| বাংলার জন্য ক্লিক করুন

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   সারাদেশ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
শ্রীপুরে জৈনা- শৈলাট সংযোগ সড়কের নাজেহাল অবস্থা

গাজীপুর প্রতিনিধি ঃ গাজীপুরে উপজেলার শ্রীপুরের গাজীপুর ইউনিয়নের জৈনা বাজার টু শৈলাট সংযোগ সড়কের নাজেহাল অবস্থা । সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তায় হাটু পানি ।কোনো কোনো স্থানে কোমর পর্যন্ত পানি জমে থাকে । বর্তমানে রাস্তায় হাটু পানি থাকার কারনে রাস্তাটি দিয়ে যানবাহন চলাচল অনুপযোগি হয়ে পরেছে । জৈনা টু শৈলাট আঞ্চলিক সংযোগ সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ ও আশপাশে গড়ে ওঠা ৮ থেকে ১০ টি শিল্প প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন লোড গাড়িসহ সিএনজি ও মোটরবাইক চলাচল করে । রাস্তায় পানি হওয়ার কারনে ঝুঁকি নিয়ে পানিতে ভাসমান রাস্তা দিয়ে চলাচল করছে ঐ এলাকার বাসিন্দারা ।সরেজমিনে (১৪ জুলাই ) রবিবার গিয়ে দেখাযায় বিকল্প রাস্তা না থাকায় জৈনা টু শৈলাট সংযোগ সড়কটি পানিতে ভাসমান থাকায় ঐ রাস্তা দিয়েই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন আট থেকে দশটি শিল্প প্রতিষ্ঠানের কর্মরত শ্রমিক ও শিল্প প্রতিষ্ঠানের মালামাল পরিবহনের ভারি যানবাহনসহ ঐ এলাকার হাজার হাজার জনতা দুভোর্গের স্বিকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত । ২নং গাজীপুর ইউনিয়নের নগরহাওলা গ্রামের সাইফুল ইসলাম বলেন,দর্ঘিদিন এই রাস্তাটি সংস্কার না করার কারনে আমরা সীমাহিন দুভোগের মধ্য দিয়ে রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করছি । সামান্য বৃষ্টিতেই এ রাস্তাটি পানিতে ডুবে যায় । রাস্তা দিয়ে মোট সাইকেল পর্যন্ত নিয়ে চলাচল করা যাচ্ছে না । জৈনা বাজার থেকে শৈলাট পর্যন্ত পুরো রাস্তাই খানাখন্দে ভরা । দশ মিনিটের রাস্তাটি অতিক্রম করতে সময় লাগে প্রায় এক ঘন্টা । ২নং গাজীপুর ইউনিয়নের মৃত আয়েদ আলীর ছেলে সিদ্দিক বলেন , বর্তমানে রাস্তাটি চলাচলের অনুপযোগি । রাস্তাটির বর্তমান যে অবস্থা পায়ে হেঁটে চলাও কষ্টকর । গাজীপুর ইউনিয়নের ভুতুলিয়া গ্রামের হাবিবুর রহমান বলেন শ্রীপুর উপজেলায় জৈনা টু শৈলাট সংযোগ সড়কটির মত নাজেহাল অবস্থা শ্রীপুরে আর অন্য কোথাও নেই । এখনই সময় রাস্তাটি সংস্কারের । গাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য আব্দুল আজিজ বলেন , জৈনা টু শৈলাট সড়কটির নাজেহাল অবস্থা । জনগনের রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করতে খুব কষ্ট হচ্ছে । এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে উপজেলা পরিষদ ও গাজীপুর -৩ আসনের সাংসদকে অবহিত করার পরেও রাস্তাটি সংস্কারের জন্য কোনো ধরনের বরাদ্ধ পাচ্ছি না ।

শ্রীপুরে জৈনা- শৈলাট সংযোগ সড়কের নাজেহাল অবস্থা
                                  

গাজীপুর প্রতিনিধি ঃ গাজীপুরে উপজেলার শ্রীপুরের গাজীপুর ইউনিয়নের জৈনা বাজার টু শৈলাট সংযোগ সড়কের নাজেহাল অবস্থা । সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তায় হাটু পানি ।কোনো কোনো স্থানে কোমর পর্যন্ত পানি জমে থাকে । বর্তমানে রাস্তায় হাটু পানি থাকার কারনে রাস্তাটি দিয়ে যানবাহন চলাচল অনুপযোগি হয়ে পরেছে । জৈনা টু শৈলাট আঞ্চলিক সংযোগ সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ ও আশপাশে গড়ে ওঠা ৮ থেকে ১০ টি শিল্প প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন লোড গাড়িসহ সিএনজি ও মোটরবাইক চলাচল করে । রাস্তায় পানি হওয়ার কারনে ঝুঁকি নিয়ে পানিতে ভাসমান রাস্তা দিয়ে চলাচল করছে ঐ এলাকার বাসিন্দারা ।সরেজমিনে (১৪ জুলাই ) রবিবার গিয়ে দেখাযায় বিকল্প রাস্তা না থাকায় জৈনা টু শৈলাট সংযোগ সড়কটি পানিতে ভাসমান থাকায় ঐ রাস্তা দিয়েই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন আট থেকে দশটি শিল্প প্রতিষ্ঠানের কর্মরত শ্রমিক ও শিল্প প্রতিষ্ঠানের মালামাল পরিবহনের ভারি যানবাহনসহ ঐ এলাকার হাজার হাজার জনতা দুভোর্গের স্বিকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত । ২নং গাজীপুর ইউনিয়নের নগরহাওলা গ্রামের সাইফুল ইসলাম বলেন,দর্ঘিদিন এই রাস্তাটি সংস্কার না করার কারনে আমরা সীমাহিন দুভোগের মধ্য দিয়ে রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করছি । সামান্য বৃষ্টিতেই এ রাস্তাটি পানিতে ডুবে যায় । রাস্তা দিয়ে মোট সাইকেল পর্যন্ত নিয়ে চলাচল করা যাচ্ছে না । জৈনা বাজার থেকে শৈলাট পর্যন্ত পুরো রাস্তাই খানাখন্দে ভরা । দশ মিনিটের রাস্তাটি অতিক্রম করতে সময় লাগে প্রায় এক ঘন্টা । ২নং গাজীপুর ইউনিয়নের মৃত আয়েদ আলীর ছেলে সিদ্দিক বলেন , বর্তমানে রাস্তাটি চলাচলের অনুপযোগি । রাস্তাটির বর্তমান যে অবস্থা পায়ে হেঁটে চলাও কষ্টকর । গাজীপুর ইউনিয়নের ভুতুলিয়া গ্রামের হাবিবুর রহমান বলেন শ্রীপুর উপজেলায় জৈনা টু শৈলাট সংযোগ সড়কটির মত নাজেহাল অবস্থা শ্রীপুরে আর অন্য কোথাও নেই । এখনই সময় রাস্তাটি সংস্কারের । গাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য আব্দুল আজিজ বলেন , জৈনা টু শৈলাট সড়কটির নাজেহাল অবস্থা । জনগনের রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করতে খুব কষ্ট হচ্ছে । এই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে উপজেলা পরিষদ ও গাজীপুর -৩ আসনের সাংসদকে অবহিত করার পরেও রাস্তাটি সংস্কারের জন্য কোনো ধরনের বরাদ্ধ পাচ্ছি না ।

তিস্তার দুই পাড়ে বাঁধ নির্মাণ করা হবে - লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক
                                  

সবুজ আলী আপন,রংপুুর:  প্রায় ৪০কোটি টাকা ব্যয়ে লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর দুই পাড়ে বাঁধ নির্মান করা হবে জানালেন লালমনিরহাটের নবাগত জেলা প্রশাসক  মো. আবু জাফর।একই সাথে লালমনিরহাট - বুড়িমারী   সড়কটি  চারলেনে উন্নীত করার কথাও জানান তিনি। জেলা প্রশাসক বৃহস্পতিবার বিকেলে কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসন সহ বিভিন্নস্তরের মানুষের সাথে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে এসব কথা বলেন।
কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বার্হী অফিসার রবিউল হাসানের  সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি এবং অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মাহবুবুজ্জামান আহমেদ,ভাইস চেয়ারম্যান  কমল কৃষ্ণ সরকার, থানার ওসি আরজু মো. সাজ্জাদ হোসেন,কৃষি   কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম,মদাতী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের,উত্তর বাংলা বিশ্বিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ এএসএম মনওয়ারুল ইসলাম ও মুক্তিযোদ্ধা মহসিন টুলু প্রমুখ।প্রধান অতিথি জেলার উন্নয়নে সবাইকে একসাথে কাজ করার কথা জানিয়ে মাদক নির্মূল,দূর্নীতি প্রতিরোধ ও নদীভাঙ্গন রোধে সবার সহযোগিতা কামনা করেন এবং বন্যাকবলিতের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান।

শ্রীপুরে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসে বর্ণ্যাঢ্য র‌্যালী
                                  

                    গাজীপুরের শ্রীপুরে নানা আনুষ্ঠানিকতায় পালিত হয়েছে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস

 

গাজীপুর প্রতিনিধি: গাজীপুরের শ্রীপুরে নানা আনুষ্ঠানিকতায় পালিত হয়েছে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস। বৃহস্পতিবার ১১জুলাই উপজেলা পরিষদ চত্তর থেকে এক বিশাল বর্ণ্যাঢ্য র‌্যালী বের করা হয়েছে । জনসংখ্যা ও উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সস্মেলনের ২৫ বছর প্রতিশ্রুতির দ্রুত বাস্তবায়ন এ প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালন করা হয়েছে ।
উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের আয়োজনে, দিবসটি পালনের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় উপজেলা পরিষদ চত্তর থেকে এক বর্ন্যাঢ্য র‌্যালী বের হয়। র‌্যালীটি পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষের সামনে এসে শেষ হয়। পরে উপজেলা পরিষদের বিজয় সভাকক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফতেমা তুজ জোহরার সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়াম্যান এড: শামসুল আলম প্রধান বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লুৎফুর নাহার মেজবাহ।আরো উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মইনুল হক খান,পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জিনাত শারমিন,মেডিকেল অফিসার ডা: মনজুরুল আলম, সমাজসেবা কর্মকর্তা মুনজুরুল হক,শ্রীপুর রির্পোটার্স ইউনিটির সভাপতি আবুবকর সিদ্দিক আকন্দ প্রমূখ। আলোচনা সভা শেষে পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রমে বিশেষ অবদানের জন্য উপজেলার শ্রেষ্ঠ পরিবার কল্যান পরিদর্শক ও শ্রেষ্ঠ পরিবার কল্যান সহকারীকে পুরস্কৃত করা হয়।

শ্রীপুরে কাওরাইদ রেলক্রসিংয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার
                                  

                                      রেলক্রসিংয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার 

 

গাজীপুর প্রতিনিধি ঃ গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ বাজারে অবস্থিত একটি মাধ্যমিক ও একটি সরকারি প্রার্থমিক বিদ্যালয়ের প্রায় আড়াই হাজার শিক্ষার্থী এবং কাওরাইদ ও গয়েশপুর এ দুই ইউনিয়নের হাজার হাজার জনতা প্রতিদিন কাওরাইদ লেভেল ক্রসিং দিয়ে জীবণ ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছে ।যে কোনো সময় ঘটে যেতে পারে প্রাণ হানির মত ঘটনা । ঢাকা-ময়মনসিংহ রেল সড়কে কাওরাইদ লেভেল ক্রসিংয়ে দীর্ঘ দিন ধরে সিগনাল বার ও গেইটম্যান নেই । সরেজমিনে গিয়ে গত ৫ জুলাই শুক্রবার জানাযায় , গত কয়েক বছর ধরে কাওরাইদ ও গয়েশপুর এই দুই গ্রামের হাজার হাজার মানুষ সিগনাল বার ও গেইটম্যানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য মানববন্ধন সহ নানামুখি উদ্যেগনিয়েও তারা ব্যার্থ হয়েছেন । কাওরাইদ লেভেল ক্রসিংয়ে ট্রেনে কাটা পরে গত তিন বছর আগে কাওরাইদ কে এন ইচ্চ বিদ্যালয়ের এক ছাত্রী নিহত হয়েছে ।এখানে মাঝে মাঝে লেভেল ক্রসিংয়ে আটকে যাচ্ছে মালবাহী ট্রাক, ট্রলিসহ নানা ধরনের লোড গাড়ী ।সচারাচর ঘটেই যাচ্ছে ছোট খাটো দুর্ঘটনা ।এসব এড়াতে মাঝে মধ্যে আন্ত:নগর ট্রেন সিগনাল দিয়ে থামিয়ে সরানো হচ্ছে আটকে যাওয়া যানবাহন । তাছাড়া রেল সড়কের ধারঘেষে সপ্তাহে দুদিন বাজার বসে । জীবন ঝুঁকি নিয়ে এলাকার ব্যবসায়ীরা ব্যবসা করছে । ট্রেন চলাচলের সময় যে কোনো ধরনের অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটে যেতে পারে । রেল পথের উপর ভাসমান অবস্থায় বেচাকেনা করছেন আপনাদের ভয় করেনা ? এমন প্রশ্নের উত্তরে কাওরাইদ বাজার কাঁচামাল ব্যবসায়ী আব্দুল বাতেন বলেন ট্রেন আসলে আমরা দোকান ছেড়ে চলে যাই, ট্রেন চলে যাওয়ার পরে আমরা আবার দোকানে বসে বেচাকেনা করি । কাওরাইদ বেলদিয়া গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে শারফুল ইসলাম বলেন কয়েক বছর ধরে আমরা শত বার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছি একজন গেইটম্যান ও সিগনালবারের জন্য । গত ২০ জুন কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলাম ঢাকা গামি কমিউটার ট্রেন দাঁড়ানো দেখে সাইকেল নিয়ে লেভেল ক্রসিং দিয়ে পার হতে গেলে হঠাৎ দেখেন ময়মনসিংহগামি তিস্তা দ্রুতগতিতে ময়মনসিংহের উদ্যেশে আসতেছে । অল্পের জন্য তিনি প্রাণে বেঁচে গেলেন ।

কাওরাইদ বাজার এলাকার বাসিন্দা মনিরুজ্জামান রমিজ বলেন , দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে আমরা লেভেল ক্রসিং নিয়ে অনেক আন্দোলন করেছি । কিন্তু ডিজিটাল যুগে আমাদের কথা শুনার যেন কেউ নেই ।

কাওরাইদ এলাকার নুরুল হকের ছেলে আলম বলেন কাওরাইদ লেভেল ক্রসিংয়ে সিগনাল বার বা গেইটম্যান কোনোটিই নেই । সিগনাল বার বা গেইটম্যান না থাকার কারনে অতীতে কয়েকবার বালি ভর্তি ট্রাক পারাপার হতে গিয়ে ট্রেনের সঙ্গে ধাক্কা লেগে দুর্ঘটনার সম্মুখিন হয়েছে । আতঙ্কের মধ্যদিয়ে লেভেল ক্রসিং পার হতে হচ্ছে । কাওরাইদ বাজার ফল ব্যবসায়ী আবু হানিফ জানায় আমরা সারাদিন এ খানে অবস্থান করি ।কওরাইদ লেভেল ক্রসিংয়ে একজন গেইটম্যান ও একটি সিগনালবারের প্রয়োজনীতা আমাদের ছাড়া আর কেউ উপলদ্ধি করতে পারে না ।

কাওরাইদ গয়েশপুর এলাকার মোশারফ হোসেন জানান আমরা প্রতিদিন ঝুঁকি নিয়ে ব্রিজ ও লেভেল ক্রসিং পারাপার হই । কখন যানি বিপদের সম্মুখিন হই মনের ভেতর সব সময় একটা ভিতি কাজ করে । কাওরাইদ এলাকার আরব আলীর ছেলে মারফত আলী জানান , দীর্ঘ দিন যুদ্ধ করেও আজ আমরা ব্যর্থ হয়েছি লেভেল ক্রসিং এর জন্য । এখন সময়ের দাবি কাওরাইদ বাসির দাবিপূরণের । কারণ যতই দিন পার হচ্ছে মানুষের সংখ্যা বেড়েই চলছে । সেই সাথে ট্রেন দুর্ঘটনা হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে । কাওরাইদ ১নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আবু তাহের শেখ জানান বহুদিন ধরে কাওরাইদ বাসি কাওরাইদ বাজার অরক্ষিত লেভেল ক্রসিংয়ে গেইটম্যান ও গেইটবারের জন্য সংগ্রাম করে আসছে । এত সংগ্রামের পরেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না ।

কাওরাইদ ১নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হেলাল উদ্দিন জানায় , প্রাইমারি স্কুলে প্রায় ৮ শত শিক্ষার্থী পড়াশুনা করছে । বেশির ভাগ শিক্ষার্থী বাজারের পশ্চিম পাশ থেকে জীবণ ঝুঁকি নিয়ে অরক্ষিত লেভেন ক্রসিং পার হয়ে বিদ্যালয়ে আসা –যাওয়া করে । আমার স্কুলের সাথেই রয়েছে কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয় । সেখানে প্রায় ১২ শত শিক্ষার্থী পড়াশুনা করছে । যে কোনো সময় ঘটতে পারে ট্রেন দুর্ঘটনার মত ঘটনা । তাই সময় এসেছে এখন দাবি পূরনের । কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক অভিজিৎ রয় বলেন , কয়েক বছর আগে আমাদের স্কুলের এক শিক্ষার্থী ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে । প্রায় অর্ধ মাস পূর্বে আমাদের স্কুলের সহকারি প্রধান শফিকুল ইসলাম দাঁড়ানো ট্রেন দেখে লেভেল ক্রসিং পার হওয়ার সময় অপর দিক থেকে সিগনালবিহীন ট্রেন দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ছিলেন । অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পায় তিনি । ঝুঁকিপূর্ণ পরিবেশের মধ্যদিয়ে আমাদের ছেলে মেয়েদের লেভেল ক্রসিং দিয়ে যাতায়েত করতে হয় । এই ।এলাকার বাসিন্দা হিসেবে আজ আমরা অসহায় ।

কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহমুদুল হাসান নাজমুল বলেন, বেশ কিছুদিন আগে তার বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী লেভেল ক্রিসিং পার হতে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত হয়েছে । একই সাথে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় মিলিয়ে প্রায় আড়াই হাজার শিক্ষার্থী এখানে পড়াশুনা করছে । কোমলমতি এসব শিশূদেও কাওরাইদ রেলস্টেশনের লেভেল ক্রসিং দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হতে হচ্ছে ।

 

কাওরাইদ বাজার কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিক ফকির জানায়, ভাই গরিব মানুষ ভাসমান অবস্থায় কাওরাইদ বাজারে সপ্তাহে দুদিন দোকান বসায় । এতে যে আয় হয় তাদিয়ে তাদের পরিবার চলে । গরিব মানুষের পেটে লাথি দিতে চাচ্ছি না । আমি ইচ্ছে করলে আগামিকালই ভাসমান বাজার বন্ধ করে দিতে পারি ।

কাওরাইদ রেল স্টেশনের স্টেশন মাস্টার আনোয়ার হোসেন বলেন, এ লেভেল ক্রসিংয়ে একবার ট্রেনে কাটা পড়ে ছাত্রী নিহত হয়েছে । কাওরাইদ বাজারে লেভেল ক্রসিংয়ে সিগনাল বার ও গেইটম্যানের প্রয়োজন রয়েছে । এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে । স্টেশনমাস্টার বলেছেন আগামি আগস্টের আগে এ সমস্যা সমাধান করার আশ্বাস দিয়েছেন কর্তৃপক্ষ । রেল পথে ভাসমান বাজারের ব্যাপারে রেল স্টেশন মাস্টার বলেন বাজার তো রফিক ফকির বসিয়েছে । উনাকে একাধিকবার বাজার বিষয়ে বলেছি কিন্তু তিনি কখনোই এ বিষয়ে কর্ণপাত করেননি ।

কাওরাইদ ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আশরাফুল ইসলাম ডালি বলেন , এখানকার সব মানুষ লেভেল ক্রসিংয়ের জন্য দিনের পর দিন ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত ও দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। লেভেল ক্রসিংয়ের আশপাশে একটি কলেজ, একটি মাধ্যমিক, একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটি মাদ্রাসা রয়েছে। লেভেল ক্রসিং দিয়ে প্রতিদিন দূর-দূরান্তের হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে। এছাড়াও এখানে একটি উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র, ইউনিয়ন পরিষদ ও গাজীপুর জেলার বৃহত্তম একটি বাজার রয়েছে

শ্রীপুরে দুর্নীতি দমন কমিশনের অর্থায়নে দুর্নীতি এবং মাদক বিরোধী রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা
                                  

গাজীপুর প্রতিনিধি ঃ সারাদেশের ন্যায় গাজীপুর জেলার শ্রীপুরে দুর্নীতি দমন কমিশনের ২০১৮-১৯ অর্থায়নে শ্রীপুরের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সততা সংঘের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে দুর্নীতি এবং মাদক বিরোধী রচনাও বিতর্ক প্রতিযোগীতা সম্পন্ন হয়েছে । ৭ জুলাই সকাল ১০টায় উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে । সরেজমিনে গিয়ে দেখাযায় উপজেলার টেপিরবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় , হাজী ছোট কলিম উচ্চ বিদ্যালয় , তেলিহাটি উচ্চ বিদ্যালয় , টেংরা আলহাজ্ব নওয়াব আলী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় , মাওনা বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয় , গাজীপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয়, টেপিরবাড়ী আনসার উচ্চ বিদ্যালয় সহ উপজেলার প্রায় ৬২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতি দমন কমিশনের অর্থায়নে এ রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে । টেপিরবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ে সকাল ১০ টায় রচনা প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এ অনুষ্ঠান শুরু করে । উক্ত অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের সিনিয়র সহকারি শিক্ষক আবু নাসির মোল্যার সঞ্চালনায় বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শফিকুল ইসলাম মোড়লের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তেলিহাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল বাতেন সরকার । বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য সচিব ও বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান শিক্ষক জসিম উদ্দিন । তাছাড়া উক্ত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় আরো উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সদস্য আতাউর রহমান, মাহমুদুল হাসান স্বপন, মতিউর রহমান ,বেলাল উদ্দিন, মনিরুজ্জামান , সহকারি প্রধান শিক্ষক মনিরুজ্জামান মৃধা , সিনিয়র শিক্ষক মতিউর রহমান , সেলিম আহম্মেদ , রৌশনা আক্তার জাহান , বাবুর আলী মাস্টার ,রাসেল , কাওছার , আয়েশা আক্তার, সালামা আক্তার সহ প্রমুখ । উক্ত রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরুস্কার তুলেদেন প্রধান অতিথি ও উপস্থিত আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ ।
টেপিরবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক বাবুর আলী মাস্টার জানান, দুর্নীতি এবং মাদক প্রতিরোধী রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আমাদের কোমোলমতি ছেলে মেয়েরা মাদকের কুফল এবং দুর্নীীত কি তা সম্পর্কে স্পষ্ট ধারনা লাভ করবে এবং সমাজ থেকে মাদক ও দুর্নীতি নির্মুলে অগ্রনী ভূমিকা রাখবে বলে আমার দৃঢ বিশ্বাস ।
টেপিরবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জসিম উদ্দিন বলেন এ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা ভাল ,মন্দ তুলনা করতে শিখবে ।
টেপিরবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের মেনেজিং কমিটির সভাপতি শফিকুল ইসলাম মোড়ল বলেন বর্তমান সরকার দুর্নীতি দমনে কঠোর প্রদক্ষেপ গ্রহণ করেছে । আমরা আশা করছি অচিরেই দুর্নীতি দমন করতে সক্ষম হবো ।
শ্রীপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সাইফুল ইসলাম জানান, শ্রীপুরে ৭৩ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হওয়ার জন্য আর্থিক ভরাদ্ধ পেলেও রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা সম্পন্ন হয়েছে মাত্র ৬২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে । প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একটি করে সততার সংঘ রয়েছে । সততার সংঘের সদস্যদের সাথে নিয়ে শ্রীপুরে রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা সম্পন্ন হয়েছে ।

গাজীপুরে বৃদ্ধা প্রতিবন্ধীকে পানিতে ডুবিয়ে হত্যা
                                  

গাজীপুর প্রতিনিধি ঃ গাজীপুরের শ্রীপুর পৌর কড়ই তলা এলাকায় স্থানীয় এক পুকুরে বৃদ্ধা প্রতিবন্ধীকে ডুবিয়ে মারার অভিযোগ পাওয়া গেছে । নিহত প্রতিবন্ধির নাম আছিম উদ্দিন । তিনি গাজীপুরের টঙ্গী থানার পাগার পাঠান পাড়া এলাকার মৃত কুরবান আলীর ছেলে ।পানিতে ডুবিয়ে মারার অভিযোগে বহেরার চালা গ্রামের নবাব আলীর পুত্র আফতাব ও মোতালেবের পুত্র মালেক কে শ্রীপুর থানা পুলিশ গ্রেফতার করেন ।গত ৩ জুলাই বুধবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে ।

খবর পেয়ে টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল পুকুরে ১০ মিনিট খোঁজাখুঁজি করে আছিম উদ্দিনের মরদেহ উদ্ধার করে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আটক ব্যক্তিরা আছিম উদ্দিনকে তাঁর বাড়ির আধা মাইল দূরের একটি পুকুরে নিয়ে ধাক্কা দিয়ে পানিতে ফেলে দেয়। পানিতে পড়ে বারবার চিৎকার করে সাহায্য চাইলেও ওই তিনজন তাতে সাড়া দেয়নি। সাঁতার না জানায় সেখানে আছিম উদ্দিনের মৃত্যু হয়। ঘটনাটি কয়েক শিশু দেখে ফেললে ওই তিন ব্যক্তি সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

শ্রীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
                                  

গাজীপুর প্রতিনিধি ঃ গাজীপুরের শ্রীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই কাঁচামাল ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে । বৃহস্পতিবার সকালে কাঁচামাল বোঝাই টমটমের সাথে অজ্ঞাতনামা গাড়ীর সংর্ঘষে ময়মনসিংহ পল্লি বিদ্যুৎ সমিতি -২ এর সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে । এতে ঘটনা স্থলেই একজনের মৃত্যু হয়েছে অপর জনকে শ্রীপুর হাসপাতালে নেওয়ার পরে মারা যায় । নিহতরা হলেন জামালপুর সদর থানার ছোট নন্দি এলাকার মৃত গফর মিয়ার ছেলে সেলিম (৩৫) এবং শ্রীপুরের মাওনা এলাকার সোবহান মিয়ার ছেলে হাবিব (২৫ ) । প্রত্যক্ষদর্শিরা জানান বৃহস্পতিবার সকালে গফরগাও আঞ্চলিক সড়ক দিয়ে মাওনা চৌরাস্তা থেকে উল্টো পথে যাওয়ার সময় এ ঘটনাটি ঘটে । এ সময় ঘটনা স্থলেই একজনের মৃত্যু হয় ।

মাওনা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন জানান, নিহতের স্বজনদের অভিযোগ না থাকায় ,আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মানবিক কারণে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ স্বজনদের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে ।

 

আগুন নিভাতে গিয়ে শ্রমীকদের মৃত্যু, স্বজনদের দাবি শ্রীপুরে কারখানায় আগুনের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬ ॥
                                  

                                     গাজীপুরের  শ্রীপুরে স্পিনিং মিলসে আগুন

আতাউর রহমান সোহেল ,গাজীপুর প্রতিনিধি: গাজীপুরের  শ্রীপুরে স্পিনিং মিলস আগুনের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬ ।উদ্ধার প্রক্রিয়া চলমান । নিহতের স্বজন ও সহকর্মীদের দাবি আগুন নিভাতে গিয়ে দগ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে ।

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার নয়নপুর বাজার এলাকায় অবস্থিত ফরিদপুর গ্রামে অটো স্পিনিং মিলিস লিমিটেডে তুলার গোডাউনে আগ্নিকান্ডে ঘটনা ঘটেছে । গত ২ জুলাই মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে অটো মিলস এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে । এতে ৬ জন শ্রমীকের প্রাণহানির ঘটনা ঘটে ।

মঙ্গলবার দুপুর সোয়া দুইটার দিকে শ্রীপুরের নয়নপুর এলাকার অটো স্পিনিং কারখানায় অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। কারখানার ব্যাক প্রসেসিং ইউনিটে (তুলা উৎপাদনের প্রাথমিক ইউনিট) আগুনের সুত্রপাত ও পরে তা বিভিন্ন ইউনিটে ছড়িয়ে পড়ে। ফায়ার সার্ভিসের ১৮টি ইউনিট চেষ্টা চালিয়ে মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টা ২২ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।তবে বুধবার সকালে হালকা ধোঁয়া বের হতে দেখাযায়

 গাজীপুরের শ্রীপুরে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ৬ বুধবার বিকেল পর্যন্ত জনের মৃত্যু নিশ্চিত করেছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স।

নিহতরা হলেন ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও উপজেলার উলুন গ্রামের আলাল উদ্দিনের ছেলে রাসেল (৪৫), শ্রীপুর উপজেলার দক্ষিণ ধনুয়া গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে আনোয়ার হোসেন(৩২), গাজীপুর গ্রামের মো. হাসেন আলীর ছেলে শাহ জালাল(২৫), কালিয়াকৈর উপজেলার মৃত শামসুল হকের ছেলে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার সেলিম কবির (৪২), ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার ভূবনকোড়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে আবীর রায়হান (২১) ও পাবনা জেলার আমীনপুর উপজেলার মৃত কেরামত সর্দারের ছেলে সুজন(৩০)।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ সহকারী পরিচালক আক্তারুজ্জামান জানান, পুড়ে যাওয়া কারখানায় মরদেহ উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। বুধবার সকাল ৯টার দিকে তিনটি ও দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দুটি লাশের সন্ধান পাওয়া গেছে। এর আগে আগুন লাগার কিছুক্ষন পর আহত একজনকে হাসপাতালে নেয়ার পর মৃত ঘোষণা করা হয়। নিহতদের স্বজন ও সহকর্মীদের দাবী, আগুন নেভাতে গিয়ে দগ্ধ হয়ে তাদের মৃত্যু হয়।এগুলো উদ্ধারে তৎপরতা চলছে। এ মুহুর্তে তাদের কারও নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি। সব মিলিয়ে মৃতের সংখ্যা এখন ৬।

কারখানার সহকারী ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) নূর জাহান জানান, ঘটনার সময় বি শিফটে মোট ৩’শ শ্রমিক কাজ করছিল। কারখানার দেড়তলা উচ্চতার আধাপাকা ব্যাক প্রসেসিং ইউনিটে আগুন লেগে মুহুর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। তিনি অভিযোগ করেন, ফায়ার সার্ভিসের লোকজনকে খবর দেয়ার পর বিলম্বে ঘটনাস্থলে পৌঁছে। আগুনে কোটি কোটি টাকার মেশিনপত্র ও তুলার বেল পুড়ে গেছে। তারা অনেকটা খামখেয়ালিপনার মাধ্যমে আগুন নিয়ন্ত্রণের কাজ করেন। কারখানার প্রতিবেশী সফিকুল ইসলাম জানান, আগুনে কারখানার চারদিকের দেয়াল ফেটে গেছে। আগুন থেকে রক্ষা পেতে তার মতো অন্য প্রতিবেশীরা বাইরে থেকে কারখানার দেয়ালে পানি ছিটিয়েছেন। সন্ধ্যা ৬টার পর থেকে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন স্বাভাবিক সক্রিয় হয়।সন্ধ্যা ৭ টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের জনবল বৃদ্ধি করতে থাকেন । বাতাশের সাথে আকাশে কালো ধোঁয়া ভেসে বেড়াচ্ছিল । এ সময় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছিল । দূর পাল্লার যাত্রীরা চরম ভোগান্তির স্বিকার হয় । মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে ।

 

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলাম জানান, ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. শাহীনুর ইসলামকে প্রধান করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, পরিচালক শিল্প পুলিশ গাজীপুর এর প্রতিনিধি (উপ-পরিচালক পদমর্যাদার), জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, শ্রীপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসার, গাজীপুরের কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর এর উপ মহাপরিদর্শক এবং গাজীপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক। তাদেরকে আগামী ৭ কর্ম দিবসের মধ্য তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

 

কক্সবাজারের টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা সম্রাট হামিদ মেম্বার নিহত
                                  

 

 

মোঃ জানে আলম সাকি, কক্সবাজার: কক্সবাজারের টেকনাফ সদর ইউপি সদস্য বহুল আলোচিত হামিদ মেম্বার (৪৫) প্রকাশ ডাকাত হামিদ ওরফে ইয়াবা হামিদ পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে। সোমবার মধ্য রাতে টেকনাফ সদরের মহেষখালীয়াপাড়া নৌকা ঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এসময় ৪টি এলজি, ১৭ রাউন্ড শর্টগানের কার্তুজ, ২১ রাউন্ড কার্তুজের খোসা এবং ৬ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে বলে দাবি করেছে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশ।

হামিদ মেম্বার প্রকাশ হামিদ ডাকাত ওই এলাকার মৃত আবুল হাসিম প্রকাশ হাশেমের পুত্র। তিনি বহু মামলার পলাতক আসামি এবং বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার তালিকাভুক্ত ইয়াবা সম্রাট বরে জানা গেছে। টেকনাফ মডেল থানার ওসি বিভিন্ন গণমাধ্যমকে জানান, হামিদ মেম্বার প্রকাশ ডাকাত হামিদকে গ্রেফতারের পর ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকারোক্তি মতে মহেষখালীয়াপাড়া নৌকা ঘাটে ইয়াবা উদ্ধার অভিযানে গেলে তার সহযোগী অস্ত্রধারী ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। এতে ঘটনাস্থলে এসআই স্বপন চন্দ্র দাশ, এএসআই কাজী সাইফ উদ্দিন, কনস্টেবল রয়েল বডুয়া আহত হয়।

পুলিশও ৫০ রাউন্ড গুলি করে। এক পর্যায়ে হামিদ প্রকাশ হামিদ মেম্বার ওরফে হামিদ ডাকাত গুলিবিদ্ধ হন। গুলিবিদ্ধ ডাকাত হামিদকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এরপর তাকে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। টেকনাফ মডেল থানা সূত্রে জানা গেছে, কথিত মাদক ব্যবসায়ী হামিদ মেম্বারের নামে ৫০টিরও বেশি মামলা রয়েছে। হামিদ মেম্বারের মৃত্যুতে এলাকাবাসী প্রশাসনকে স্বাগত জানিয়েছেন।

গাজীপুরে প্রসূতিদের জিম্মি করে ক্লিনিক মালিকদের অর্থ বাণিজ্য
                                  

গাজীপুর প্রতিনিধি ঃ গাজীপুর উপজেলা শ্রীপুরে বিভিন্ন প্রাইভেট হাসপাতাল ও ক্লিনিক মালিকেরা প্রসূতিদেরকে জিম্মি করে অর্থবাণিজ্যর উদ্যেশে চিকিৎসক থেকে শুরু করে প্রাইভেট হাসপাতালগুলো রোগীসহ স্বজনদের নরমালে ভয় দেখিয়ে সিজারে বাধ্য করার অভিযোগ পাওয়া গেছে ।
গাজীপুরের শ্রীপুরে স্বাভাবিক প্রসবের তুলনায় সিজারিয়ান পদ্ধতিতে আশঙ্কাজনক ভাবে সন্তান জন্ম হওয়ার হার বেড়েই চলছে ।গোপনসূত্রে জানাযায়, শ্রীপুরে প্রাইভেট হাসপাতালগুলো কোনো প্রসূতি পেলেই এক শ্রেণীর অসাধু চিকিৎসক থেকে শুরু করে হাসপাতালের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও দালালসহ সকলে মিলে বিভিন্ন অজুহাতে রোগীকে নরমাল ডেলিভারির ব্যাপারে কৌশলে মানসিকভাবে ভীতসন্ত্রস্ত করে তোলেন ।এমনকি নরমালে ভয় দেখিয়ে রোগীকে সিজারে বাধ্য করার অভিযোগ উঠেছে ।এ ছাড়াও সিজারের প্রয়োজন না হলে মা কিংবা নবজাতকের ক্ষতি হওয়ার ভয়ও দেখানো হয়ে থাকে ।আর ঠিক তখনই রোগীর স্বজনরা নিরূপায় হয়ে প্রসূতি ও সুস্থ সন্তানের স্বার্থে সিজারের মাধ্যমে সন্তান প্রসব করাতে বাধ্য হন ।সেই সুযোগ কাজেলাগিয়ে অতিরিক্ত অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে প্রাইভেট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ।পরিসংখ্যান ও বিশেষজ্ঞরা বলছেন , সিজারিয়ান পদ্ধতিতে যেসব নবজাতকের জন্ম হচ্ছে তার মধ্যে ২৫ থেকে ৩০ ভাগ অপ্রয়োজনীয় । সিজারে বাচ্চা প্রসবের ফলে ঝুঁকির মধ্যে থাকছেন মা ও শিশু উভয়েই । শ্রীপুর উপজেলা সরকারি হাসপাতালে প্রতি একশ নবজাতকের মধ্যে শতকরা ৯৩ ভাগ জন্ম স্বাভাবিকভাবে হলেও প্রাইভেট ক্লিনিকগুলোতে সিজারের হার বেশি । অনেক রোগীর স্বজনরা জানেন না সিজারিয়ান পদ্ধতিতে সন্তান জন্ম হওয়ার পর মা ও সন্তান দুজনই দীর্ঘমেয়াদী জটিল রোগে আত্রান্ত হতে পারেন ।
শ্রীপুর উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের আবদার গ্রামের বাসিন্দা সোহেল মিয়া জানান, তাঁর স্ত্রীকে অল্প কিছুদিন পূর্বে মাওনা চৌরাস্তার একটি প্রাইভেট হাসপাতালে আল্ট্রা¯েœা করাতে নিয়ে যাওয়া হলে ডাক্তার বলেন তাঁর গর্ভের সন্তান বড় হয়ে গেছে এজন্য নরমালে সম্ভব নয় সিজারে বাচ্চা প্রসব করাতে হবে। তাঁদের নরমালে ভয় দেখিয়ে সিজারে বাচ্চা প্রসব করাতে বাধ্য করেছিল ।বর্তমানে সোহেলের স্ত্রী বিভিন্ন জটিল সমস্যায় ভোগছেন ।
শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য পরিসংখ্যান অফিস দেওয়া তথ্য মতে ,২০১৮ সালে প্রাইভেট হাসপাতাল ও ক্লিনিকে সন্তান প্রসবের জন্য ভর্তি হয়েছিলেন দুই হাজার দুইশত ৩২জন প্রসূতি । তাদের মধ্যে এক হাজার পাঁচশত ৬৮ জনের সিজারে সন্তান প্রসব হয়েছে । আর মাত্র ৬৬৪জনের হয়েছে নরমাল প্রসব । তাছাড়া ২০১৯ সালের মে মাস পর্যন্ত মোট ভর্তি হয়েছিল ৮২০ জন প্রসূতি । তার মধ্যে সিজারে সন্তান প্রসব হয়েছে ৫৭৩ জন আর নরমালে মাত্র ২৪৭ জন । প্রাইভেটের তুলনায় শ্রীপুর উপজেলা হাসপাতালে ২০১৮ ও ২০১৯ সালের মে মাস পর্যন্ত মোট সন্তান প্রসবের জন্য ভতি হয়েছিল সর্বমোট ৩৮১জন প্রসূতি । তার মধ্যে নরমাল ডেলিভারি হয়েছে ৩২৫ জনের আর সিজারে হয়েছে মাত্র ৫৬ জন প্রসতি ।
সরেজমিন ঘুরে একাধিক ভোক্তভোগীর নিকট থেকে জানাযায় , সিজারিয়ান সেকশন এখন বেশিরভাগ প্রাইভেট হাসপাতাল ও ক্লিনিকের বড় ও প্রধান ব্যবসায় পরিণত হয়েছে । এ প্রবণতা রোধতো করাই যাচ্ছে না বরং দিন দিন প্রাইভেট হাসপাতাল –ক্লিনিকগুলো আরো পেরোয়া হয়ে উঠছে । একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায় নরমাল ডেলিবারির চেয়ে সিজারিয়ানে সংশ্লিষ্ঠ চিকিৎসক অনেক বেশি টাকা পান । তাছাড়া প্রাইভেট হাসপাতালে কোনো প্রসূতি গেলে অযথায় অপ্রয়োজনীয় টেস্ট দিয়ে ডাক্তারগন হাসপাতাল কৃর্তপক্ষকে অধিক টাকা আয়ের পথ বের দিচ্ছে ।কারণ প্রসূতি মাকে বেশি সময় হাসপাতালে থাকতে হচ্ছে । আর এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে ঔষুধ, অপারেশন সহ অন্যান খরচও বেশি আদায় করা হচ্ছে ।

শ্রীপুর উপজেলা প্রাইভেট হাসপাতাল ও ডাইয়াগোনেস্টিক সেন্টারের মালিক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বলেন,শ্রীপুরে কোনো প্রাইভেট হাসপাতালে অজ্ঞাণ ডাক্তার নেই । অজ্ঞাণ ডাক্তার ছাড়া সিজার করা অসম্ভব । আমরা অজ্ঞাণ ডাক্তার ও সার্জন কল করে সিজার সম্পর্ণ করি ।রৌগির স্বজন, অজ্ঞান ডাক্তার ও সার্জনের উপস্থিতিতে একটি সম্মতিপত্রে স্বাক্ষরের মাধ্যমে সিজার করা হয় ।কিন্তু অসৎ উপায়ে অর্থ উপার্যন করতে যদি কোনো হাসপাতাল মালিক সম্মতিপত্র ছাড়া সিজার করে আর এত কোনো জামেলা হলে এর সম্পূর্ণ দায়ভার ঐ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে নিতে হবে । অবৈধভাবে অর্থ উপাজনের উদ্দেশ্য এমন কাজ করলে আমরা জানার সাথে সাথে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো ।
শ্রীপুর উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা আমান উল্লাহ বলেন,২০১৮ সালে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্র ২৩৭ জন প্রসূতি ভর্তি হয়েছিল ।তার মধ্যে নরমাল প্রসব ২২০ আর সিজারে ১৭ জন বাচ্চা প্রসব করেন । অপরদিকে প্রাইভেট হাসপাতালগুলোতে সিজারে ১৫৬৮ জন ও নরমালে ৬৬৪ জন ।সরকারি হাসপাতালের তুলনায় প্রাইভেট হাসপাতালে সিজারের সংখ্যা বেশি । প্রাইভেট হাসপাতালগুলো রোগীকে সিজারে ড্রাইভ করে । কারণ সিজারে অতিরিক্ত অর্থ আসে ।
এ ব্যাপারে প্রসূতি , স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ ও সার্জন ডা: জহিরুন্নেছা রেনু বলেন শিশু ও মায়ের অবস্থার ওপর নির্ভর করে সিজার কিংবা ডেলিভারি নির্ধারণ করা হয় । যদি কোনো মায়ের প্রথম সন্তান সিজারে জন্ম হয়,তাহলে পরবর্তীতে বাকি সন্তানও সিজারে নির্ভর হতে হয় । তিনি আরো বলেন সিজারে বাচ্চা হলে নারী তার স্বাভাবিক জীবণ থেকে বঞ্চিত হন ।
শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: মইনুল হক খান বলেন ,আমাদের কোনো অজ্ঞাণের ডাক্তার নেই । তাই সকল ব্যবস্থাপনা থাকা স্বতেও আমরা সিজার করতে পারি না । আর ঐ সময় রিক্র নিয়ে যদি কোনো রোগীকে ট্যায়াল দেই তবে বাচ্চাটা খারাপ হবে । যদি বুঝি কোনো প্রসূতির স্বাভাবিকের চেয়ে একটু বেশি সময় লাগবে তখন রোগীকে আমরা কাউনছিলিং করি যে আমাদের কোনো অজ্ঞানবিদ নেই ।এ কথা শুনার পরে কোনো রোগী সহজে রাখেনা । যদি তারা শর্ত মানে তবে আমরা সিজার করি নতবা অন্যত্র টান্সফার করি ।

দশদিনেও সন্ধান মেলেনি কালিগঞ্জে অপহৃত রাফিজার
                                  

রফিকুল ইসলাম, সাতক্ষীরাঃ কালিগঞ্জের দিয়া গ্রামের রাফিজা নামক এক গৃহবধূ ১৯ জুন অপহরণ হয়। অপহরণের ৬ দিন পর গত ২৫ জুন রাফিজার ভাই আল আমিন হোসেন বাদী হয়ে রাফিজার স্বামী সাগরসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে কালিগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১১(গ), ৭/৩০ ধারায় ১৮ নং মামলা দায়ের করে। রাফিজা দেয়া গ্রামের আরিফুজ্জামান সাগরের স্ত্রী ও শ্যামনগর উপজেলার সোরা গ্রামের বাকপ্রতিবন্দী অসহায় হাফিজুর রহমান মোল্যার কন্যা।
কালিগঞ্জ থানার মামলা সুত্রে ও ঘটনার অনুসন্ধানে জানা গেছে, প্রায় ৯/১০ মাস আগে কালিগঞ্জ উপজেলার মথুরেশপুর ইউনিয়নের দেয়া গ্রামের নাজিমুদ্দীনের ছেলে আরিফুজ্জামান সাগরের সাথে শরিয়ত মোতাবেক রাফিজার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে সাগর ও তার পরিবারের সদস্যরা রাফিজাকে মোটা অংকের টাকা যৌতুকের দাবীতে প্রায়ই নির্যাতন করে আসছিলো। রাফিজার অসহয় প্রতিবন্ধী পিতা যৌতুকের টাকা না দিতে পারায় নানান ফন্দী আটতে থাকে। একপর্যায়ে সুকৌশলে রাফিজা কে আড়াল করে বাড়ি থেকে না বলে চলে গেছে মর্মে প্রচার করতে থাকে। ঘটনাটি ১৯ জুন ২০১৯ তারিখের। রাফিজা’র ভাই আল আমিন অভিযোগ করে বলেন ঘটনার দিন সাগর ও তার দলবল রাফিজাকে অপহরণ করে অজ্ঞত স্থানে আটকে রেখেছে। এবং অপহরণের ঘটনাটি ভিন্নখাতে নিতে অপ প্রচার করছে।
মামলার বাদী তার মামলায় আরও বলেন,আসামীরা পরিকল্পিত ভাবে রাফিজাকে আড়াল করে রেখেছে। আটক করে রিমান্ডে নিলেই তাদের মাধ্যমে রাফিজা উদ্ধার হবে । স্বামী সাগর নিজেই রাফিজা নিখোঁজের বিষয়টি বেশি প্রচার করছে। এমনকি নিখোঁজ হওয়ার প্রচারের সাথে সাথে সাগর কালিগজ্ঞ থানায় একটা মিসিং ডায়েরী করে। এবং তার বাহিনীকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে নির্দেশ দেয়।
এছাড়াও বাদী পক্ষের সর্বক্ষণ দৃষ্টিতে রাখাসহ বিভিন্ন রকম ভয়ভীতি দেখানোর ও অভিযোগ করেন। অপর দিকে রাফিজার ভাই একটি অভিযোগ দায়ের করে। অনুসন্ধানে আরও জানাগেছে, রাফিজা আরিফুজ্জামান সাগরের ২য় স্ত্রী। তার ১ম স্ত্রী পরকিয়ার ফাঁদে পড়ে অন্যের হাতধরে চলে গেলে রাফিজার সাথে উভয় পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে হয়। বেশ কিছু দিন যাবত সাগর তার ১ম স্ত্রীর সাথে পুনরায় সম্পর্ক তৈরি করে এবং তাদের মেলা মেশার ছবি মোবাইলে ধারণ করে রাফিজাকে দেখালে রাফিজা প্রতিবাদ করে। তাতেই সাগর রাগান্বিত হয়ে রাফিজাকে তার জীবন থেকে সরিয়ে দেয়ার কৌশল খুজতে থাকে। এ ঘটনা রাফিজা তার মাকে জানালে সাগর ক্ষিপ্ত হয়ে ওই দিন রাফিজাকে ব্যাপক মারপিট করে বলে জানান রাফিজার মা ।
ঘটনার বিষয়ে কালিগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আজিজুর রহমান খাঁনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন প্রকৃত ঘটনার তদন্ত, ভিকটিম উদ্ধার ও আসামী গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে। খুব দ্রুত ভিকটিম উদ্ধার ও দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

পুকুর ও প্রকৃতিতে ঘেরা লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ
                                  

সবুজ আলী আপন,রংপুর : গ্রাম বাংলাার অপরূপ প্রকৃতি আর মাছে ভরা পুকুরে বেষ্টিত লালমনিরহাটের ঐতিহ্যবাহী ও প্রাচীনতম কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ।উপজেলার প্রাণকেন্দ্র তুষভান্ডারে অবস্থিত ওই উপজেলা পরিষদ এলাকাটিতে আছে ঐতিহ্যবাহী জমিদার বাড়ি,এরশাদ আমলে নির্মিত কোর্ট ও শিশুপার্ক। কালের বিবর্তন ও কার্যক্রমহীনতায় এর কোনো কোনোটি হয়ে পরেছে অচেনা। তবে ইতোমধ্যে যোগ হয়েছে ফায়ার স্টেশন, করিম উদ্দিন স্মৃতি আউটডোর গেমস ( ক্রীড়া সংস্থা), প্রেসক্লাব ভবন,অডিটোরিয়াম সহ কৃষি,শিক্ষা ও নির্বাচন অফিসের নতুন ভবন। রয়েছে ৩ টি সরকারী পুকুর যার মধ্যে স্থানীয়দের কাছে ১ টি ঘাটবাঁধা দীঘি, একটি পশু হাসপাতালের দীঘি এবং অপরটি সাবুর দিঘি নামে পরিচিত। বিদ্যমান পুকুরগুলোর সংস্কার সহ পাড় সংরক্ষণ ও বৃক্ষরোপণ করা গেলে উপজেলা পরিষদ এলাকাটি আরো সমৃদ্ধ,দর্শনীয় ও উন্নত হবে বলে মনে করেন এলাকাবাসী।

নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত
                                  

                          

জেলা প্রতিনিধি, বরগুনা:  দেশব্যাপী আলোচিত বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডে দায়ের করা মামলার প্রধান অভিযুক্ত নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার ভোররাতে বরগুনার পুরাকাটা এলাকায় বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নয়ন বন্ডের নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরগুনার পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন।

 নিহত নয়ন বন্ড বরগুনা পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের পশ্চিম কলেজ রোড এলাকার মৃত মো. আবুবক্কর সিদ্দিকের ছেলে এবং রিফাত শরীফ হত্যা মামলার এক নম্বর আসামি।

পুলিশ জানিয়েছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাব্বির হোসেন নয়ন ওরফে নয়ন বন্ডকে গ্রেফতার করতে বরগুনা সদর উপজেলার বুড়ির চর ইউনিয়নের পুরাকাটা নামক এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশের ওপর গুলি চালায় নয়ন বন্ড ও তার সহযোগীরা। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়।

গোলাগুলির এক পর্যায়ে নয়ন বন্ড বাহিনী পিছু হটলে ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে নয়ন বন্ডের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি, দুটি শর্টগানের গুলির খোসা এবং তিনটি দেশীয় ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন

নয়ন বন্ডের বিরুদ্ধে আটটি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এসব মামলায় নয়ন বন্ডকে অভিযুক্ত করে বিভিন্ন সময় আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে পুলিশ। এসব মামলার মধ্যে দুটি মাদক মামলা, একটি অস্ত্র মামলা এবং হত্যাচেষ্টাসহ পাঁচটি মারামারির মামলা রয়েছে।

 

উল্লেখ্য, গত বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে স্ত্রী আয়েশাকে বরগুনা সরকারি কলেজে নিয়ে যান রিফাত। কলেজ থেকে ফেরার পথে মূল ফটকে নয়ন, রিফাত ফরাজীসহ দুই যুবক রিফাত শরীফের ওপর হামলা চালায়। এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে রিফাত শরীফকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে তারা। রিফাত শরীফের স্ত্রী আয়েশা দুর্বৃত্তদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেন।

কিন্তু কিছুতেই হামলাকারীদের থামানো যায়নি। তারা রিফাত শরীফকে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে চলে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন রিফাতকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে রিফাত শরীফের মৃত্যু হয়।

জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে লালমনিরহাটের শ্রেষ্ঠত্ব সমাচার
                                  

সবুজ আলী আপন,রংপুর: লালমনিরহাটে জেলা পর্যায়ে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৯ এর বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় শ্রেষ্ঠত্বের খবর পাওয়া  গেছে।জেলা শিক্ষা অফিস সুত্র অনুযায়ী জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারীরা হলেন শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী, মাধ্যমিক বিদ্যালয়,তাসনুভা ইসলাম মেধা, ১০ম শ্রেণি, ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, সদর।মাদ্রাসায় মো.সালাউজ্জামান, ৮ম শ্রেণি, আউলিয়ারহাট কাজি নিজামীয়া দাখিল মাদ্রাসা, পাটগ্রাম। কারিগরি কলেজে এস.এম এরফানুল হক অলি, একাদশ শ্রেণি, লালমনিরহাট টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ, সদর। কলেজে সুজন কুমার রায়, উত্তর বাংলা কলেজ, কালীগঞ্জ। শ্রেষ্ঠ শ্রেণি শিক্ষক, মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মো.আব্দুল হাকিম, সহকারী শিক্ষক, তুষভান্ডার আরএমএমপি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, কালীগঞ্জ। মাদ্রাসায় মো.আশরাফুজ্জামান মন্ডল, সহকারী শিক্ষক, উত্তর গোবধা দাখিল মাদ্রাসা, আদিতমারী। কারিগরি কলেজে মো.আব্দুল মান্নান, প্রভাষক, লালমনিরহাট টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ, সদর। কলেজে মো.জাহাঙ্গীর আলম, লালমনিরহাট সরকারী কলেজ, সদর। শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান,মাধ্যমিক বিদ্যালয়, তিস্তা কে আর খাদেম উচ্চ বিদ্যালয়, সদর মাদ্রাসা,আউলিয়ারহাট কাজি নিজামীয়া দাখিল মাদ্রাসা, পাটগ্রাম। কারিগরি কলেজ,শেখ শফি উদ্দিন কমার্স কলেজ, সদর। কলেজ,সরকারি করিম উদ্দিন পাবলিক কলেজ, কালীগঞ্জ। শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান,মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে মো.রাজিবুর রহমান, প্রধান শিক্ষক, গিয়াস উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়, সদর। মাদ্রাসায় মো.মোসলেম উদ্দিন, অধ্যক্ষ, লালমনিরহাট নেছারিয়া কামিল মাদ্রাসা, সদর। কারিগরি কলেজে মো.এন্তাজুর রহমান, অধ্যক্ষ, শেখ শফি উদ্দিন কমার্স কলেজ, সদর। কলেজে মো.শরওয়ার আলম, অধ্যক্ষ, মহিষখোচা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ, আদিতমারী। শ্রেষ্ঠ স্কাউট শিক্ষার্থী,মো. রাগীব ইয়াসির, ৮ম শ্রেণি, সরকারি আদিতমারী জিএস মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, আদিতমারী। শিক্ষক,মো. আনোয়ারুল হক খান, সহকারী শিক্ষক, কদমতলা উচ্চ বিদ্যালয়, সদর। গ্রুপ,সরকারি আদিতমারী জিএস মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, আদিতমারী। শ্রেষ্ঠ গার্লস গাইড গ্রুপ,লালমনিরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, সদর। শ্রেষ্ঠ রোভার শিক্ষার্থী,মো,আব্দুল মালেক, লালমনিরহাট সরকারি কলেজ, সদর। শিক্ষক,মো.আব্দুল লতিফ, ধরলা মুক্ত, সদর। গ্রুপ,ধরলা মুক্ত, সদর।শ্রেষ্ঠ বিএনসিসি শিক্ষক,মো.আশরাউল হক, সহযোগি অধ্যাপক, লালমনিরহাট সরকারি কলেজ, সদর।এছাড়াও সাংস্কৃতিক বিভিন্ন বিষয়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে বেশ কিছু শিক্ষার্থী। 

বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকা থেকে বাদ পড়তে পারে সুন্দরবন
                                  

রফিকুল ইসলাম, সাতক্ষীরাঃ সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির সহ-সভাপতি সুলতানা কামাল বলেছেন, ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকা থেকে বাদ পড়তে পারে সুন্দরবন। সারা বিশ্বের দেশ ও জাতি হিসেবে আমাদের জন্য এটি একটি বড় অযোগ্যতা, ব্যর্থতা ও লজ্জাকর।

গত ২৮ জুন শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটি আয়োজিত সুন্দরবন সুরক্ষায় ইউনেস্কোর সর্বশেষ সুপারিশ বনের প্রতি সরকারের অবহেলা ও সংশ্লিষ্ট বিষয়াদি শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

সুলতানা কামাল বলেন, আগামী ৩০ জুন থেকে ১০ জুলাই আজারবাইজানের রাজধানী বাকু শহরে ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্য কমিটি ৪৩তম সভা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। উক্ত সভায় বিশ্ব ঐতিহ্য কেন্দ্রের সুপারিশ সমূহের উপর আলোচনা ও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে। সুন্দরবন বিষয়ে কেন্দ্রের সুপারিশ যদি কমিটি চূড়ান্ত হিসেবে গ্রহণ করে তাহলে সুন্দরবন তার বর্তমান বিশ্ব ঐতিহ্যের সম্মান হারাবে।

সুন্দরবন রক্ষার ব্যাপারে তিনি বলেন, আমাদের সংবিধানে স্পষ্ট বলা আছে আমাদের দেশে যে সম্পদ আছে তার মালিক হচ্ছে জনগণ। শুধুমাত্র সরকারের ইচ্ছার প্রেক্ষিতে এদেশের কোন সম্পদের উপর সিদ্ধান্ত নেওয়া যায় না। জনগণের আপত্তির মুখে যদি এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় তা অসাংবিধানিক।

একটি গণতান্ত্রিক দেশে সরকার কোন ধরনের আন্দোলনকে অবজ্ঞা করতে পারেনা এমন কথা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, সুন্দরবন রক্ষায় এখনই কোন আল্টিমেটামে আমরা যাবো না। এখনো সময় আছে। এর উত্তরে আমরা ১৩ টা গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছি। দেড় বছর আমরা সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কাছে এই প্রতিবেদন হস্তান্তর করার পরেও কোন ধরনের প্রতুত্তর পাইনি।

সুন্দরবন রক্ষার ব্যাপারে সরকারের সহায়তা চেয়ে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা বলেন, আমরা চাই সরকার তার ভুল অবস্থান থেকে সরে এসে রামপাল প্রকল্প বাতিল করুক। বন বিরোধী সকল স্থাপনা উৎখাত করুক। বিজ্ঞানসম্মত ভাবে যথেষ্ট পরিমাণে কয়লার বিকল্প উপায়ে বিদ্যুৎ তৈরি করুন।

সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেন, সরকার রামপাল নিয়ে মিথ্যাচার করেছে। বন্ধুত্বের নামে যে রামপাল প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয় তবে হতে পারে সেই বন্ধুত্ব বৈরিতার সম্পর্কে রুপ নিতে পারে।

পিতার পর এবার পুত্রের মৃত্যু!
                                  

               লালমনিরহাটে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত সেই পরিবারগুলোর আহাজারি থামছেইনা

 

সবুজ আলী আপন,রংপুর: গত ২৫ ও ২৬ জুন লালমনিরহাটের আদিতমারীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত পরিবারগুলোর সদস্যদের আহাজারি থামছেইনা। উপরন্তু দুর্ঘটনায় নিহত কাকিনা এলাকার অসহায় দিনমজুর  নান্দু চন্দ্রের পুলিশ হতে ইচ্ছুক পুত্র (ওই দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত)কলেজ ছাত্র পূর্ণ চন্দ্রের রংপুর মেডিকেলে বুধবার রাতে মৃত্যু ঘটায় যোগ হয়েছে গভীর শোকের মাতম। এতে দুই দিনের সড়ক দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা দাড়ালো ৪ জন। মৃত অপর দুজনের একজন অটোচালক কাকিনার রবিউল ইসলাম এবং অপর জন কমলাবাড়ির চন্দনপাট এলাকার মাদ্রাসা ছাত্র এনামুল হক।
বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) সরেজমিন দূর্ঘটনায় নিহতদের বাড়ীতে গিয়ে দেখা যায় শোকে পাগলপ্রায় পরিবারের সদস্যদের নানা বিলাপ।  প্রায় বাকহীন এনামুল ও পূর্ণ চন্দ্রের মা`কে স্যালাইন লাগিয়ে শায়িত করে রাখা হয়েছে বিছানায়। সাংবাদিক দেখেই প্রিয়জন ও নাড়ীছেঁড়া ধনের মর্মান্তিক দূর্ঘটনার কথা মনে পড়তেই হাউমাউ করে কেঁদে কিছু বলার চেষ্টা করলেই পাশে থাকা লোকজনের কথা না বলার অনুরোধ গিলতে হয় তাঁদের। পরক্ষনেই আহাজারী করে জন্মদাত্রী মাতার না বলা কথা  বির বির করে জানান প্রতিবেশী স্বজন আর পরিবারের দূর্ভাগা সদস্যরা।পরিবারের উপার্জনক্ষম আর আঁদরের ধনকে হারিয়ে আগামী দিনে চরম বিপাক ও হতাশার সাঁগরে গভীর  নিমজ্জিত তারা।  একই অবস্থা নিহত অটোচালক রবিউল এর পরিবারেও। ফ্যাল ফ্যাল করে তাকিয়ে আছে বৃদ্ধ বাবা-মা আর আদরের ২ সন্তান। পরিবারে কী দুঃখের ঘনঘটা তা যেন বুঝে আসতেছেনা অবোধ ওই শিশুদের। প্রতিবেশী পরিজনদের সহ কেউই যেন মেনে নিতে পারছেনা এমন হৃদয় বিদারক ঘটনা। এদিকে একই দূর্ঘটনায় হাসপাতালে  মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়া কাকিনা এলাকার হতাহতদের চিকিৎসা সহায়তায় স্থানীয় মাদ্রাসা শিক্ষক মফিজুর রহমান বাবুল সহ এলাকাবাসীর অনেকেই স্বপ্রণোদিত হয়ে নিয়েছেন উদ্যোগও। কাকিনা এলাকা থেকে দূর্ঘটনায় নিহত পরিবারগুলোর দূরাবস্থার বিষয়ে তাৎক্ষনিক মোবাইল ফোনে  কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.রবিউল হাসানের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি নিহতদের পরিবারদের পক্ষ থেকে  উপজেলা প্রশাসনকে তথ্য প্রদানে যোগাযোগের কথা জানান। মর্মান্তিক এ দূর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর পাশে দাঁড়াতে প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধি সহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানান এলাকাবাসী। 


   Page 1 of 11
     সারাদেশ
শ্রীপুরে জৈনা- শৈলাট সংযোগ সড়কের নাজেহাল অবস্থা
.............................................................................................
তিস্তার দুই পাড়ে বাঁধ নির্মাণ করা হবে - লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক
.............................................................................................
শ্রীপুরে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসে বর্ণ্যাঢ্য র‌্যালী
.............................................................................................
শ্রীপুরে কাওরাইদ রেলক্রসিংয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার
.............................................................................................
শ্রীপুরে দুর্নীতি দমন কমিশনের অর্থায়নে দুর্নীতি এবং মাদক বিরোধী রচনা ও বিতর্ক প্রতিযোগিতা
.............................................................................................
গাজীপুরে বৃদ্ধা প্রতিবন্ধীকে পানিতে ডুবিয়ে হত্যা
.............................................................................................
শ্রীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
.............................................................................................
আগুন নিভাতে গিয়ে শ্রমীকদের মৃত্যু, স্বজনদের দাবি শ্রীপুরে কারখানায় আগুনের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬ ॥
.............................................................................................
কক্সবাজারের টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা সম্রাট হামিদ মেম্বার নিহত
.............................................................................................
গাজীপুরে প্রসূতিদের জিম্মি করে ক্লিনিক মালিকদের অর্থ বাণিজ্য
.............................................................................................
দশদিনেও সন্ধান মেলেনি কালিগঞ্জে অপহৃত রাফিজার
.............................................................................................
পুকুর ও প্রকৃতিতে ঘেরা লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ
.............................................................................................
নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত
.............................................................................................
জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে লালমনিরহাটের শ্রেষ্ঠত্ব সমাচার
.............................................................................................
বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকা থেকে বাদ পড়তে পারে সুন্দরবন
.............................................................................................
পিতার পর এবার পুত্রের মৃত্যু!
.............................................................................................
লালমনিরহাটে পুলিশে স্বচ্ছ নিয়োগে মাইকিং
.............................................................................................
কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মাত্র ১০৩ টাকায় কনস্টেবল নিয়োগ দিচ্ছেন
.............................................................................................
শ্রীপুরে কথিত বন্দুক যুদ্ধে ডাকাত নিহত
.............................................................................................
বাগেরহাটে সব দোকানেই মিলছে গ্যাস সিলিন্ডার, দুর্ঘটনার আশঙ্কা
.............................................................................................
কক্সবাজার শহরে আবাসিক হোটেলে কিশোরীকে আটকিয়ে ধর্ষণ, আটক ১
.............................................................................................
শ্রীপুরে ১৬ কোটি টাকার পৌর সড়ক উন্নয়নকাজের উদ্বোধন
.............................................................................................
ফারুক হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে টাঙ্গাইলে মানবন্ধন
.............................................................................................
ভারতে পাচার গৃহবধু উদ্ধার বাগেরহাট আদালতে স্বামীসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে জবানবন্ধি
.............................................................................................
গাজীপুর সদরে স্বতন্ত্র প্রার্থীকে নির্বাচন থেকে সরেযাওয়ার হুমকি
.............................................................................................
বাগেরহাটে বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা শীর্ষক দিনব্যাপী সেমিনার অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
মহাসড়কে পৌর ময়লা স্তুুপ অপসারণ সময়ের দাবি ময়লার দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ হাজারও পরিবহন যাত্রী
.............................................................................................
শ্রীপুরে পরিত্যক্ত আরডিসি কেন্দ্রের কক্ষগুলো মাদকসেবীদের আস্তানা
.............................................................................................
গাজীপুর সদরে নৌকার গণসংযোগ
.............................................................................................
শ্রীপুরকে আধুনিক ও মানবিক উপশহর গড়তে মাদকের বিরুদ্ধে সকলকে অনড় অবস্থানে থাকার আহব্বান-ইকবাল হোসেন সবুজ এমপি
.............................................................................................
প্রয়াত সাংবাদিকদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত ও কর্মরত সাংবাদিকদের কল্যাণ কামনায় গাজীপুরে সাংবাদিকদের দোয়া ও ইফতার মাহফিল
.............................................................................................
অর্থাভাবে দুই কন্যা শিশুকে হত্যা করেছে বাবা!
.............................................................................................
কক্সবাজারের পোকখালীতে গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু ! ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার।
.............................................................................................
শ্রীপুরে প্রস্তাবিত ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা কলেজ’ স্থাপনের উদ্যোগ শিক্ষক,সূধীজন ও সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা
.............................................................................................
শ্রীপুরে তথ্য অধিকার আইন বিষয়ক জনঅবহিতকরন সভা অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
মোরেলগঞ্জে খড়ের গাদায় অগ্নিসংযোগ মামলার ভয়ে এলাকা পুরুষ শূন্য
.............................................................................................
সাতক্ষীরায় কয়েক কোটি টাকা নিয়ে সমিতি উধাও
.............................................................................................
মিয়ানমারের নির্মম নির্যাতনের কথা ভুলবে না বিশ্ব
.............................................................................................
কক্সবাজার শহরে র‌্যাবের সাথে‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
.............................................................................................
কক্সবাজারের ঈদগাঁওতে দাখিলে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী নিহত ॥ বাসে আগুন-সড়ক অবরোধ
.............................................................................................
কচুয়া প্রেসক্লাবের ৩ যুগপূর্তি উৎসব অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
দুই হাত-দুই পা কাটা, তবু মানুষ হওয়ার স্বপ্ন দেখছে কক্সবাজারের মহেশখালীর সালাহ্ উদ্দীন
.............................................................................................
শ্রীপুরে স্কুলে স্কুলে চলছে অনৈতিক পরীক্ষা
.............................................................................................
শ্রীপুরে কিশোর-কিশোরীদের সচেতনতা বিষয়ক সভা
.............................................................................................
সাতক্ষীরায় ৭উপজেলা পরিষদ নির্বাচন// ৫৯৭ টি কেন্দ্রে ভোটের ফলাফল
.............................................................................................
শ্রীপুর উপজেলাকে আধুনিক ও মাণবিক উপ-শহর হিসেবে গড়তে চান নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান সামসুল আলম
.............................................................................................
জাতীয় মানবাধিকার কমিশন চেয়ারম্যানের কক্সবাজার কারাগার পরিদর্শন
.............................................................................................
নাটোরের সিংড়ায় শীতবস্ত্র বিতরণ
.............................................................................................
রংপুরে অ্যাডভোকেট রথীশ হত্যার রায় : স্ত্রী স্নিগ্ধার মৃত্যুদন্ড
.............................................................................................
সম্পাদকের পিতা আবদুল হামিদের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী পালিত
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

Editor & Publisher: Rtn. Md Reaz Uddin
Corporate Office
53,Modern mansion(8th floor),Motijheel C/A, Dhaka
E-mail:manabadhikarkhabar34@gmail.com,manabadhikarkhabar34@yahoo.com,
Tel:+88-02-9585139
Mobile: +8801978882223 Fax: +88-02-9585140
    2015 @ All Right Reserved By manabadhikarkhabar.com    সম্পাদকীয়    Adviser List

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]