| বাংলার জন্য ক্লিক করুন

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   সারাদেশ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
তোলারাম কলেজের নবীণ বরণ উৎসবে : টর্চার সেল প্রসঙ্গে শামীম ওসমান

মো: রবিউল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ: তোলারাম কলেজে নবীণ বরণ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে কলেজ প্রাঙ্গণে অনন্দঘণ পরিবেশে এ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান।
সরকারি তোলারাম কলেজে নবীণ বরণ উৎসব অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, আমার কাছে তিনটি কলেজ খুব প্রিয়। তোলারাম কলেজ, মহিলা কলেজ ও নারায়ণগঞ্জ কলেজ। কিন্তু কষ্ট লাগছে আমার। মেয়েদেরকে বলছি কারণ তোমাদের মা বা মেয়ে হিসেবে বিশ্বাস করি। তোমরা সত্য কথা বলবা তা না হলে আল্লাহর কাছে ঠেকা থাকবা।
অনুষ্ঠানে বক্তব্যে শামীম ওসমান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি প্রশ্ন করে বলেন, তোলারাম কলেজে টর্চার সেল কোথায় আছে? যেখানে মানুষ পিটানো হয়। আছে নাকি নাই? যদি না থাকে তাহলে হাত তুলে দেখাও। নাই? তাহলে আপনারা কারা যারা বলছেন শহীদ মিনারে দাঁড়িয়ে যে তোলারাম কলেজে ছাত্রদের নির্যাতন করা হয়। শুধু শহীদ মিনারে নয় আপনারা জেলা প্রশাসকের কার্যলয়ে দাঁড়িয়ে বলেছেন।
তিনি বলেন, আমি তোলারাম কলেজের অধ্যক্ষকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি সাথে সাথে চ্যালেঞ্জ করেছেন এবং বলেছেন, চলেন সমস্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী নিয়ে আমার কলেজে গিয়ে দেখান আমার কলেজে কোথাও একটা ছাত্র নির্যাতন হচ্ছে কিংবা করার জন্য ব্যবস্থা আছে সেখানে। যদি করা হয়ে থাকে তাহলে আমি নিজে পদত্যাগ করবো।
তাহলে যারা বলছেন, তারা কি আফগানিস্তান থেকে এসেছেন? তাতো না। আফ্রিকা থেকেও আসেন নাই। সুন্দরবনে জঙ্গলে থাকা কোনো জংলি পুরুষ তারা না। তারা আমার চেয়ে জ্ঞানী মানুষ। নামের আগে পরে অনেক টাইটেল আছে তাদের কারো নামে কবি, কারো নামে সাহিত্যিক। কারে নামে বিপ্লবী, কারো নামে ওমুক সভাপতি, ওমুক সাধারণ সম্পাদক। বলছেন কেন? কার ভবিষ্যৎ নষ্ট করছেন। আপনার বাচ্চার? তোলারাম কলেজকে যদি আপনি বিতর্কিত করেন, মহিলা কলেজকে যদি আপনি বিতর্কিত করেন, নারায়ণগঞ্জ কলেজকে যদি আপনি বিতর্কিত করেন। কাকে বিতর্কিত করছেন? আমাকে? কেন? এই কলেজের ছাত্ররা আমাদেরকে ভালোবাসে একটু বেশি এই জন্য? আপনি এতো স্বার্থপর, এতো জঘন্য! আপনি এতো নিচু মানসিকতার লোক! আপনি আপনার সন্তানদেরকে টাইটেল দিয়ে দিচ্ছেন খুনি, গুন্ডা, মাস্তান।
শামীম ওসমান বলেন, একবার চিন্তা করেন তো যদি এই ছাত্ররা যদি আমাদের আমলের ৮১ সনের ছাত্র হতো আপনার বাড়ির ইট থাকতো কিনা এখন পর্যন্ত। আমাদের সময়ের ছাত্র হলে তো বাড়ির ইট থাকার কথা না। গিয়ে বলতো, ওই আমাদের সন্ত্রাসী বললি কেন?
তিনি বলেন, হাজার ছাত্র যদি রাস্তায় বের হয়। মহিলা কলেজেও ১০ হাজার আছে। নারায়ণগঞ্জ কলেজেও ১০-১৫ হাজার ছাত্র আছে। যদি সবাই মিলে রাস্তায় নেমে বলে শহীদ মিনারে দাঁড়িয়ে মিথ্যা বললি কেন? কে আপনাদের রক্ষা করবে? আমাদের বাচ্চাদের আঘাত কইরেন না। এতে আপনার বাচ্চা আঘাতপ্রাপ্ত হবে। ভুল থাকতে পারে। সংশোধন করেন। আপনার মতামত থাকতে পারে। সেই মতামত বলেন।
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান ও শামীম ওসমানের স্ত্রী সালমা ওসমান লিপি, সরকারি তোলারাম কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বেলা রানী সিংহ, উপাধ্যক্ষ শাহ্ মো. আমিনুল ইসলাম, কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শিরিন আক্তার, শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জীবন কৃষ্ণ মোদক প্রমুখ।

তোলারাম কলেজের নবীণ বরণ উৎসবে : টর্চার সেল প্রসঙ্গে শামীম ওসমান
                                  

মো: রবিউল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ: তোলারাম কলেজে নবীণ বরণ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে কলেজ প্রাঙ্গণে অনন্দঘণ পরিবেশে এ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান।
সরকারি তোলারাম কলেজে নবীণ বরণ উৎসব অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, আমার কাছে তিনটি কলেজ খুব প্রিয়। তোলারাম কলেজ, মহিলা কলেজ ও নারায়ণগঞ্জ কলেজ। কিন্তু কষ্ট লাগছে আমার। মেয়েদেরকে বলছি কারণ তোমাদের মা বা মেয়ে হিসেবে বিশ্বাস করি। তোমরা সত্য কথা বলবা তা না হলে আল্লাহর কাছে ঠেকা থাকবা।
অনুষ্ঠানে বক্তব্যে শামীম ওসমান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি প্রশ্ন করে বলেন, তোলারাম কলেজে টর্চার সেল কোথায় আছে? যেখানে মানুষ পিটানো হয়। আছে নাকি নাই? যদি না থাকে তাহলে হাত তুলে দেখাও। নাই? তাহলে আপনারা কারা যারা বলছেন শহীদ মিনারে দাঁড়িয়ে যে তোলারাম কলেজে ছাত্রদের নির্যাতন করা হয়। শুধু শহীদ মিনারে নয় আপনারা জেলা প্রশাসকের কার্যলয়ে দাঁড়িয়ে বলেছেন।
তিনি বলেন, আমি তোলারাম কলেজের অধ্যক্ষকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি সাথে সাথে চ্যালেঞ্জ করেছেন এবং বলেছেন, চলেন সমস্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী নিয়ে আমার কলেজে গিয়ে দেখান আমার কলেজে কোথাও একটা ছাত্র নির্যাতন হচ্ছে কিংবা করার জন্য ব্যবস্থা আছে সেখানে। যদি করা হয়ে থাকে তাহলে আমি নিজে পদত্যাগ করবো।
তাহলে যারা বলছেন, তারা কি আফগানিস্তান থেকে এসেছেন? তাতো না। আফ্রিকা থেকেও আসেন নাই। সুন্দরবনে জঙ্গলে থাকা কোনো জংলি পুরুষ তারা না। তারা আমার চেয়ে জ্ঞানী মানুষ। নামের আগে পরে অনেক টাইটেল আছে তাদের কারো নামে কবি, কারো নামে সাহিত্যিক। কারে নামে বিপ্লবী, কারো নামে ওমুক সভাপতি, ওমুক সাধারণ সম্পাদক। বলছেন কেন? কার ভবিষ্যৎ নষ্ট করছেন। আপনার বাচ্চার? তোলারাম কলেজকে যদি আপনি বিতর্কিত করেন, মহিলা কলেজকে যদি আপনি বিতর্কিত করেন, নারায়ণগঞ্জ কলেজকে যদি আপনি বিতর্কিত করেন। কাকে বিতর্কিত করছেন? আমাকে? কেন? এই কলেজের ছাত্ররা আমাদেরকে ভালোবাসে একটু বেশি এই জন্য? আপনি এতো স্বার্থপর, এতো জঘন্য! আপনি এতো নিচু মানসিকতার লোক! আপনি আপনার সন্তানদেরকে টাইটেল দিয়ে দিচ্ছেন খুনি, গুন্ডা, মাস্তান।
শামীম ওসমান বলেন, একবার চিন্তা করেন তো যদি এই ছাত্ররা যদি আমাদের আমলের ৮১ সনের ছাত্র হতো আপনার বাড়ির ইট থাকতো কিনা এখন পর্যন্ত। আমাদের সময়ের ছাত্র হলে তো বাড়ির ইট থাকার কথা না। গিয়ে বলতো, ওই আমাদের সন্ত্রাসী বললি কেন?
তিনি বলেন, হাজার ছাত্র যদি রাস্তায় বের হয়। মহিলা কলেজেও ১০ হাজার আছে। নারায়ণগঞ্জ কলেজেও ১০-১৫ হাজার ছাত্র আছে। যদি সবাই মিলে রাস্তায় নেমে বলে শহীদ মিনারে দাঁড়িয়ে মিথ্যা বললি কেন? কে আপনাদের রক্ষা করবে? আমাদের বাচ্চাদের আঘাত কইরেন না। এতে আপনার বাচ্চা আঘাতপ্রাপ্ত হবে। ভুল থাকতে পারে। সংশোধন করেন। আপনার মতামত থাকতে পারে। সেই মতামত বলেন।
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান ও শামীম ওসমানের স্ত্রী সালমা ওসমান লিপি, সরকারি তোলারাম কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বেলা রানী সিংহ, উপাধ্যক্ষ শাহ্ মো. আমিনুল ইসলাম, কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শিরিন আক্তার, শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জীবন কৃষ্ণ মোদক প্রমুখ।

টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
                                  

জানে আলম সাকি, কক্সবাজার: টেকনাফে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ীসহ দুইজন নিহত হয়েছে। অন্যজন রোহিঙ্গা।
শুক্রবার দিবাগত রাত একটার দিকে টেকনাফ পর্যটন বাজারের উত্তর মালির পাহাড়ের পাদদেশে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।
বন্দুকযুদ্ধে নিহতরা হলো, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী ছয়টি মাদক মামলার আসামি টেকনাফ সদর ইউনিয়নের হাতিয়ার ঘোনা এলাকার হাজী হামিদ হোসেন এর পুত্র আহমদ হোসেন (৪৫) এবং নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ব্লক-ডি সেট নম্বর ২৮ এর মৃত কালা মিয়ার পুত্র আব্দুর রহমান (৪৬)।
এই ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।ঘটনাস্থল থেকে দুটি এলজি, চার রাউন্ড গুলি ও পাঁচ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।
সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান, গ্রেপ্তারকৃত দুজনকে নিয়ে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে গেলে সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। এতে দুই মাদক ব্যবসায়ী গুলিবিদ্ধ হয়। গুলিবিদ্ধ দুই জনকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। সেখানে চিকিৎসক তাদেরকে মৃত ঘোষণা করেন।

দেবরের পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন ভাবি, ধর্ষণ থেকে বাঁচতে
                                  

নারায়নগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় ভাবিকে ধর্ষণ করতে গিয়ে পুরুষাঙ্গ হারিয়েছেন মনির (৩০) নামে এক যুবক। নিজের সম্মান রক্ষার্থে ব্লেড দিয়ে আপন দেবরের পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছেন ভাবি। গতকাল শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার উচিৎপুরা ইউনিয়নের জাঙ্গালিয়া বুরুমদীপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। আহত দেবর মনিরকে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার উচিৎপুরা ইউনিয়নের জাঙ্গালিয়া বুরুমদীপাড়া গ্রামের বাসিন্দা তাজুল ইসলাম দীর্ঘ ছয় বছর ধরে দুবাই রয়েছেন। দুই সন্তানসহ তার স্ত্রী বাড়িতেই থাকেন। এ সুযোগে তার ছোট ভাই মনির ভাবির সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করছিলেন। শনিবার রাতে ভাবির ঘরে প্রবেশ করেন মনির। পরে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় ভাবি ধারালো ব্লেড দিয়ে মনিরের পুরুষাঙ্গ কেটে দেন। পরে বাড়ির লোকজন বিষয়টি জানতে পেরে দ্রুত মনিরকে প্রথমে আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রিফার্ড করা হয়।

আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মনিরুজ্জামান বলেন, মনিরের পুরুষাঙ্গ দেড় থেকে দুই সেন্টিমিটার পরিমাণ কাটা গেছে। প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার পর অবস্থা খারাপ হওয়ায় আমরা ঢাকায় প্রেরণ করি।

মনিরের ভাবি বলেন, আমার দেবর মনির দীর্ঘ দিন ধরে আমাকে উত্ত্যক্ত করে আসছে। আমি বাধ্য হয়ে এই কাজ করছি।

উচিৎপুরা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) মো. আলমগীর হোসেন বলেন, এ ধরনের ঘটনা শুনে দ্রুত তাদের বাড়িতে ছুটে যাই। এলাকায় কোনো ধরনের অঘটন যাতে না ঘটে সে লক্ষে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। মনিরের ভাবিকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

আড়াইহাজার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। তারপরও খোঁজখবর নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

জোবেদ আলী ১১৯ বছরেও ফজরের নামাজ কাজা করেননি
                                  

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:  জোবেদ আলী। জাতীয় পরিচয়পত্রে তার বয়স ১১৯। এ বয়সেও তিনি স্বাভাবিক চলাফেরা করেন। জোবেদ আলীর স্বাভাবিক চলাফেরা ও কাজকর্ম এলাকার মানুষের কাছে ব্যাপক কৌতুহল সৃষ্টি করেছে। এ বয়সেও তিনি খালি চোখে কুরআনসহ পত্রিকা পড়েন। কোনো কাজে বাড়ি থেকে বের হলেই শতবর্ষী এ বৃদ্ধকে এক নজর দেখতে ভিড় করেন সাধারণ মানুষ।

জোবেদ আলী কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট ইউনিয়নের মেকুরটারী তেলীপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। জাতীয় পরিচয় পত্রে তার জন্ম তারিখ লেখা রয়েছে ২৫ অক্টোবর ১৯০০ইংরেজি সাল। সে হিসেবে তার বর্তমান বয়স ১১৯ বছর হলেও তার বয়স আরও বেশি। মেকুরটারী তেলীপাড়া গ্রামের মৃত হাসান আলীর পুত্র তিনি। তার স্ত্রী ফয়জুন নেছা (৮৭), ৩ পুত্র ও ৪ মেয়ে রয়েছে।

 

বৃদ্ধ জোবেদ আলী জীবনে কোনো দিন ফজরের নামাজ কাজা করেননি। ছোটবেলা থেকেই তিনি ছিলেন ধর্মভীরু। তিনি ১০০ বছর আগে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। তিনি স্বাভাবিকভাবে নিয়মিত কুরআন মাজিদ তেলাওয়াতসহ বিভিন্ন বই ও পত্রিকা পড়েন।

এ বয়সেও তার বড় ধরনের কোনো রোগ নেই। শরীর এখনও তাঁর ভাল আছে। ছোট বেলা থেকে যুবক বয়সে তিনি নিজের বাড়ির উৎপাদিত মাছ, মাংস, দুধ, ডিম, আবাদি বিতরী ধানের ভাত, খাঁটি ঘি, সরিষার তেল, রাসায়নিক সারবিহীন শাক-সবজি নিয়মিত খেতেন।

তিনি প্রতিদিন ফজরের নামাজের পর এবং রাতে নিয়মিত কুরআন তেলাওয়াত করেন। কুরআন মাজিদ ছাড়াও পত্রিকা পড়ার নেশা রয়েছে তার।

বৃদ্ধ জোবেদ আলী বলেন, ‘আমি জীবনে কোনো দিন ফজরের নামাজ কাজা করিনি। ১১৯ বছরেও আমি সুস্থ্য আছি, খালি চোখেই বই ও পত্রিকা পড়ি। ফজরের নামাজের পর কুরআন তেলাওয়াত করি। তাই হয়তো আল্লাহ পাক আমাকে সুস্থ্য রেখেছেন। এ জন্য জোবেদ আলী আল্লাহর শুকিয়ার আদায় করেন।

নাটোরে দুই নারীর মরদেহ উদ্ধার
                                  

নাটোর প্রতিনধি: নাটোরে পৃথক ঘটনায় দুই নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার বাগাতিপাড়া উপজেলার জয়ন্তীপুর ও লালপুর উপজেলার চংধুপইল গ্রাম থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়।

লালপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানান সেলিম রেজা জানান, রাতে পুজোর ডিউটি শেষে স্বেচ্ছাসেবী আনছার সদস্য সাবিনা চংধুপইল গ্রামের বাড়িতে ফিরে ঘুমিয়ে পড়েন। পরে সকালে সাবিনার মরদেহ পাওয়া যায়। এটি হত্যাকাণ্ড কি-না তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। এ সময় নিহতের স্বামী সাহিনুরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

 

অপরদিকে বাগাতিপাড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি) আব্দুল মতিন জানান, বাগাতিপাড়ার বড়াল নদীর তীর ঘেঁষা জয়ন্তীপুর গ্রাম থেকে রেহেনা নামে এক বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রাত ২টার দিকে পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়রা শব্দ পেয়ে রেহেনার বাড়িতে ছুটে যান। এ সময় একজনকে পালাতে দেখেন তারা। পরে ঘরের ভেতর গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় রেহেনাকে পরে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন তারা। পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করছে বলে জানান ওসি।

যমজ ২ বোনের দায়িত্ব নিলেন ডিসি, ঢাবিতে চান্স পাওয়া
                                  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) চান্স পাওয়া যমজ দুই বোন সাদিয়া আক্তার সুরাইয়া ও নাদিরা ফারজানা সুমাইয়ার পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েছেন বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মামুনুর রশীদ।

শনিবার দুপুরে সার্কিট হাউসে মেধাবী ওই দুই শিক্ষার্থী ও তাদের মায়ের সঙ্গে কথা বলে পড়াশোনার দায়িত্ব নেয়ার আশ্বাস দেন ডিসি।

 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল হাসান, মোহাম্মাদ শাহজাহান, রাহাত উজ্জামান, শিক্ষার্থীদের মা শাহিদা বেগম ও কাউন্সিলর মোল্লা নাসির উদ্দিন প্রমুখ।

একই সঙ্গে ওই দুই শিক্ষার্থীকে দুটি মোবাইল ফোন উপহার দিয়েছেন বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন।

সরদার নাসির উদ্দিন বলেন, বাগেরহাটে এরকম দুই মেধাবী শিক্ষার্থী রয়েছে বিষয়টি জানতে পেরে সকালেই তাদের বাড়ি যাই। স্থানীয় সংসদ সদস্য শেখ সারহান নাসের তন্ময়কে বিষয়টি জানাই। দুই শিক্ষার্থী যাতে নির্বিঘ্নে তাদের পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারেন সে ব্যবস্থা করতে বলেছেন এমপি তন্ময়।

দুই শিক্ষার্থীর দায়িত্ব নেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ বলেন, দেশ যেমন এগিয়ে যাচ্ছে, মানুষও মানুষের সহযোগিতায় এগিয়ে আসছে। তাই দুই শিক্ষার্থীর লেখাপড়ার জন্য আমরা জেলা প্রশাসন থেকে সহযোগিতা করব। পড়াশোনা করে ভালো মানুষ হবে তারা।

দুই শিক্ষার্থীর মা শাহিদা বেগম বলেন, অর্থনৈতিক দৈন্যদশার মধ্যে দুই মেয়েকে পড়ালেখা করিয়েছি। ওরা পড়ালেখা করতে চায়। ওরা সুযোগ পেয়েছে আমারও ইচ্ছা পড়ালেখা চালিয়ে যাক। তবে আমার যে সামর্থ্য তাতে দুজনকে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ানো অনেক কষ্টের। দুই মেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাওয়ার পর অনেক চিন্তিত ছিলাম। কিন্তু সবাই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়ায় এখন একটু ভারমুক্ত হয়েছি।

সুমাইয়া বলেন, শৈশব থেকেই দরিদ্রতার মধ্যে বেড়ে উঠেছি আমরা। পারিবারিক অসচ্ছলতার কারণে মাধ্যমিক থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত আমরা টিউশনি করিয়ে পড়াশোনার খরচ জোগাড় করেছি। স্বপ্ন দেখেছি যেন আমরা দুই বোন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো স্বনামধন্য একটি প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করতে পারি। সে স্বপ্ন আমাদের পূরণ হয়েছে।

সুরাইয়া বলেন, ঢাবিতে সুযোগ পাওয়ার পর একধরনের অনিশ্চয়তা কাজ করছিল মনের মধ্যে। ডিসি, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও পৌরসভার মেয়র মহোদয়সহ অনেকের সহযোগিতার আশ্বাসের জন্য আমরা কৃতজ্ঞ। সবার কাছে দোয়া চাই। যাতে ভালো লেখাপড়া করে দেশের সেবা করতে পারি আমরা।

প্রসঙ্গত, বাগেরহাট সদর উপজেলার হরিণখানা এলাকার দিনমজুর বাবা মহিদুল হাওলাদারের যমজ মেয়ে সুরাইয়া ও সুমাইয়া। অর্থাভাবে টিউশনি করিয়ে পড়াশোনা চালিয়েছেন তারা।

এরপরও মাধ্যমিকে বাণিজ্য বিভাগে সুরাইয়া ৪.৮৬, সুমাইয়া ৪.৯১ এবং উচ্চ মাধ্যমিকে দুই বোনই গোল্ডেন এ-প্লাস পান। ঢাবিতে ভর্তি পরীক্ষায় গ-ইউনিটে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (গ-ইউনিট) বাণিজ্য অনুষদে সুমাইয়ার মেধাক্রম ৮৪৬ এবং সুরাইয়ার মেধাক্রম ১১৬৩। ঢাবিতে তাদের ভর্তির শেষ দিন ৩১ অক্টোবর।

 

প্রধান আসামি গ্রেফতার , রোহিঙ্গা কিশোরী ধর্ষণ
                                  

কক্সবাজারের টেকনাফে রোহিঙ্গা কিশোরী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি মোহাম্মদ শাহজাহানকে (৩২) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। বুধবার (৯ অক্টোবর) রাত ৮টার দিকে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের রঙ্গীখালী এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত শাহজাহান টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের রঙ্গীখালী এলাকার নুরুল হুদার ছেলে। তাকে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হচ্ছে।

 

র‌্যাব-১৫, সিপিসি-১ টেকনাফ ক্যাম্প ইনচার্জ লেফটেন্যান্ট মির্জা শাহেদ মাহাতাব বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রঙ্গীখালী এলাকায় ধর্ষণ মামলার আসামি অবস্থানের গোপন সংবাদে র‌্যাবের একটি বিশেষ দল অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে।

প্রসঙ্গত, গত ১ অক্টোবর টেকনাফ লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সি-২২ এর বাসিন্দা এক কিশোরী হ্নীলার রঙ্গীখালী এলাকায় গেলে ধর্ষণের শিকার হয়। এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাতে ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে টেকনাফ মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে গণধর্ষণ বাড়ি পৌঁছে দেয়ার কথা বলে
                                  

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার আমিশাপাড়া ইউনিয়নে ৫ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১৩) গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মায়ের করা মামলায় সজিব হোসেন (২৫) ও রাজন (২৪) নামে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুরে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে সকালে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে তিনজনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে সোনাইমুড়ী থানায় মামলা করেন।

 

মামলা সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে মেয়েটি তার বড় বোনের বাড়ি পশ্চিম চাঁদপুর থেকে নিজ বাড়ি আমিশাপাড়া ইউনিয়নের পানিয়া শালা গ্রামের উদ্দেশ্যে রিকশায় করে যাচ্ছিল। পথে আমিশাপাড়া বাজারে রিকশা স্ট্যান্ডের জাহান প্লাজার সামনে নামে সে। এ সময় বজরগ্রাঁও গ্রামের পণ্ডিত বাড়ির নুর নবী বাহারের ছেলে সজিব হোসেন তাকে বাড়ি পৌঁছে দেয়ার কথা বলে সিএনজিতে তুলে নেয়। পরে কিছু দূর যাওয়ার পর সোহাগ ও শুক্কুর মিয়ার বিল্ডিংয়ের সামনে সিএনজিটি বন্ধ করে দেয় সে।

সজিব মেয়েটিকে কিছুক্ষণ টিভি দেখানোর কথা বলে দলিল লেখক সহিদ উল্যাহ সোহাগের বিল্ডিংয়ের ৫ম তলার একটি কক্ষে নিয়ে যায়। সেখানে নাঈম (২৫) ও রাজন ছিলো। এ সময় তারা ওই ছাত্রীকে আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে তাকে বাড়ির উদ্দেশ্যে একটি রিকশা ভাড়া করে দেয় তারা। এ সময় মেয়েটির চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে সোনাইমুড়ী থানা পুলিশে খবর দেন।

সোনাইমুড়ী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুস সামাদ বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। মেয়েটিকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মেয়াদোত্তীর্ণ তিস্তা রেলসেতুর ওপর চলে ১৮ ট্রেন !
                                  

সবুজ আলী আপন, রংপুর।  ৮৫ বছর আগে মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার পর আজও লালমনিরহাটের তিস্তা রেলসেতু দিয়ে প্রতিনিয়ত ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে ১৮টি ট্রেন। লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রাম জেলার সংযোগ রক্ষাকারী এ সেতুর কাঠের স্লিপারগুলো নষ্ট হয়ে গেছে। জানা যায় নর্দার্ন বেঙ্গল স্টেট রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ১৮৩৪ সালে ২ হাজার ১১০ ফুট দৈর্ঘ্যর তিস্তা রেল সেতুটি নির্মাণ করে। এটির মেয়াদ ওই সময় দিয়েছিল ১শ বছর। বর্তমানে রেল সেতুটির বয়স ১শ ৮৫ বছর। অর্থাৎ মেয়াদের প্রায় দ্বিগুণ সময় পেরিয়ে গেছে সেতুটির। ফলে রেলসেতু ও কালভার্টগুলোর অর্ধশত বছরের পুরনো কাঠের স্লিপারের অধিকাংশ নষ্ট হয়ে গেছে। রেল লাইনের ক্লিপ চুরি হওয়ায় দীর্ঘদিন ধরেই ‘মরণ ফাঁদে’ পরিণত হয়েছে রেলপথটি। বিশেষ করে তিস্তা রেলসেতুর কাঠের স্লিপারগুলো পচে গেছে। স্লিপারের সঙ্গে লাইন আটকানোর জন্য দুটি পিন দেওয়ার কথা থাকলেও রয়েছে তা একটি করে। কোনো কোনো স্থানে একদম স্লিপারে লোহার প্লেট নেই। এছাড়া সেতুর পাশে দুই লাইনের জোড়ায় ফিসপ্লেটে চারটি নাট-বল্টু থাকার কথা থাকলেও আছে তিনটি করে।
মেয়াদোত্তীর্ণ তিস্তা রেল সেতুটি মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে আছে, স্বীকার করেছে রেলওয়ে বিভাগ। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা দেশে সড়ক ও রেলপথের সব সেতু বা কালভার্টের অবকাঠামো জরিপের নির্দেশ দিলেও তার কোনো কার্যক্রম এ জেলায় চোখে পড়ছে না। অবশ্য রেলপথমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন সম্প্রতি জানিয়েছেন, বুড়িমারী স্থলবন্দর দিয়ে নতুন আরেকটি ট্রেন সংযোগ হলেই ঝুঁকিপূর্ণ লালমনিরহাট রেলসেতুর পাশে আরও একটি সেতু নির্মাণের পরিকল্পনা করবে বাংলাদেশ রেলওয়ে। তিস্তা রেলসেতু এলাকার স্থানীয়রা জানান, ঝুঁকিপূর্ণ এই তিস্তা রেলসেতুটি যে কোনো মুহূর্তে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। দুর্ঘটনা ঘটে যাওয়ার আগে সেতুটি মেরামত করা প্রয়োজন। রেলওয়ের লালমনিরহাট বিভাগীয় ম্যানেজার মুহাম্মদ শফিকুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, গত ২৫ জুন এক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী এ বিভাগের ছোট-বড় ৪০৮টি সেতু নির্মাণের অনুমোদন পাওয়া গেছে। তবে মেয়াদোত্তীর্ণ হলেও তিস্তা রেলসেতু ঝুঁকিপূর্ণ নয়। তার পরও তিস্তা রেলসেতুর পশ্চিম পাশে নতুন করে আরও একটি ডাবল ব্রডগেজ সেতু নির্মাণের পরিকল্পনা হাতে রয়েছে।

৪ খুনের বিচার দাবিতে হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের মানববন্ধন
                                  

জানে আলম সাকি, কক্সবাজারউখিয়া উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়নের পূর্ব রত্নাপালং বড়ুয়াপাড়ায় সংগঠিত চাঞ্চল্যকর ফোর মার্ডার হত্যাকারীদের চিহ্নিত করে দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদ কক্সবাজার জেলা শাখার উদ্যোগে শনিবার ২৮ সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে ৩ টায় এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে। বিষয়টি কক্সবাজার জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের নির্বাহী সভাপতি এডভোকেট দীপংকর বড়ুয়া পিন্টু সিবিএন-কে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি এই জগন্য হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে কক্সবাজার পৌরসভা কার্যালয়ের সামনে শনিবার অনুষ্ঠিতব্য মানববন্ধনে দল, মত নির্বিশেষে সকলকে যোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।

ছাত্রীদের সাথে আপত্তিকর ছবি ফেসবুকে ! চিতলমারীতে শিক্ষক সোহাগের হীন লালসার শিকার হয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারী অভিভাবক
                                  

মো: একরামুল হক মুন্সী, চিতলমারী(বাগেরহাট):
‘আমরা ভুলেও ভাবতে পারিনি একজন শিক্ষকের দ্বারা এমন কাজ হতে পারে। তাকে বিশ্বাস করে বড় ভুল করেছি। ওই শিক্ষকের জন্য আমার মেয়েটা এখন মরতে বসেছে। তার দুই সন্তানের লেখাপড়া বন্ধ হয়ে গেছে। তাদের ভবিষ্যৎ অন্ধকার। এখন পরিবারটির স্বপ্ন ভেঙ্গে চুরমার!’ গত ৭ সেপ্টেম্বর কান্নাজড়িত কন্ঠে কথাগুলো বলছিলেন নির্যাতিত ওই নারীর মা।
বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলায় সোহাগ মোল্লা নামে এক শিক্ষকের হীন লালসার শিকার হয়ে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন এক নারী। বর্তমানে ওই নারীকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে তার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবার ওই শিক্ষকের অনৈতিক কাজের তদন্তপূর্বক বিচার দাবী করেছেন। এছাড়া, ছাত্রীর মায়ের সাথে অবৈধ সম্পর্ক এবং স্কুলের অন্যান্য ছাত্রীদের সাথে আপত্তিকর ছবি ফেসবুকে প্রচারের অভিযোগও পাওয়া গেছে।
বিদ্যালয়ের জরুরী সভায় নিজের অপরাধ স্বীকার করে শিশু কানন বিদ্যা নিকেতনের প্রধান শিক্ষক সোহাগ মোল্লা বলেন, ‘অন্যায় অপরাধ সবকিছুই আমার। কিন্তু এক হাতে তালি বাজে না। আমি পুরুষ মানুষ। আমার মতো ৯৯ ভাগ পুরুষ এই কাজ করছে। তাদের বিচার কে করবে?’


নির্যাতিত নারীর মা আরো জানান, তার মেয়েকে উপজেলার হাড়িয়ারঘোপ গ্রামে ১২ বছর আগে দেন।মেয়ের স্বামী ঢাকায় চাকুরী করেন। দুই সন্তানকে নিয়ে মেয়ে বাবার বাড়ি শিবপুর গ্রামে থাকেন। এখানে থেকে শিশু কানন বিদ্যা নিকেতনে প্রথম শ্রেনীতে পড়–য়া নাতনিকে নিয়ে মেয়ে প্রতিদিন স্কুলে যাতায়াত করত। এই সুবাদে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সোহাগ মোল্লা তার মেয়ের সাথে সম্পর্ক গড়ার চেষ্টা করে। ছাত্রীর লেখাপড়ার খবর নেয়ার অযুহাতে মাঝেমধ্যে সোহাগ মোল্লা রাতে-বিরাতে তাদের বাড়িতে যাতায়াত করত।
তিনি জানান, গত ঈদ-উল-আযহার প্রায় ১৫ দিন আগে তার মেয়ে


নাতনিকে নিয়ে স্কুলে যায়। এদিন স্কুল ছুটির পর লাইব্রেরীতে বসে তার মেয়েকে চেতনানাশক খাওয়ায়। এতে সে জ্ঞান হারালে বিপর্যস্ত অবস্থায় বাড়িতে রেখে আসে। এ অবস্থায় তাকে গোপালগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসা করানো হয়। কিন্তু বাড়িতে ফেরার পর মেয়ে অস্বাভাবিক আচরণ দেখে পরিবারের সন্দেহ জাগে। তারা বাড়ির বিভিন্ন জায়গায় মেয়েকে তৎবিরের তাবিজ-কবজ পায়। তাবিজের মধ্যে সোহাগ মোল্লা ও তার মেয়ের নাম লেখা কাগজ পাওয়া যায়। বিষয়টি জানার পর পরিবারের লোকেরা স্কুলে আসে। চাপের মুখে শিক্ষক সোহাগ মোল্লা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে। সঙ্গে সঙ্গে শিক্ষক সোহাগকে জুতাপেটা করা হয়। শিক্ষক সোহাগ তার কৃতকর্মের জন্য মাফ চায়। এদিকে, ঈদের ছুটিতে মেয়ের স্বামী ঢাকা হতে বাড়িতে আসে। তার সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করে। স্বামীকে সরাসরি জানিয়ে দেয় সে সোহাগ মোল্লার সাথে সংসার করবে। পরিবারের পক্ষ হতে বিষয়টি শিশু কানন বিদ্যা নিকেতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়।


গত ৭ সেপ্টেম্বর শিশু কানন বিদ্যা নিকেতনের প্রতিষ্ঠাতা হাফিজুর রহমান খান বলেন, ‘একজন শিক্ষকের অনৈতিকতা কোন ভাবে গ্রহণযোগ্য নয়। সোহাগ মোল্লার বিরুদ্ধে এক ছাত্রীর মায়ের সাথে অবৈধ সম্পর্ক এবং স্কুলের ছাত্রীদের শরীরে তার হাত রাখা বিভিন্ন ছবি ফেসবুকে প্রচারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অনুমতি ছাড়া কারো ছবি প্রকাশ করা আইনে নিষেধ। একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিশুদের গোপনীয়তা রক্ষা করা বাঞ্চণীয়। অভিযোগ পেয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর শিক্ষক সোহাগ মোল্লাকে গত ২৩ আগস্ট সাময়িকভাবে বহিস্কার করা হয়। কিন্তু সে নিজের দোষ গোপন রেখে কৌশলে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও প্রভাবশালীদের আবেগীয়ভাবে প্রভাবিত করে স্কুলে অবস্থান করছে। ’চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মারুফুল আলম বলেন, ‘বিষয়টি আমাকে কেউ জানায়নি। জানালে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

পেকুয়ায় বন্দুকযুদ্ধে উপকূলের শীর্ষ জলদস্যু বাদশা নিহত, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার
                                  

মো. জানে আলম সাকি, কক্সবাজার: পেকুয়া উপজেলায় র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে উপকূলের শীর্ষ জলদস্যু মোঃ বাদশা (৩০) নিহত হয়েছেন। তিনি বাঁশখালী ছনুয়া টেকপাড়া এলাকার আবুল কাশেমের পুত্র।

এ সময় ৪টি ওয়ান শুটারগান, ১২ টি তাজা গুলি, ৮টি খালি খোসা ও  ৪ টি দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোর ৪টার দিকে উপজেলার সমুদ্র উপকূলীয় এলাকা মগনামা ইউনিয়নে মগনামা শরৎঘোনা ঘোনা বেড়িবাঁধে ঘটনাটি ঘটে।

র‌্যাবের দাবি, নিহত মোঃ বাদশা জলদস্যু বাহিনীর সক্রিয় সদস্য।

এদিকে লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি শেষে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে বলে পেকুয়া থানা পুলিশ জানিয়েছে।

পেকুয়া থানার ডিউটি অফিসার এসআই দিদারুল ইসলাম জানান, মগনামায় ডাকাতির প্রস্তুতি নেওয়ার খবর পেয়ে র‌্যাব মঙ্গলবার ভোরে অভিযানে যায়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছোড়ে একদল জলদস্যু। পাল্টা জবাবে র‌্যাবও গুলি চালায়। বেশ কিছুক্ষণ উভয় পক্ষে চলে বন্দুকযুদ্ধ।

এতে ঘটনাস্থলে একজন নিহত হয় এবং অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে নিহত জলদস্যুর লাশ উদ্ধার করা হয়।

এ কর্মকর্তা আরও জানান, নিহত মোঃ বাদশার বিরুদ্ধে ডাকাতি ও জলদস্যুতার অভিযোগে বহু মামলা রয়েছে।

শ্রীপুরে এক ব্যক্তির রহস্যজনক মৃত্যু
                                  

 গাজীপুর প্রতিনিধিঃ  গাজীপুরের শ্রীপুরের তেলিহাটি ইঊনিয়নের আনসার টেপিরবাড়ী এলাকায় জামাল উদ্দিন নামক এক ব্যক্তির রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।নিহত জামাল উদ্দিন (৪০)শ্রীপুর উপজেলার টেপিরবাড়ী এলাকার মৃত আহাদ আলীর ছেলে।

 

সোমবার (১৯ আগষ্ট) বেলা ১১টায় ঐ ব্যক্তির নিজ বাড়ির বারান্দা থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে শ্রীপুর থানা পুলিশ।

 

নিহতের ছেলে হৃদয় জানায়, তার বাবাকে টেপিরবাড়ী একই  এলাকার কিছু বখাটে চাঁন মিয়ার ছেলে সিয়াম, রনি, পিন্টু,সজল,সাদেক ,শাওনসহ  বেশ কিছু যুবক সপ্তাহ দুই-এক  যাবত বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে চাঁদা এবং হুমকি দিয়ে আসছিলো।

সে আরো জানায়, কিছুদিন আগে তার বাবাকে তেলিহাটির বৃন্দাবন এলাকায় নিয়ে মোটরসাইকেল রেখে দিতে চেয়েছিলো এবং শারীরিকভাবে নির‌্যাতন করে ভিডিও করে ২ লাখ টাকা চাদাঁ দাবি করে ।এবং ১৯ আগস্ট সোমবার ১০ টার আগে চাদাঁ না দিলে ধারনকৃত ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয় ।

নিহতের বড় ভাই সোলেমান জানান, তাঁর বড় ভাই এলাকার এক ঝাঁক সন্ত্রাসী ও মাদক সেবীরা  বেশ কিছুদিন ধরে চাঁদা দাবি করে আসছিল ।চাঁদা না দিলে ফেসবুক ও ইউটিঊব  ধারনকৃত ছবি ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিচ্ছিল তারা । তাই সে অপমান সহ্যকরতে না পেরে পর পাড়ে চলে গেল ।

 

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নয়ন ভুইঁয়া জানান, আত্মহত্যার বিষয়টির ঘটনার তদন্ত চলছে এবং এর সাথে কেউ জড়িত থাকলে তদন্তকরে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শ্রীপুরে ওশিন স্পিনিং মিলস শ্রমিকদের বেতন বোনাসের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ
                                  

গাজীপুর প্রতিনিধি ঃ গাজীপুরের শ্রীপুরের জৈনা বাজারের দক্ষিণ পাশে অবস্থিত ওশিন স্পিনিং মিলস নামক একটি সুতার মিলে বেতন ও বোনাসের দাবিতে বৃহস্পতিবার (৮ আগষ্ট) দুপুর ২টার দিকে প্রায় দেড় ঘন্টা ঢাকাÑময়মনসিংহ অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে শ্রমিকরা।
সরেজমিনে ওশিন স্পিনিং মিলসে কর্মরত কয়েকজন শ্রমিকের নিকট থেকে জানা যায় ,প্রায় তিন মাস ধরে শ্রমিকরা ঠিকমত বেতনের টাকা পাচ্ছেন না।তা ছাড়া আসন্ন কুরবানির ঈদকে সামনে রেখে ঈদের আগেই তারা বেতন ও বোনাস সঠিক সময়ে পাওয়ার দাবি জানায় এবং কর্তৃপক্ষ তাদের দাবি না মানার কারনে বৃহস্পতিবার (৮ আগষ্ট) দুপুর ২ টার দিকে কারখানা থেকে বের হয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করেন ।
কারখানায় কর্মরত আকলিমা বেগম জানান, এই কারখানায় গত কয়েকমাস যাবত ঠিকমত বেতনের টাকা পাচ্ছেন না। প্রতি মাসে ১২ তারিখে বেতন দেওয়ার কথঅ থাকলেও তারা বেতন দিচ্ছেনা সঠিক সময়ে । সামনে ঈদ তাই বাধ্য হয়ে দাবি আদায়ের লক্ষ্যেই মহাসড়কে আমরা ।
কারখানাটির আরেক শ্রমিক মাসুদ মিয়া জানান,সরকারি ছুটি হোক বা অন্য কোন ছুটি হোক তাদের হাজিরা বোনাস কেটে নেয় কর্তৃপক্ষ।এমন কি কোন কারণ ছাড়াই তাদের কে চাকুরিচ্যুত করা হয় ।
ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধের খবর পেয়ে সহকারী পুলিশ সুপার তোফাজ্জল হোসেন, শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি) লিয়াকত আলী ,(ওসি) তদন্ত আবুল কালাম এবং হাইওয়ে পুলিশ ও শিল্প পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে শ্রমিকদের বুঝিয়ে মহাসড়ক থেকে কারখানার ভিতরে নিয়ে যায় ।
পরে শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার উপস্থিতিতে ওশিন স্পিনিং মিলসেরএজিএম আবু হানিফ জানান, বৃহস্পতিবার (৮ আগষ্ট) রাত ৮ টায় বোনাস এবং ৯ আগস্ট এক মাসের পূর্ন বেতন দেওয়ার আশ্বাস পেয়ে শ্রমিকরা কাজে যোগদেন ।

শ্রীপুরে প্রতিশ্রুতি রক্ষার অঙ্গীকার করলেন সাংসদ সবুজ
                                  

গাজীপুর প্রতিনিধি: জীবন দিয়ে হলেও নির্বাচনকালীন দেয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষা করবেন বলে অঙ্গীকার করেছেন গাজীপুর-৩ আসনের সাংসদ মুহাম্মদ ইকবাল হোসেন সবুজ।

তিনি মঙ্গলবার শ্রীপুর উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। শ্রীপুর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলামের সাথে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের মতবিনিময় উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়েছিল।

শ্রীপুরকে আধুনিক, মাদক-ভূমিদস্যু-সন্ত্রাসমুক্ত মানবিক উপশহর হিসেবে রূপায়নে সাংসদ ইকবাল হোসেন সবুজের নির্বাচনকালীন প্রতিশ্রুতি ছিল।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. শামসুল আলম প্রধান, শ্রীপুর পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমান। এছাড়াও বক্তব্য দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ শাছুল আরেফীন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহতাব উদ্দিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লুৎফুন্নাহার মেজবাহ, প্রমূখ।

নবাগত জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলাম বলেন বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় সরকারের গৃহীত সকল প্রকার কর্মসুচীকে এগিয়ে নিতে প্রত্যেককে তার নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করে যেতে হবে। আগামী প্রজন্মের জন্য সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করা আমাদের অন্যতম দায়িত্ব।

বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের মধ্যে ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা প্রতিনিধি সাবেক কমান্ডার সিরাজুল হক, শ্রীপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি প্রভাষক আবু বকর সিদ্দিক আকন্দ, সাধারণ সম্পাদক কাজী আক্তার হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান, শ্রীপুর প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি আলমগীর হোসেনসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

শ্রীপুরে উপজেলা সিমানা প্রাচীর নিমার্ণ কাজে নিন্মমানের রড সিমেন্ট ব্যবহার
                                  

আতাউর রহমান সোহেল , গাজীপুর প্রতিনিধি ঃ গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলায় সিমানা প্রাচীর নিমার্ণে নিন্মমানের ইটা ও পুরাতন রড এবং কম দামি সিমেন্ট ব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া গেছে ।জানাযায় , শ্রীপুর উপজেলার স্থানীয় সরকার (এলজিইডি ) বিভাগের আওতাধীন শ্রীপুর উপজেলা সিমানা প্রাচীর নির্মান কাজে নিন্মমানের ইটা , রড ও পুরাতন সিমেন্ট ব্যবহার করে ব্যপক অনিয়মের মাধ্যমে বাউন্ডারি নির্মান কাজ সম্পর্ণ হতে যাচ্ছে ।

শ্রীপুর স্থানীয় সরকার (এলজিইডি) বিভাগের ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে প্রকল্প বাস্তবায়নে টেন্ডার আহব্বান করলে শ্রীপুরের ঠিকাদার শেখ শফিকুল ইসলাম কাজটি পেয়ে নিন্মমানের ইটা , পুরাতন রড ও সিমেন্ট ব্যবহার করে ব্যাপক অনিয়মের মাধ্যমে শ্রীপুর উপজেলা সিমানা প্রাচীর নির্মান কাজ সম্পর্ণ হচ্ছে । সরেজমিনে দেখা যায় , শ্রীপুর উপজেলা বাউন্ডারি নির্মান কাজে পুরাতন বাউন্ডারী ইটার সাথে পুরাতন প্লাস্টারসহ এক সাথে মিশিয়ে সিমানা প্রাচীর নির্মান করা হচ্ছে । তাছাড়াও পুরাতন রড এবং কম দামি সিমেন্ট ব্যবহার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে ।

শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের দক্ষিণ পার্শে চলমান সিমানা প্রাচীর নির্মান কাজটি বৃষ্টি উপেক্ষা করে পানির উপর কলমের বেইজ ঢালাই দিচ্ছে এবং রাতের আঁধারে সকলের অজান্তে বেইজ ও সট কলম ঢালাই দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে । যা বাউন্ডারি নির্মান কাজটিকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে ।

শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী শরিফুজ্জামান বলেন রড বৃষ্টিতে ভীজে যাওয়া মরিচা পড়েছে তাই পুরাতন মনে হচ্ছে । বাউন্ডারির কাজটি প্রায় বছর ধরে চলমান । আমি এখানে নতুন এসেছি । আসার পর থেকে সকল কাজ ঠিকঠাক পাচ্ছি ।

এ ব্যাপারে শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ শামছুল আরেফীন বলেন উপজেলা বাউন্ডারির কাজটি সরেজমিনে গিয়ে দেখতে পাই বাউন্ডারির কাজে কোনো অনিয়ম নেই । সব সঠিক আছে ।

শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড. সামছুল আলম প্রধান বলেন , সিমানা প্রাচীর নির্মানে অনিয়মের বিষয়টি আমার জানা নেই । বিষয়টি আমি পর্যবেক্ষন করে সঠিক ব্যবস্থা নিবো ।

 

 

 


   Page 1 of 12
     সারাদেশ
তোলারাম কলেজের নবীণ বরণ উৎসবে : টর্চার সেল প্রসঙ্গে শামীম ওসমান
.............................................................................................
টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
.............................................................................................
দেবরের পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন ভাবি, ধর্ষণ থেকে বাঁচতে
.............................................................................................
জোবেদ আলী ১১৯ বছরেও ফজরের নামাজ কাজা করেননি
.............................................................................................
নাটোরে দুই নারীর মরদেহ উদ্ধার
.............................................................................................
যমজ ২ বোনের দায়িত্ব নিলেন ডিসি, ঢাবিতে চান্স পাওয়া
.............................................................................................
প্রধান আসামি গ্রেফতার , রোহিঙ্গা কিশোরী ধর্ষণ
.............................................................................................
৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে গণধর্ষণ বাড়ি পৌঁছে দেয়ার কথা বলে
.............................................................................................
মেয়াদোত্তীর্ণ তিস্তা রেলসেতুর ওপর চলে ১৮ ট্রেন !
.............................................................................................
৪ খুনের বিচার দাবিতে হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের মানববন্ধন
.............................................................................................
ছাত্রীদের সাথে আপত্তিকর ছবি ফেসবুকে ! চিতলমারীতে শিক্ষক সোহাগের হীন লালসার শিকার হয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারী অভিভাবক
.............................................................................................
পেকুয়ায় বন্দুকযুদ্ধে উপকূলের শীর্ষ জলদস্যু বাদশা নিহত, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার
.............................................................................................
শ্রীপুরে এক ব্যক্তির রহস্যজনক মৃত্যু
.............................................................................................
শ্রীপুরে ওশিন স্পিনিং মিলস শ্রমিকদের বেতন বোনাসের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ
.............................................................................................
শ্রীপুরে প্রতিশ্রুতি রক্ষার অঙ্গীকার করলেন সাংসদ সবুজ
.............................................................................................
শ্রীপুরে উপজেলা সিমানা প্রাচীর নিমার্ণ কাজে নিন্মমানের রড সিমেন্ট ব্যবহার
.............................................................................................
রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির পরিদর্শনে আইসিসি প্রতিনিধি দল
.............................................................................................
শ্রীপুরে জৈনা- শৈলাট সংযোগ সড়কের নাজেহাল অবস্থা
.............................................................................................
তিস্তার দুই পাড়ে বাঁধ নির্মাণ করা হবে - লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক
.............................................................................................
শ্রীপুরে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসে বর্ণ্যাঢ্য র‌্যালী
.............................................................................................
শ্রীপুরে কাওরাইদ রেলক্রসিংয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার
.............................................................................................
শ্রীপুরে দুর্নীতি দমন কমিশনের অর্থায়নে দুর্নীতি এবং মাদক বিরোধী রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা
.............................................................................................
গাজীপুরে বৃদ্ধা প্রতিবন্ধীকে পানিতে ডুবিয়ে হত্যা
.............................................................................................
শ্রীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
.............................................................................................
আগুন নিভাতে গিয়ে শ্রমীকদের মৃত্যু, স্বজনদের দাবি শ্রীপুরে কারখানায় আগুনের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬ ॥
.............................................................................................
কক্সবাজারের টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা সম্রাট হামিদ মেম্বার নিহত
.............................................................................................
গাজীপুরে প্রসূতিদের জিম্মি করে ক্লিনিক মালিকদের অর্থ বাণিজ্য
.............................................................................................
দশদিনেও সন্ধান মেলেনি কালিগঞ্জে অপহৃত রাফিজার
.............................................................................................
পুকুর ও প্রকৃতিতে ঘেরা লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ
.............................................................................................
নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত
.............................................................................................
জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে লালমনিরহাটের শ্রেষ্ঠত্ব সমাচার
.............................................................................................
বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকা থেকে বাদ পড়তে পারে সুন্দরবন
.............................................................................................
পিতার পর এবার পুত্রের মৃত্যু!
.............................................................................................
লালমনিরহাটে পুলিশে স্বচ্ছ নিয়োগে মাইকিং
.............................................................................................
কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মাত্র ১০৩ টাকায় কনস্টেবল নিয়োগ দিচ্ছেন
.............................................................................................
শ্রীপুরে কথিত বন্দুক যুদ্ধে ডাকাত নিহত
.............................................................................................
বাগেরহাটে সব দোকানেই মিলছে গ্যাস সিলিন্ডার, দুর্ঘটনার আশঙ্কা
.............................................................................................
কক্সবাজার শহরে আবাসিক হোটেলে কিশোরীকে আটকিয়ে ধর্ষণ, আটক ১
.............................................................................................
শ্রীপুরে ১৬ কোটি টাকার পৌর সড়ক উন্নয়নকাজের উদ্বোধন
.............................................................................................
ফারুক হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে টাঙ্গাইলে মানবন্ধন
.............................................................................................
ভারতে পাচার গৃহবধু উদ্ধার বাগেরহাট আদালতে স্বামীসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে জবানবন্ধি
.............................................................................................
গাজীপুর সদরে স্বতন্ত্র প্রার্থীকে নির্বাচন থেকে সরেযাওয়ার হুমকি
.............................................................................................
বাগেরহাটে বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা শীর্ষক দিনব্যাপী সেমিনার অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
মহাসড়কে পৌর ময়লা স্তুুপ অপসারণ সময়ের দাবি ময়লার দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ হাজারও পরিবহন যাত্রী
.............................................................................................
শ্রীপুরে পরিত্যক্ত আরডিসি কেন্দ্রের কক্ষগুলো মাদকসেবীদের আস্তানা
.............................................................................................
গাজীপুর সদরে নৌকার গণসংযোগ
.............................................................................................
শ্রীপুরকে আধুনিক ও মানবিক উপশহর গড়তে মাদকের বিরুদ্ধে সকলকে অনড় অবস্থানে থাকার আহব্বান-ইকবাল হোসেন সবুজ এমপি
.............................................................................................
প্রয়াত সাংবাদিকদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত ও কর্মরত সাংবাদিকদের কল্যাণ কামনায় গাজীপুরে সাংবাদিকদের দোয়া ও ইফতার মাহফিল
.............................................................................................
অর্থাভাবে দুই কন্যা শিশুকে হত্যা করেছে বাবা!
.............................................................................................
কক্সবাজারের পোকখালীতে গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু ! ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার।
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

Editor & Publisher: Rtn. Md Reaz Uddin
Corporate Office
53,Modern mansion(8th floor),Motijheel C/A, Dhaka
E-mail:manabadhikarkhabar34@gmail.com,manabadhikarkhabar34@yahoo.com,
Tel:+88-02-9585139
Mobile: +8801978882223 Fax: +88-02-9585140
    2015 @ All Right Reserved By manabadhikarkhabar.com    সম্পাদকীয়    Adviser List

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]