয়। ঐ দিন সকালে হোটেল ওয়েষ্টিনে ফিতা কেটে ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড ব্রাইডাল মেলার উদ্বোধন করেন এফবিসিসিআই এর পরিচালক ও ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা। মেলা চলে ২৮ তারিখ পর্যন্ত । প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে রাত ৯ পর্যন্ত ক্রেতা ও দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত ছিল।

মেলা উপলক্ষে হোটেল ওয়েষ্টিনে অফার হিসেবে ছিল ৩০% ডিসকাউন্ট ডায়মন্ট জুয়েলারীতে। গোল্ডে সুলভ মুল্যে মেকিং চার্জ ফ্রি। প্রতি কেনাকাটায় ডায়মন্ডের লকেট ফ্রি এবং ঝপৎধঃপয ঈধৎফ  ফ্রি।

নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের মেলায় ছিল ৩০% ডিসকাউন্ট ডায়মন্ট জুয়েলারীতে। গোল্ডে সুলভ মুল্যে মেকিং চার্জ ফ্রি। ১ লাখের উপর কেনাকাটায় ছিল  ডায়মন্ডের লকেট ফ্রি এবং ১০০০০/- টাকার উপরে কেনাকাটায় ঝপৎধঃপয ঈধৎফ  ফ্রি।

মেলার  উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড লিমিটেড এর পরিচালক সবিতা আগরওয়ালা, ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের ক্রেতাসাধারণ, গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও ব্যবসায়ীরা এবং প্রিন্ট-ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার কর্মীসহ ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড লিমিটেড এর উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।


   Page 1 of 2
     খেলাধুলা
বিশ্বকাপ ফুটবল রাশিয়া-২০১৮
.............................................................................................
কচিকাঁচার ফুটবল উৎসব
.............................................................................................
দুদকের শুভেচ্ছা দূত সাকিব
.............................................................................................
রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রতিবাদ সিদ্দিকুরের
.............................................................................................
সাফজয়ী ফুটবলারদের সংবর্ধনা প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
আদালতের রায়ে গেইল নির্দোষ
.............................................................................................
রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পাশে সাকিব
.............................................................................................
শুরুতেই ফিরে গেছেন টাইগার ওপেনার তামিম ইকবাল
.............................................................................................
জবান রাখলেন মাশরাফি
.............................................................................................
সিরিজ জয়ে টাইগারদের দরকার ২৮১
.............................................................................................
টাইগারদের টার্গেট ৪৫৯
.............................................................................................
প্রথম দিনের ৪০ ওভারে দেড়’শ করলো বাংলাদেশ
.............................................................................................
টাইগারদের হারিয়ে ৬ উইকেটের জয় তুলে নেয় কিউইরা
.............................................................................................
সম্মাননা পেলেন মার্কেন্টাইল ব্যাংকের এমডি
.............................................................................................
সৌদি আরবে শাখা খোলার অনুমোদন পেয়েছে এসআইবিএল ও স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক
.............................................................................................
ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের ব্রাইডাল মেলা
.............................................................................................
২০ হাজার গ্রামের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে ইসলামী ব্যাংক
.............................................................................................
জাতীয় সংসদে ওঠছে ২ জুন আসছে ৩ লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকার বাজেট
.............................................................................................
দাম বাড়ল ছোলা-চিনি-রসুনের রমযানকে ঘিরে তৎপর অসাধূ ব্যবসায়ীরা
.............................................................................................
প্রাইম ব্যাংকের বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
ইসলামী ব্যাংকের সভা অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
দুদিনের ডেনিম এক্সপো শুরু বাংলাদেশের ডেনিম কাপড় ও পোশাকে বৈচিত্র্য বাড়ছে
.............................................................................................
ইসলামী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
রানার মোটরস লিমিটেডের ডিলার সম্মেলন অনুষ্ঠিত
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

Editor & Publisher: Rtn. Md Reaz Uddin
Mobile:+88-01711391530, Email: md.reaz09@yahoo.com Corporate Office
53,Modern mansion(8th floor),Motijheel C/A, Dhaka
E-mail:manabadhikarkhabar@gmail.com,manabadhikarkhabar34@yahoo.com,
Tel:+88-02-9585139
Mobile: +8801978882223 Fax: +88-02-9585140
    2015 @ All Right Reserved By manabadhikarkhabar.com    সম্পাদকীয়    Adviser List

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]