| বাংলার জন্য ক্লিক করুন

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   সারাদেশ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
শ্রীপুরে লেভেল ক্রসিংয়ে জনতার ঝুঁকিপূর্ণ পাড়াপার

॥ আতাউর রহমান সোহেল রানা, গাজীপুর ॥

গাজীপুরের শ্রীপুরে গেইটম্যান না থাকায় শ্রীপুর উপজেলার দুটি লেভেল ক্রসিংয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার করছে কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয় ও কাওরাইদ সরকারী প্রাথমীক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ স্থানীয়রা। লেভেল ক্রসিং দুটি ঢাকা-ময়মনসিংহ রেলপথের ভিটিপাড়া ও কাওরাইদ বাজারের লেভেল ক্রসিং। জানা যায় লেভেল ক্রসিং পাড়াপারের সময় এক স্কুল ছাত্রী নিহত হয়েছে এবং প্রতিনিয়ত ছোটখাটো দুর্ঘটনাও ঘটছে এ দুটি ক্রসিংয়ে। সরেজমিন দেখা গেছে, কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয় ও কাওরাইদ সরকারী প্রাথমীক বিদ্যালয়ের শত শত স্কুলগামী শিক্ষার্থীসহ স্থানীয় লোকজন লেভেল ক্রসিয় পাড়াপার করতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়। একই চিত্র দেখা গেছে, লেভেল ক্রসিংয়ের পাশে বরমী ইউনিয়নের ভিটিপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় এবং এর সাথে একটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। প্রায় দুই হাজার শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করছে। এ ছাড়া বরমী- ভিটিপাড়া সংযোগ সড়কের ওপর লেভেল ক্রসিং। শিক্ষার্থী ছাড়াও প্রতিদিন হাজার হাজার জনসাধারণ, যানবাহন ভিটিপাড়া লেভেল ক্রসিং দিয়ে যাতায়াত করছে। ভিটিপাড়া গ্রামের মৃত সুরত আলীর ছেলে আব্বাস ব্যবসায়ী মো: নুরুল ইসলাম (৫০) বলেন, লেভেল ক্রসিংয়ে সিগনাল বার নেই। এমনকি একজন গেইটম্যানও নেই। সর্বদা আতঙ্কের মধ্যে লেভেল ক্রসিং পার হতে হয়। বেশ কয়েকবার বালিভর্তি ট্রলি পারাপার হতে গিয়ে ট্রেনের সাথে ধাক্কা লেগে দুর্ঘটনা ঘটেছে।

ভিটিপাড়া বাজারের পান দোকানী মকবুল হোসেন বলেন, এলাকার বাসিন্দা হিসেবে আমরা নিরুপায়। কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহমুদুল হাসান নাজমুল বলেন, তার বিদ্যালয়ের পাশে আরেকটি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এ দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দুই হাজার এক’শ শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছে। প্রতিদিন নিশ্চিত ঝুঁকি নিয়ে কোমলমতি এসব শিশু শিক্ষার্থীরা কাওরাইদ রেলস্টেশনের পাশে লেভেল ক্রসিং দিয়ে পারাপার হয়। বেশ কিছুদিন আগে তার বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী লেভেল ক্রসিং পার হতে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত হয়। কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র কাজল জানায় খুব আতঙ্কের মধ্য দিয়ে রাস্তা পাড়াপার হতে হয়। স্থানীয় অভিভাবক ও কাওরাইদ ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো: রাজু আহমেদ বলেন, গত দু’সপ্তাহ আগে লেভেল ক্রসিংয়ে একটি বালি ভর্তি ট্রাক আটকে পড়েছিল। পরে আন্ত:নগর তিস্তা এক্সপ্রেস সিগনাল দিয়ে থামিয়ে ট্রাকটি উদ্ধার করা হয়। প্রায়ই ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটছে কাওরাইদ বাজারের রেলস্টেশন সংলগ্ন লেভেল ক্রসিংয়ে।

কাওরাইদ রেলস্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো: আনোয়ার হোসেন বলেন, কাওরাইদ বাজারের লেভেল ক্রসিংয়ে সিগনাল বার ও গেইটম্যানের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করে কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে। এ ক্রসিংয়ে একবার ট্রেনে কাটা পড়ে ছাত্রী নিহতের জেরে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী রেলস্টেশনে হামলা চালিয়ে সিগনাল সিস্টেম ভাংচুর করেছিল। সে বিষয়ও চিঠিতে উল্লেøখ করা হয়েছে। শ্রীপুর রেলস্টেশনের স্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো: হারুন অর রশীদ জানান, প্রতিদিন ঢাকা-ময়মনসিংহ রেলপথে ১২টি ট্রেন ২৪ বার যাতায়াত করে থাকে। কাওরাইদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম মন্ডল বলেন, লেভেল ক্রসিংয়ের আশপাশে একটি কলেজ, একটি মাধ্যমিক, একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটি মাদ্রাসা রয়েছে। লেভেল ক্রসিং দিয়ে প্রতিদিন দূর দূরান্তের হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে। এ ছাড়াও এখানে একটি উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র, ইউনিয়ন পরিষদ ও গাজীপুর জেলার বৃহত্তম একটি বাজার রয়েছে। এখানকার সকল মানুষ রেভেল ক্রসিংয়ের জন্য দিনের পর দিন ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত ও দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।

শ্রীপুরে লেভেল ক্রসিংয়ে জনতার ঝুঁকিপূর্ণ পাড়াপার
                                  

॥ আতাউর রহমান সোহেল রানা, গাজীপুর ॥

গাজীপুরের শ্রীপুরে গেইটম্যান না থাকায় শ্রীপুর উপজেলার দুটি লেভেল ক্রসিংয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার করছে কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয় ও কাওরাইদ সরকারী প্রাথমীক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ স্থানীয়রা। লেভেল ক্রসিং দুটি ঢাকা-ময়মনসিংহ রেলপথের ভিটিপাড়া ও কাওরাইদ বাজারের লেভেল ক্রসিং। জানা যায় লেভেল ক্রসিং পাড়াপারের সময় এক স্কুল ছাত্রী নিহত হয়েছে এবং প্রতিনিয়ত ছোটখাটো দুর্ঘটনাও ঘটছে এ দুটি ক্রসিংয়ে। সরেজমিন দেখা গেছে, কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয় ও কাওরাইদ সরকারী প্রাথমীক বিদ্যালয়ের শত শত স্কুলগামী শিক্ষার্থীসহ স্থানীয় লোকজন লেভেল ক্রসিয় পাড়াপার করতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়। একই চিত্র দেখা গেছে, লেভেল ক্রসিংয়ের পাশে বরমী ইউনিয়নের ভিটিপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় এবং এর সাথে একটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। প্রায় দুই হাজার শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করছে। এ ছাড়া বরমী- ভিটিপাড়া সংযোগ সড়কের ওপর লেভেল ক্রসিং। শিক্ষার্থী ছাড়াও প্রতিদিন হাজার হাজার জনসাধারণ, যানবাহন ভিটিপাড়া লেভেল ক্রসিং দিয়ে যাতায়াত করছে। ভিটিপাড়া গ্রামের মৃত সুরত আলীর ছেলে আব্বাস ব্যবসায়ী মো: নুরুল ইসলাম (৫০) বলেন, লেভেল ক্রসিংয়ে সিগনাল বার নেই। এমনকি একজন গেইটম্যানও নেই। সর্বদা আতঙ্কের মধ্যে লেভেল ক্রসিং পার হতে হয়। বেশ কয়েকবার বালিভর্তি ট্রলি পারাপার হতে গিয়ে ট্রেনের সাথে ধাক্কা লেগে দুর্ঘটনা ঘটেছে।

ভিটিপাড়া বাজারের পান দোকানী মকবুল হোসেন বলেন, এলাকার বাসিন্দা হিসেবে আমরা নিরুপায়। কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহমুদুল হাসান নাজমুল বলেন, তার বিদ্যালয়ের পাশে আরেকটি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এ দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দুই হাজার এক’শ শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছে। প্রতিদিন নিশ্চিত ঝুঁকি নিয়ে কোমলমতি এসব শিশু শিক্ষার্থীরা কাওরাইদ রেলস্টেশনের পাশে লেভেল ক্রসিং দিয়ে পারাপার হয়। বেশ কিছুদিন আগে তার বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী লেভেল ক্রসিং পার হতে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত হয়। কাওরাইদ কে এন উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র কাজল জানায় খুব আতঙ্কের মধ্য দিয়ে রাস্তা পাড়াপার হতে হয়। স্থানীয় অভিভাবক ও কাওরাইদ ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো: রাজু আহমেদ বলেন, গত দু’সপ্তাহ আগে লেভেল ক্রসিংয়ে একটি বালি ভর্তি ট্রাক আটকে পড়েছিল। পরে আন্ত:নগর তিস্তা এক্সপ্রেস সিগনাল দিয়ে থামিয়ে ট্রাকটি উদ্ধার করা হয়। প্রায়ই ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটছে কাওরাইদ বাজারের রেলস্টেশন সংলগ্ন লেভেল ক্রসিংয়ে।

কাওরাইদ রেলস্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো: আনোয়ার হোসেন বলেন, কাওরাইদ বাজারের লেভেল ক্রসিংয়ে সিগনাল বার ও গেইটম্যানের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করে কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে। এ ক্রসিংয়ে একবার ট্রেনে কাটা পড়ে ছাত্রী নিহতের জেরে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী রেলস্টেশনে হামলা চালিয়ে সিগনাল সিস্টেম ভাংচুর করেছিল। সে বিষয়ও চিঠিতে উল্লেøখ করা হয়েছে। শ্রীপুর রেলস্টেশনের স্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো: হারুন অর রশীদ জানান, প্রতিদিন ঢাকা-ময়মনসিংহ রেলপথে ১২টি ট্রেন ২৪ বার যাতায়াত করে থাকে। কাওরাইদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম মন্ডল বলেন, লেভেল ক্রসিংয়ের আশপাশে একটি কলেজ, একটি মাধ্যমিক, একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটি মাদ্রাসা রয়েছে। লেভেল ক্রসিং দিয়ে প্রতিদিন দূর দূরান্তের হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে। এ ছাড়াও এখানে একটি উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র, ইউনিয়ন পরিষদ ও গাজীপুর জেলার বৃহত্তম একটি বাজার রয়েছে। এখানকার সকল মানুষ রেভেল ক্রসিংয়ের জন্য দিনের পর দিন ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত ও দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।

বর উধাও, বিয়ের পিড়িতে বড় ভাই
                                  

॥ এম এস জিলানী আখনজী, হবিগঞ্জ ॥

বিয়ে না করার মনস্থির করেছিলেন বড় ভাই। চিরকুমার হয়ে থাকবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। মা-বাবাসহ আত্মীয়-স্বজনরা অনেক চেষ্টা করেও বিয়ে করাতে পারছিলেন না তাকে। অবশেষে ছোট ভাইয়ের কৌশলের কাছে হার বড় ভাইকে বিয়ে করতে হয়েছে। তা-ও ছোট ভাইয়ের সাথে যে কনের বিয়ে ঠিক করে দিন তারিখ ধার্য করা হয়েছিল সেই কনের সাথেই বড় ভাইয়ের বিয়ে হল। বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। এঘটনাটি গাজীপুর ইউনিয়নের টেকেরঘাট গ্রামে ঘটেছে। বড় ভাই হলেন, ওই গ্রামের ফুল মিয়ার পুত্র উজ্জল মিয়া। ছোট ভাইয়ের নাম জাকির মিয়া।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উজ্জল মিয়াকে বিয়ে করানোর চেষ্টা করে সবাই ব্যর্থ হন। শেষ পর্যন্ত মা-বাবাসহ সবাই সিদ্ধান্ত নেন জাকির মিয়াকেই বিয়ে করাবেন। কিন্তু বড় ভাইকে রেখে কোন অবস্থাতেই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে রাজি ছিল না জাকির হোসেন। যেভাবেই হোক মা-বাবার ইচ্ছা তাদের সংসারে বউ আসুক, নাতিপুতিতে সংসার ভরে উঠুক। আর তাই ছোট ছেলে জাকির মিয়াকেই বিয়ে করানোর সিদ্ধান্ত নেন। জাকির মিয়ার বিয়ে ঠিক করা হল উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের শুকদেবপুর গ্রামের আব্দুল মালেকের কন্যা বিলকিসের সাথে। বিয়ের দিন তারিখ ধার্য ছিল ১৪নভেম্বর মঙ্গলবার। এরই মধ্যে আগের রাতে বর জাকির মিয়া বাড়ি থেকে উধাও হয়ে যায়।

এ অবস্থায় মুরুব্বীদের মাথায় বাজ পড়লো। এলাকার মান বাঁচাতে সবাই বসলেন বৈঠকে। শেষতক উপায়ান্তর না পেয়ে বড় ভাই উজ্জলকেই বর সাজিয়ে নিয়ে আসা হল কনের বাড়ী। বদলী বর দেখে কনের পিতাসহ এলাকার মানুষের কৌতুহলের সৃষ্টি হয়। কথাটি চাউড় হয়ে গেলে বদলী বর দেখতে কনের বাড়ীতে ভীড় জমান উৎসুক জনতা। এ বরের সাথে মেয়েকে বিয়ে দিবেন না-এক প্রকার সিদ্ধান্ত নিয়ে নেন কনের বাবা আব্দুল মালেক। খবর পেয়ে বিয়ে বাড়ীতে উপস্থিত হলেন গাজীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির খাঁন ও আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবেদ হাসনাত চৌধুরী সনজুসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

নারী উন্নয়ন ফোরামের শিক্ষা উপকরন বিতরণ
                                  

॥ এম এস জিলানী আখনজী, হবিগঞ্জ ॥

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলা নারী উন্নয়ন ফোরামের উদ্যোগে মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরন বিতরন করা হয়েছে। উপজেলা সভাকক্ষে ফোরামের সভাপতি ও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী সাফিয়া আক্তারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: আবু তাহের, বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাইজার মোহাম্মদ ফারাবী, শিক্ষা অফিসার মো: শামছুল হক, উপজেলা মহিলা কর্মকর্তা ফাহমিদা ইয়াসমিন, সদর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সৈয়দ লিয়াকত হাসান, মিরাশী ইউপি চেয়ারম্যান মো: রমিজ উদ্দিন, সাংবাদিক কাজী মাহমুদুল হক সুজন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ফোরামের সাধারন সম্পাদক ও মহিলা মেম্বার শিরিন আক্তার, মোছা: সায়েরা খাতুন, সেফুল আক্তার, কাজী রিমন ও উজ্জল প্রমূখ। শিক্ষা উপকরন বিতরন অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন সফিউল ইসলাম সাফি। পরে অতিথিবৃন্দ সদর ইউনিয়ন ও মিরাশী ইউনিয়নের ৪০ জন গরীব এবং মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরন ও ছাতা বিতরন করেন। বক্তাগন নারী উন্নয়ন ফোরামকে শক্তিশালী করতে সকল ইউনিয়ন চেয়ারম্যানদের প্রতি সহযোগীতা কামনা করেন।

এমপি‘র রোষানলে অর্ধশতাধিক সংখ্যালঘু পরিবার
                                  

॥ এস এম সামছুর রহমান, বাগেরহাট ॥

বাগেরহাটের চিতলমারীতে সংরক্ষিত আসনের মহিলা সংসদ সদস্য হ্যাপী বড়াল ও তার ভাসুর স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান অশোক বড়ালের রোষানলে পড়েছে অর্ধশতাধিক সংখ্যালঘু পরিবার। এসব পরিবারের সদস্যরা এমপি বাহিনীর হামলা ও মিথ্যা মামলার মুখে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। ভূমিহীন এই পরিবারের সদস্যরা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে বাগেরহাট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। ভুক্তভোগীদের পক্ষে দিপংকর মজুমদার এই সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।

লিখিত বক্তব্যে তিনি উল্লেখ করেন, বলেশ্বর নদীর জেগে ওঠা চর ১৯৮৫-৮৬ সালে ভুমিহীন পরিবারের মাঝে সরকার বন্দোবস্ত দেয়। সেই সময় থেকেওই পরিবারগুলো ওখানে বসবাস করে আসছিল। এবছরে জানতে তারা পারেন ২০০৬ সালে বন্দোবস্ত দেয়া জমির বিপরিতে সরকারকে বিবাদী করে অশোক বড়াল ও হ্যাপী বড়াল মামলা দায়ের করেছেন। তারা উকিল দিয়ে আদালতে এই মামলার জবাব দাখিল করেন। এতে ক্ষিপ্ত চেয়ারম্যান ও এমপি তাদের ভাড়াটিয়া গুন্ডা বাহিনী দিয়ে তাদের বাড়িতে হামলা চালায়। আতর্কিতে ৫০/৬০ জন লোক তার বাড়িতে হামলা করে বাগানের ছোটবড় ২০০/২৫০টি বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে নিয়ে যায়।

খবর শুনে ভুক্তভোগী দিপংকর মজুমদার প্রতিবাদ করলে চেয়ারম্যান অশোক বড়ালের ছেলে এ্যাড. বাপী বড়াল মোবাইল ফোনে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে একদল গুন্ডা নিয়ে তার বাড়িতে যায়। তাকে বাড়িতে না পেয়ে তার পিতার কাছে বলে যায় ‘তোর ছেলেকে পেলে এই মাটিতেই পুতে ফেলব।” এমনকি তাকে মিথ্যা হত্যা মামলা দিয়ে জেলে দেয়ারও হুমকী দেয়া হয়। দিপংকর মজুমদার অভিযোগ করে বলেন, সে ২৯ আগষ্ট মামলা দায়েরের জন্য চিতলমারী থানায় গেলেও পুলিশ মামলা নেয়নি। পরে তারা বাগেরহাট পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে ডিবি পুলিশ উভয় পক্ষকে হাজির হতে বললেও এমপি বা তার পক্ষে কেউ হাজির হয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে দিপংকর মজুমদার আরো বলেন, সেসহ তার ৭ জন আত্মিয়ের নামে এমপি তার প্রধান সহযোগী রবিনকে দিয়ে একটি মিথ্যা চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করেন। মামলা ও হামলার ভয়ে তারা এলাকা ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। সংবাদ সম্মেলনে এসময় উপস্থিত ছিলেন একই এলাকার রাধা কান্ত রায়, আদিত্য বারুই সাধু, অমুল্য কুমার মাঝি, নিমাই বারুই, সমির বারুই, সন্ধা মজুমদার, হাসিলতা সমাদ্দার, অমৃত বারুই প্রমুখ।

এবিষয়ে জানতে চাইলে সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য হ্যাপী বড়াল তার নিজের জমির গাছ কেটেছেন উল্লেখ করে শুক্রবার বিকালে এপ্রতিবেদককে বলেন, ‘দিপংকর ভাল লোক নয়। সে বিভিন্ন লোকের জমি জাল দলিল করে বেড়াচ্ছে। তাকে পুলিশ খুজছে।’

কচুয়ায় দুর্বৃত্তদের হামলা আহত ৩, বসতঘর ভাংচুর, মালামাল লুট
                                  

॥ দিহিদার জাহিদুল ইসলাম বুলু, কচুয়া ॥

কচুয়ায় দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত ৩, বসতঘর ও আসবাবপত্র ভাংচুর, নগদ টাকা লুট। পুলিশ জানায়, কচুয়া উপজেলার ধোপাখালী ইউনিয়নের বগা গ্রামের মৃতঃ সোহরাফ বেপারীর ছেলে জাকির বেপারী (২৫) স্ত্রী ছকিনা বেগম নিজ বাড়িতে দীর্ঘদিন বসবাস করছে। বেশ কিছুদিন ধরে পার্শবর্তী মৃত আকুবালী বেপারীর ছেলে মোস্তফা বেপারীর সংগে জমাজমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

হঠাৎ করে গতকল বিকাল ৪টায় পূর্ব শত্রুতার জের হিসেবে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা মোস্তফা বেপারী (৫০) ও তার ছেলে সহ ১০/১২ জন সন্ত্রাসী রামদ, লোহার রড ও বাশেঁর লাঠি নিয়ে হামলা চালিয়ে তাদের বসতঘর ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে জাকির বেপারী (২৫) মা ছকিনা বেগম ও বোন নারজিনা বেগম (৩৫) কে পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর আহত করে নগদ টাকা ও বিভিন্ন জিনিস লুট করে নিয়ে যায়। পরে এলাকা বাসি তাদের ডাক চিৎকারে ছুটে এসে গুরুতর আহত জাকির বেপারী, স্ত্রী ছকিনা বেগম ও মেয়ে নারজিনা বেগকে উদ্ধার করে কচুয়া হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। এ বিষয়ে ধোপখালী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শেখ মকবুল হোসেন আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন যে, আমি এ বিষয়টি নিয়ে কয়েক বার সালিশ বিচার করে যার যার জায়গায় শান্তিতে বসবাস করতে বলে দিয়েছি।

জাকির বেপারীর পরিবার বিষয়টি মেনে নিয়ে শান্তিতে বসবাস করলেও মোস্তফা বেপারীর পরিবার আমার কথা না শুনে হামলা করে বসতঘর ভাংচুর করে এবং তাদের পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর আহত করে করে। এ ব্যাপারে অত্র এলাকার মোস্তফা বেপারী সহ ৫ জনের জনের নাম উল্লেখ করে, অঞ্জাত আরো আসামী দিয়ে গুরুতর আহত জাকিরের ভাই রুহুল বাদী হয়ে কচুয়া থানায় মামলা করেছেন।

 

নিখোঁজ পুত্রের খোজে দ্বারেদ্বারে ঘুরছে রাশেদ
                                  

৯ অক্টোবর ২০১৭ নগরীর দৌলতপুর থানার মহেশ^ারপাশা শিকারীর মোড় এলাকার নিখোঁজ জিতু(১৮) সন্ধানে দ্বারেদ্বারে ঘুরছে তার অসুস্থ পঙ্গু পিতা রাশেদ। সন্তানকে হারিয়ে রাশেদ প্রতিদিন রাস্তাঘাট, থানা সহ বিভিন্ন স্থানে খুজে বেড়াচ্ছেন। নিখোঁজ জিতু প্রায় ৬ মাস নিখোঁজ হয়েছেন। এ ব্যাপারে দৌলতপুর থানায় সাধারণ ডায়রী করা হয়েছে।

জিডি এবং পরিবার সুত্রে জানাগেছে, দৌলতপুর থানার মহেশ^ারপাশা শিকারীর মোড় এলাকার মোঃ রাশেদ সরদারের পুত্র জিতু গত ১৬ মে ২০১৭ রাত ৮ টায় মায়ের উপর রাগ করে বাসা থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। নিখোঁজের পর থেকে তার অসু¯’ পিতা সম্ভাব্য সকল স্থানে খুজে না পেয়ে দৌলতপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করেছেন(জিডি নং ৯৭৬, তাং ১৯/৯/১৭)।

-প্রেস বিজ্ঞপ্তি

 

বাগেরহাটে ভন্ডের খপ্পরে সর্বশান্ত দিনমজুর পরিবার
                                  

॥ ফরিদুর রহমান শামীম, বাগেরহাট ॥

বাগেরহাটে ধর্মের নামে প্রতারনা করে সর্বশান্ত করছে একটি দিন মজুর পরিবারকে। বাগেরহাট সদর উপজেলার বেমরতা ইউনিয়নের বেড়গজালিয়া গ্রামের মৃত গোপাল মন্ডলের ছেলে দিনমজুর রমেশ মন্ডলের পরিবারকে সর্বশান্ত করতে মাঠে নেমেছে একটি কু-চক্রী মহল। নিজ ভাইয়ের পরিত্যক্ত ঘরে আগুন দিয়ে উল্টো মামলা দিয়ে হয়রানী করছে ওই চক্রটি।

ভুক্ত ভোগী ও এলাকাবাসি জানায়, দিনমজুর রমেশ মন্ডলের নানী তার মেয়ে অমিয় বালাকে দান পত্রকৃত ৩৪নং দলিল তাং- ২৮-০৫-১৯৭৪ দলিল মুলে ৪৫ শতক জায়গা রেজিস্ট্রি করে দেন। সেখান থেকে অর্থাভাবে তার মা অমিয় বালা ওই ৪৫ শতক জায়গা থেকে ১৬শতক জায়গা প্রতিবেশী মুকুন্দ বিশ্বাসের কাছে বিক্রি করেন। বাকী জায়গা উত্তরাধিকারী সুত্রে প্রাপ্ত হয়ে ৩ভাই ও ২বোন বা¯ুÍবাড়ী হিসাবে ভোগদখল করে আসছেন। সেখান থেকে ওই জায়গার অংশ হিসাবে প্রাপ্ত জায়গার চেয়ে অধিক জায়গা সুকৌশলে লিখিয়ে নেয় কথিত ভন্ড অধ্যক্ষ বিবেকানন্দ হালদার। পরে দিনমজুর রমেশ মন্ডলকে বাড়ী থেকে উচ্ছেদ করার পরিকল্পনায় ওই জায়গা জোরপুর্বক দখলে ব্যর্থ হয়ে রমেশ মন্ডলের ভাই দেবেশ মন্ডলের পরিত্যক্ত ঘর পুড়িয়ে উল্টো রমেশ মন্ডল, তার স্ত্রী অঞ্জলী মন্ডল সহ ৪জনকে আসামী করে ওই প্রতারক বিবেকানন্দ নিজে বাদী হয়ে গত ১৪ সেপ্টেম্বর বাগেরহাট সদর থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় রমেশ মন্ডল আদালতে হাজির হলে আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠায়। ওই সুযোগে ভন্ড বিবেকানন্দ রমেশের ঘর ছাড়া সব কিছুই দখলে নেয়। এসময়ে ঘর-বাড়ী ভাংচুর করে। বর্তমানে পরিবারটি অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। তবে বাগেরহাট সহকারী জজ আদালতে দেঃ ১৭৯/১১ মামলাটি বিচারাধীন রয়েছে।

এলাকাবাসি সনাতন বেপারী, দিলীপ মিস্ত্রী, খোকন বিশ্বাস, সমর মিস্ত্রি বলেন, ভন্ড বিবেকানন্দ ৬শতক সম্পত্তি নিজে দাতা ও নিজেই গ্রহিতা সেজে বাগেরহাট আন্তঃজেলা শ্রী রবি দামোদর নাম মন্দিরের নামে দলিল তৈরী করে (দলিল নং-১১৪/১৭) নিজেকে অধ্যক্ষ বানান। অস্টম শ্রেণী পাশ করা ব্যক্তি কিভাবে অধ্যক্ষ হলো এনিয়ে জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। তারা আরো বলেন, মন্দিরের নামে বিভিন্ন জায়গা থেকে চাঁদা তুলে তিনি ভারতে পাচার করছেন। অনেক আগে থেকে বিবেকানন্দ হালদারের স্ত্রী সন্তানরা ভারতে অব¯’ান করায় তাদের কাছেই পাচার করছে ওই টাকা। বাগেরহাট সদর উপজেলার বেড় গজালিয়া গ্রামের মনিন্দ্র নাথ হালদারের ছেলে বিবেকানন্দ হালদার এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সময় নিয়ে বলতে হবে।

বেকার শ্রমজীবীর মাঝে সুদমুক্ত ঋণ বিতরণ
                                  

॥ মোঃ জাহেরুল ইসলাম, পঞ্চগড় ॥

পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে এক হাজার বেকার শ্রমজীবি পরিবারের সদস্যের মাঝে সুদ মুক্ত ঋণ বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে।

এভিডেন্স এ্যাকশনের সহায়তায় নো লিন প্রকল্পের আওতায় আরডিআরএস-বাংলাদেশ কর্তৃক গত মঙ্গলবার (৩ অক্টোবর) বিকেলে সং¯’াটির মির্জাপুর শাখায় প্রায় ৪০ জন বেকার সুবিধাভোগী শ্রমজীবির মাঝে প্রত্যেক জনকে সুদ মুক্ত ঋণ হিসেবে এক হাজার পাঁচ শত টাকা করে প্রদানের মধ্য দিয়ে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

আর.ডি.আর.এস জানায়, এসময় গ্রামাঞ্চলের গৃহ¯’ালী মাঠে তেমন কাজ-কর্ম না থাকায় শ্রমজীবি মানুষরা শ্রম বিক্রি করতে পারে না। ফলে তারা পরিবার পরিজন নিয়ে বেকায়দায় পরে। এজন্য আরডিআরএস-বাংলাদেশ এ ঋণের ব্যবস্থা করেছে। যাতে তারা এই টাকা দিয়ে শহরাঞ্চলে গিয়ে তাদের শ্রম বিক্রি করতে পারে।

বিতরণ অনুষ্ঠানে মির্জাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ওমর আলী, আটোয়ারী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জিলুর হোসেন সরকার, আরডিআরএস-বাংলাদেশ পঞ্চগড় এর প্রোগ্রাম ম্যানেজার মোঃ রেজাউল করিম, শাখা ব্যবস্থাপক মোঃ সাদেকুল ইসলাম, সাংবাদিক মোঃ রাব্বু হক উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন এবং ঋণ বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

এসময় আরডিআরএস-বাংলাদেশের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, সুধীজন ও সুবিধাভোগীরা উপস্তিত ছিলেন।

 

র‌্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে লিটন বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড নিহত
                                  

॥ এস এম সামছুর রহমান, বাগেরহাট ॥

পূর্ব সুন্দরবনের বাগেরহাটের শরণখোলা রেঞ্জের শৈল খালে র‌্যাব-৮ এর সাথে বন্দুক যুদ্ধে বনদস্যু লিটন বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড মো. মোক্তার মোল্লা (৩৯) নিহত হয়েছে।

এ সময়ে র‌্যাব ওই এলাকা তাল্লাশি চালিয়ে বনদস্যুদের ব্যবহৃত বিপুল পরিমানে আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করে। নিহত মোক্তার মোল্লার বাড়ি খুলনা জেলার দাকোপ এলকায় বলে প্রাথমিক ভাবে জানাগেছে। উদ্ধার হওয়া অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে, ১টি দোনালা বন্দুক, ১টি একনালা বন্দুক, ১ টি কাটা রাইফেল, ২টি ওয়ান শ্যুটারগান, ১৬টি পাইপগান ও ৩৭ রাউন্ড বন্দুকের কার্তুজ।

র‌্যাব-৮ এর কমান্ডিং অফিসার লে. কর্নেল আনোয়ার উজ জামান জানান, সুন্দরবনের কুখ্যাত বনদস্যু লিটন তার বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে শরণখোলা রেঞ্জের শৈলা খাল এলাকায় অবস্থান করছে এমন গোপণ সংবাদ পেয়ে র‌্যাবের একটি দল সেখানে অভিযানে যায়। র‌্যাব সদস্যরা ওই এলাকায় অভিযান শুরু করলে বনের ভিতর থেকে দস্যুরা গুলিবর্ষণ শুরু করে। এক পর্যায়ে র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছোড়ে। প্রায় পৌনে এক ঘন্টা উভয় পক্ষের বন্দুক যুদ্ধের এক পর্যায়ে সুন্দরবনের ভিতর থেকে গুলি আসা বন্ধ হলে র‌্যাব সদস্যরা ওই এলাকায় তাল্লাশি শুরু করে। এসময়ে বনের ভিতরে এক বনদস্যুর গুলিবিদ্ধ লাশ, ছড়িয়ে থাকা কয়েকটি আগ্নেয়াস্ত্র ও গোল্লাবারুদ উদ্ধার করে।

পরে স্থানীয় জেলে, বাওয়ালীরা নিহত বনদস্যু লিটন বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড মো. মোক্তার মোল্লা বলে সনাক্ত করে। নিহত বনদুস্যর লাশ, উদ্ধারকৃত আগ্নেয়াস্ত্র ও গোলাবারুদ বাগেরহাটের শরণখোলা থানায় হস্তান্তর করা হবে বলে র‌্যাব জানায়। তিনি আরও বলেন, বনদস্যু লিটন দুই মাস আগে নিজ নামে বাহিনী গঠন করে সুন্দরবনের উপর নির্ভরশীল জেলে, বাওয়ালী ও মৌয়ালদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় ও অপহরণ করে মুক্তিপন আদায় করে আসছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

ডাক্তারের হাতে মুক্তিযোদ্ধা ও তাঁর স্ত্রী লাঞ্চিত
                                  

॥ মোঃ রহমত উল্লাহ পাটোয়ারী, লক্ষ্মীপুর ॥

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে সরকারী হাসপাতালের অর্থোপেডিক ডাক্তার রৈাশন জামিল ভূইয়া টোকেন না নিয়ে প্রবেশ করায় আবু নাছের মন্টু (৭০) নামের একজন মুক্তিযোদ্ধা ও তার স্ত্রীকে লাঞ্চিত করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে হাসপাতালের ওই ডাক্তারের চেম্বারে। বিষয়টি জানাজানি হলে উপজেলাব্যাপী মুক্তিযোদ্ধা ও সর্বসাধারনের মাঝে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়।

সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আইয়েনগ মিঝি বাড়ির বীরমুক্তিযোদ্ধা আবু নাসের মন্টু তার অসুস্থ স্ত্রী দিলোয়ারা বেগমকে নিয়ে রামগঞ্জ সরকারী হাসপাতালে যায়। হাসপাতালের অভ্যর্থনা কক্ষে কেউ না থাকায় সরাসরি অর্থোপেডিক ডাঃ রৌশন জামিল ভূঁইয়ার কক্ষে প্রবেশ করে।

টোকেন না নিয়ে আসায় ডাক্তার ক্ষিপ্ত হয়ে মুক্তিযোদ্ধা ও তার স্ত্রীকে লাঞ্জিত করে কক্ষ থেকে বের করে দেয়। পরে চিকিৎসা না নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা মন্টু মিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহী কর্মকর্তার নিটক অভিযোগ করেন। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ডাঃ রৌশন জামিল ভূঁইয়া জানান, উনি যে মুক্তিযোদ্ধা আমি বুঝতে পারিনি।

তাই একটু ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। সামনের দিকে আমি আর এ ধরনের ভুল করব না। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা গুনময় পোদ্ধার জানান, বিষয়টি জেনেছি। সিভিল সার্জেনের সাথে যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

রামগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আকম রুহুল আমিন জানান, এ ডাক্তারের বিরুদ্ধে আরো একাধিক অভিযোগ রয়েছে। স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে বলেছি, তার বিরুদ্ধে জরুরী ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবু ইউসুফ জানান, বিষয়টি অত্যান্ত দুঃখজনক। মাসিক সমন্বয় সভায় আলোচনা করে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চাইল্ড পার্লামেন্টের ১৪তম অধিবেশন অনুষ্ঠিত
                                  

দুর্যোগ প্রবণ এলাকার জন্য টেকসই মানের বিদ্যালয় নির্মান ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে কাজ করছে বলে জনিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান।
রাজধানীর বাংলাদেশ শিশু একাডেমিতে ‘চাইল্ড পার্লামেন্ট’ এর বিশেষ অধিবেশনে শিশুদের প্রশ্নোত্তরে মন্ত্রী একথা বলেন।

বাংলাদেশ শিশু একাডেমির সহযোগিতায় চাইল্ড পার্লামেন্টের ১৪তম অধিবেশনের আয়োজন করে বেসরকারি আন্তর্জাতিক সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেন বাংলাদেশ ও প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ। আয়োজকরা বলছে, এ বছর দেশের অধিকাংশ জেলার আকস্মিক বন্যার পরিপ্রেক্ষিতে ‘দুর্যোগ এবং শিশু’ বিষয়ে বিশেষ অধিবেশন ডাকা হয়েছে।

প্রধান অতিথি মোস্তাাফিজুর রহমান বলেন, আজকের যারা শিশু তারাই আগামির নের্তৃত্বে থাকবে। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে ২০২১ সালের মধ্য আয়ের ও ২০৪১ সালে উন্নত রাষ্ট্রে পরিনত হওয়া।

এই লক্ষ্য অর্জন করতে হলে কোন শিশুকেই উপেক্ষা করার অবকাশ নাই ।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষার উন্নয়ন এবং সবারজন্য শিক্ষা নিশ্চিত করার জন্য যা যা করা প্রয়োজন সবই করবো।

সকল শিশুকেই যথাযথ শিক্ষার সুযোগ প্রদানে সরকার বদ্ধপরিকর। এইসব শিশুই দেশের নের্তৃত্বে থাকবে, তাদেরকে উন্নত রাষ্ট্রের উপযোগি করে গড়ে তোলার দায়িত্ব আমাদের সকলের। অধিবেশনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাসুক মিয়া, বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর পরিচালক আনজীর লিটন, সেভ দ্য চিলড্রেনের প্রোগ্রাম ডেভেলপমেন্ট এবং কোয়ালিটি বিষয়ক পরিচালক রিফাত বিন সাত্তার, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের ডেপুটি কান্ট্রি ডিরেক্টর সৌম্য ব্রত গুহ এবং হেড অব চাইল্ড রাইটস প্রটেকশন তানিয়া নুসরাত জামান প্রমুখ।

অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান বলেন, বর্তূমান সরকার শিশুদের উরন্নয়নে আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে মন্ত্রণালয়ে থেকে প্রকল্প প্রস্তাব আসলে অর্থমন্ত্রণালয় অর্থায়নের সর্বাত্বক চেষ্টা করবে।

চাইল্ড পার্লামেন্টের স্পীকার মেফতাহুন নাহার জানান, দেশে সাম্প্রতিক সময়ে আকস্মিক বন্যার ফলে শিশুদের শিক্ষা কার্যক্রমে বাধার সৃষ্টি হয়েছে।

অনেক শিশু পরীক্ষায় খারাপ ফলাফল করছে। আমরা চাইল্ড পার্লামেন্টের মাধ্যমে নীতিনির্ধারকদের কাছে দুর্যোগ প্রবন এলাকার শিক্ষাবোর্ডে জন্য ‘আলাদা শিক্ষাক্রম ও পাঠ্য সূচীর দাবি তুলে ধরেছি।

উল্লেখ্য, চাইল্ড পার্লামেন্ট ন্যাশনাল চিলড্রেন টাস্কফোর্স যা বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক স্বীকৃত একটি জাতীয় পর্যায়ের শিশু সংগঠন, যারা জাতিসংঘ শিশু অধিকার কমিটি থেকে প্রদত্ত সমাপনী পর্যবেক্ষণের আলোকে শিশু অধিকার পরিস্থিতি পরীবিক্ষণ ও প্রতিবেদন তৈরি করে। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি

পিরোজপুর মাল্টার সাম্রাজ্য হিসেবে খ্যাতি অর্জন
                                  

॥ আজাদ রুহুল আমিন ॥

ভৌগোলিক সীমারেখায় দিগন্ত জোড়া নদী বেষ্টিত এলাকা আর এক সময়ের অনুর্বর পতিত জমি এখন বাম্পার শস্য ক্ষেত ও শস্য ভান্ডারে পরিনত হয়ে পুর্নতা পেয়েছে । ইতোমধ্যে পিরোজপুর জেলাকে মাল্টার সা¤্রাজ্য হিসেবে ঘোষনা করেছে কৃষি দপ্তর তথা বাংলাদেশ সরকার । বিস্তৃত সবুজের সমাহারে আগেই সমৃদ্ধ পিরোজপুর আর একে ঘিরেই এখন কৌতূহল সৃষ্টি হয়েছে কৃষকের মাঝে । পিরোজপুরের এক কৃতি সন্তান জনাব হুমায়ুন কবির তিনি একজন কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার এবং একজন কৃষি বান্ধব ও গবেষক । কৃষি নির্ভর দেশকে কৃষিতে সবুজে সবুজে কিভাবে সমগ্র দেশ তথা বাইরে কৃষিতে বাম্পার ফলন ফলিয়ে পরিচিত করা যায় তার নজীর স্থাপন করলেন তিনি । গত এক বছর ধরে কৃষির উপর নিরলস পরিশ্রম করে তিনি এখন সফলতার দ্বার প্রান্তে ।

পিরোজপুর - হুলারহাট সড়কের পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের আগে খলিশা খালী এলাকায় খালের বিপরীতে ১৫০ বিঘা জায়গা জুড়ে গড়ে উঠেছে বিশাল সবুজের মাল্টা বাগান । এটি একটি সুমিষ্ট ফল । একেবারে তাজা টসটসে ফরমালিন ও কীটনাশক মুক্ত প্রচুর ভিটামিন সমৃদ্ধ। এ মাল্টা বাগানে জৈব সার হিসেবে গোবর এবং পাশের খালথেকেই পানি ব্যবহার করে গত ১৫ই আগষ্ট থেকে মাল্টা গাছে ফলন এবং বিক্রি শুরু হয়েছে যা আগামী ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত চলবে ।

এই মাল্টা চাষের পাশাপাশি গবাদি পশু হাস মুরগী ও হরেক রকম সবজীর চাষ করে তিনি এখন পিরোজপুরে শুধু নয় সমগ্র দেশে একজন আলোকিত মানুষ হিসেবে সুনাম সুখ্যাতি অর্জন করেছেন । সবুজের এ মাল্টা গাছে রোগ বালাই দমনে কৃষি দপ্তর রাসায়নিক ব্যাতিরেকে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে সকলের নজর কাড়েন । আর এ কারনে সমগ্র পিরোজপুর জেলা ব্যাপী কৃষকরা এ মাল্টা চাষে উদ্বুদ্ধ হয়ে তাদের পতিত জমি এখন সুমিষ্ট ফলবান মাল্টা বাগান দিনে দিনে বৃদ্ধি প্রসার ও অর্থনৈতিক সম্ভরতা অর্জনে যা আগামী দিনে এ মাল্টা বিদেশে প্রেরন করে অচিরেই বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করতে সক্ষমতা লাভ করবে । সেদিন খুব বেশি দূরে নয় ।

এখন এ সবুজের সমারোহ থোকায় থোকায় গাছে গাছে মাল্টার ভারে গাছ নুয়ে পড়েছে । একেবারে কাঁচা ফল কেটে পাকা ফলের মতই খেতে সুস্বাদু ও রসালো । ভারত থেকে আসা হলদে রঙের মাল্টা কোনটা টক কোনটা মিষ্টি আবার কোনটা রাসায়নিক গন্ধ । এখানে তা খুঁজে পাওয়া গেল না । এ মাল্টা বাগানের কেয়ারটেকার সাহেদ আলী, কাওছার শেখ, সামছুর রহমান তাদের অনেক অভিজ্ঞতার কথা আমাদের কাছে তুলে ধরেন । এ সময়ে জনাব হুমায়ুন কবিরের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জনাব জয় সাইদ জানালেন, তার পিতা দেশের পার্বত্য চট্টগ্রাম সহ বিভিন্ন অঞ্চল হতে এ মাল্টার চারা সংগ্রাম করেন । তার কৃষিতে আরো অধিক মুনাফা অর্জনে নিয়মিত কৃষির উপর জ্ঞানলব্ধ এবং মেধা মননশীলতার গবেষনা আর কৃষিতে নিরব বিপ্লব ঘটানোর প্রচেষ্টা অব্যহত রেখেছেন সুমিষ্ট মাল্টা চাষের সাফল্যে হুমায়ুন কবির কৃষি ক্ষেত্রে একজনদেশের পথিকৃৎ । প্রকৃতিকে নিয়ে তিনি ভাবেন ।

সবুজের মাঝে তিনি বেঁচে থাকতে চান এ দৃঢ় অঙ্গীকার নিয়ে তিনি পা বাড়িয়েছেন কৃষিতে নতুন নতুন বিপ্লøব ঘটাতে । তিনি একজন দৃঢ় চেতা কৃষি নির্ভর দেশ ও জাতিকে দিতে চান নিজের মত করে কৃষি বিপ্লবের সুফল ঘরে ঘরে পৌঁছে যাক । প্রকৃতির স্বচ্ছ নির্মল আবহাওয়া ও সুমিষ্ট পানির যোগান এবং সুষ্ঠু প্রয়োগের মাধ্যমে মাল্টা চাষে যে সাফলতা পেয়েছেন তিনি এখন একজন প্রকৃতি প্রেমিক ।

প্রতি কেজি মাল্টা ১৩০ টাকা । ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, পাবনা সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে এ মাল্টা এখন ট্রাক যোগে সেখানকার মানুষের যোগান দিয়ে এ এলাকার মানুষের চাহিদা মিটাচ্ছে । কৃষকেরা এ ক্ষেতটি দেখে উদ্বুদ্ধ এবং লাভজনক হওয়ায় ক্রমশ ঝুকে পড়ছে । পিরোজপুর জেলায় প্রায় ৫ শতাধিক মাল্টা চাষের বাগান রয়েছে ।

মূলত পিরোজপুর জেলার বলেশ্বর বিধৌত নাজিরপুর উপজেলায় প্রথম এ চাষের আবাদ শুরু হয় । সমগ দেশ ব্যাপী এখানকার দৃষ্টি নন্দন এবং প্রধান আকর্ষনীয় ভাসমান সবজী ক্ষেত এখন কৃষকের মডেলে পরিনত হয়েছে । প্রতিদিন শত শত দর্শনার্থী এ মাল্টা বাগান পরিদর্শন করছেন এবং সাধ্য অনুযায়ী ২/৫ কেজি কাঁচা মাল্টা ফল গাছ থেকে সংগ্রহ ও ক্রয় করে পরিবারের সন্তানের মুখে এ ফল তুলে দিতে দূর দুরান্ত থেকে ছুটে আসছেন । পিরোজপুর পৌরসভার প্রান কেন্দ্রে এটি এখন দেশ বাসীর নজর কাড়ছে ।

লেখক পরিচিতি- আজাদ রুহুল আমিন ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি মানবাধিকার খবর, বিশেষ প্রতিনিধি শিক্ষাবার্তা ও সময় নিউজ। সাবেক সাাধারন সম্পাদক বাগেরহাট প্রেসক্লাব।

 

কিশোরীর রস্যজনক আত্মহত্যা
                                  

॥ রফিকুল ইসলাম, সাতক্ষীরা ॥

ঘরের মধ্যে মানুষ থাকতে কিভাবে আত্মহত্যা করে? প্রশ্ন রুপালী’র মায়ের। যে ঘরের মধ্যে জলজ্যান্ত দু’জন মানুষ থাকে, সে ঘরে কেউ কিভাবে আত্মহত্যা করতে পারে এমন প্রশ্ন তুলেছেন রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু রুপালীর মা বুলি দাসী। সঘটনাটি ঘটেছে শ্যামনগর উপজেলার সুন্দরবন সংলগ্ন মুন্সিগঞ্জের বাঘ বিধবা পল্লীতে। বুলি দাসীর একমাত্র কিশোরী মেয়ে রুপালীকে হত্যা করা হয়েছে বলে তার মায়ের অভিযোগ। তবে টাকা পয়সা না থাকার দরুন তিনি অভিযুক্তদের প্রভাবপ্রতিপত্তির কাছে অসহায় হয়ে পড়েছেন।

বুলি দাসীর দাবি ঘটনার পর স্থানীয় এক প্রাক্তন ইউপি সদস্য তার একমাত্র ছেলে উত্তমকে দিয়ে বোন রুপালী আত্মহত্যা করাইয়েছে লিখিত এজাহারে স্বাক্ষর করতে বাধ্য করে। হত্যাকান্ডকে আড়াল করতে-ই তার সাথে আলোচনার সুযোগ না দিয়ে তড়িঘড়ি করে ছেলে উত্তমকে উঠিয়ে নিয়ে তাকে ধমক দিয়ে জেদের প্রস্তুতকৃত কাগজে স্বাক্ষর দিতে বাধ্য করা হয়। উক্ত আত্মহত্যা ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তদের পক্ষে নানা সময়ে হুমকি ধমকিসহ ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থল থেকে তিনটি ফ্যান, জামার ছেঁড়া বোতাম ও প্যান্টের বেল্ট উদ্ধারের ঘটনা তার মেয়েকে হত্যার দাবিকে জোরালো করেছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

দুপুরের দিকে শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জ বাজার সংলগ্ন বাঘ বিধবা পল্লীতে রুপালী নামের (১৪) বছরের কিশোরীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়। ওই ঘটনায় বোনকে প্রতিবেশীর বখাটে ছেলে নিজের বাড়িতে ডেকে নিয়ে যাওয়ার পর স্থানীয় প্রভাবশালীরা দু’জনকে আটকে রাখার সময়ে তার বোন আত্মহত্যা করে মর্মে অভিযোগ এনে শ্যামনগর থানায় একটি মামলা করে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্রতারণার অভিযোগ এনে মামলাটিকে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের সংশ্লিষ্ট ধারায় রেকর্ড করে পুলিশ।

নিহত রুপালির মা বাঘ বিধবা পল্লীর বুলিদাসী ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বলেন, তার মেয়ে বাজারের একটি টেইলারিং হাউজে কাজ করতো। কমস্থলে বের হয়ে যাওয়ার ঘন্টা খানেক বাদে প্রতিবেশী প্রতিমা মন্ডল এসে তার মেয়েকে একই এলাকার বিকাশ মন্ডলের ছেলে রাজুর সাথে পাশের একটি ঘরের মধ্যে অবস্থান করার সময় স্থানীয়রা আটক করেছে বলে জানায়। বুলিদাসী বলেন, বিষয়টি জানতে পেরে তিনি দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে মেয়ের সাথে কথা বলেন। এসময় তিনি জানতে পারেন সে টেইলারিং হাউস বন্ধ দেখে বাড়িতে ফেরার পথে রাজু তাহাকে জোরকরে টেনে হেচড়ে ঐ ঘরের মধ্যে নিয়ে যায়। কিছু সময় পরে স্থানীয় রুহুল আমিন, আব্দুর রব, মহিদুল সহ অন্যান্যরা ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে রাজুকে একটি থাপ্পড় মেরে বের করে দেয় এবং তাকে আটকে রেখেছে। বুলি অভিযোগ করে বলেন, তিনি মেয়েকে ঘটনাস্থল থেকে বাড়িতে ফিরতে চাইলে মহিদুল তাকে বাড়ি ফিরে তাকে মেয়ের জন্য রান্না বান্নার কথা বলে সেখান থেকে ভাগিয়ে দেয়। এমনকি তার মেয়েকে নিজের দায়িত্বে ভাল পাত্র দেখে বিয়ে দেয়ার আশ্বাস বাণী শুনিয়ে রফিকুল ইসলাম তকে দ্রুত বাড়ি ফিরে যেতে বলে।

বুলি দাসী অভিযোগ করে বলেন, তাকে যখন মেয়ে রেখে বাড়ি ফিরে যেতে বলা হয় সে সময় ঐ ঘরের মধ্যে (সেখানে রুপালীর মৃত দেহ আবিষ্কার করা হয়) খাটের উপর রুহুল আমিন শুয়ে ছিল। এ ছাড়া ঘরের মালিক পূর্ণিমা মন্ডল ঘরের বাইরে এবং রুপালী ঘরের দরজার ভিতরে দাঁড়িয়ে ছিল। বুলি আরো বলেন, মেয়ের দায়িত্ব তারা নিচ্ছে জানিয়ে রান্নার জন্য বাড়িতে ফিরতে বাধ্য করার ঘন্টা খানেক পর ওই পূর্ণিমা এসেই তাকে মেয়ের গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যার খবর শোনায়।

বুলি দাসী আরো অভিযোগ করে বলেন, পূর্ণিমা ও রফিকুলের উপস্থিতি তার মেয়ের আত্মহত্যার ঘটনা নিছক মিথ্যা। মূলত তার মেয়ের শ্লালীনতা হানীর পর বা শ্লালীনতাহানীর চেষ্টার সময় তাকে হত্যা করা হয়েছে। পরে বিষয়টি লুকানোর জন্য আত্মহত্যার নামে মিথ্যা নাটক সাজানো হয়েছে। রুপালীর মা বুলি দাসী বলেন, অর্থ ও প্রভাব প্রতিপত্তির কাছে তারা পেরে উঠবেন কিনা জানে না। তবু পিতৃহারা কন্যার মৃত্যুর ঘটনায জড়িতদের শাস্তির দাবি থেকে তিনি পিছু হঠবেন না।

 

কিশোর বাতায়ন এর অবহিতকরন সভা
                                  

॥ রাহাত আমিন অভি, বাগেরহাট ॥

বর্তমান যুগকে তথ্য-প্রযুক্তির যুগ বলা হয় । এই তথ্য-প্রযুক্তির জ্ঞানভান্ডারকে কিশোর-কিশোরীর মধ্যে ছড়িয়ে দিয়ে তথ্য-প্রযুক্তির প্রতি কিশোর-কিশোরীর জ্ঞানবৃদ্ধি করার লক্ষ্যে এবং বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে বাগেরহাটের জেলা প্রশাসকের কার্য্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে "কিশোর বাতায়ন এবং আমাদের জেলা আমাদের অহংকার প্রতিযোগীতা বিষয়ক- অবহিতকরন সভা" অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ সরকার শিক্ষার্থীদের জন্য একটি ওয়েবসাইট চালু করেছেন । যার নাম কিশোর বাতায়ন। (কিশোর বাতায়নঃ িি.িশড়হহবপঃ.বফঁ.নফ)।

এ ওয়েবসাইটটি ১২-১৯ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের জন্য একটি অনলাইনভিত্তিক শিক্ষা বিনোদনমূলক প্ল্যাটফর্ম। এ ওয়েবসাইটে রয়েছে- বই, কমিক্স, চলচ্চিত্র বা শর্ট ফিল্ম, গনিত ও বিজ্ঞানের এক্সপেরিমেন্ট, লাইফ স্কিল প্রভৃতি বিষয়ে শিক্ষার্থীদের বয়স অনুযায়ী আকর্ষনীয় কন্টেন্টের সমাহার ।

এই কিশোর বাতায়নের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগীতায়ও অংশগ্রহন করতে পারবে । যা জেলা পর্যায়ে বিচার বিশ্লেষন করে বাছাইকৃত কন্টেন্টের উপর পুরস্কার প্রদান করা হবে। কিশোর বাতায়নের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা জমা দিতে পারবে - ১. গল্প, প্রবন্ধ বা কবিতা লিখা । ২. ছবি আঁকা । ৩. ছবি তোলা বা ফটোগ্রাফি । ৪. ভিডিও বানানো । ৫. গান বা কবিতা আবৃতি এবং অন্য কোন কিছুর অডিও ক্লিপ । অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষনা করেন বাগেরহাটের সুযোগ্য জেলা প্রশাসক জনাব তপন কুমার বিশ্বাস ।

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করেন বাগেরহাট জেলাধীন ১০০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী ও সম্মানিত শিক্ষকমন্ডলীগন । অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বেলায়েত হোসেন ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ জনাব মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন।

অনুষ্ঠানটি আয়োজনেঃ সংশ্লিøষ্ট জেলা প্রশাসক ও একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম। মূল স্লোগান ছিল "বাগেরহাটঃ সুন্দরবনের প্রবেশদ্বার"।

রাড়ীপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন
                                  

॥ শরীফ তুহিন মাহমুদ, কচুয়া ॥

বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলার রাড়ীপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাইনবোর্ড বাজারে এ সম্মেলন উদ্ভোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কচুয়া উপজেলা আহবায়ক শেখ মনিরুজ্জামান ঝুমুর। শেখ মনিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এ সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও কচুয়া উপজেলা চেয়ারম্যান এস.এম.মাহফুজুর রহমান।

মেহেদেী হাসান বাবুর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শিকদার আবু বক্কর সিদ্দিক, জেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক শাহনেওয়াজ মোল্লা দোলন, মোঃ ফারুক তালুকদার, জেলা শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক খান আবুবক্কর সিদ্দিক। পৌর যুবলীগের আহবায়ক হুমায়ুন কবির পলি, রাড়ীপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান তাছলিমা বেগম, ধোপাখালী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শেখ মকবুল হোসেন, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক সুজন দিদার, সুজন শিকদার, জেলা শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ কাইয়ুম হোসেন, রাড়ীপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি সুবোধ চন্দ্র সাহা, সাধারন সম্পাদক মোল্লা লুৎফর রহমান, উপজেলা যুবলীগের সদস্য আক্তারুজ্জামান তনু। বক্তারা আগামী নির্বাচনে শেখ পরিবারের সদস্য শেখ সারহান নাসের তন্ময়কে প্রার্থী হিসাবে মনোনয়নের দাবী জানান।

তারা আরো বলেন, সকল বিভেদ ভুলে আগামী নির্বাচনে নৌকার বিজয় ধরে রাখতে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে। এসময়ে নরেন্দ্রপুর ৮নং ওয়ার্ডের যুবলীগের সভাপতি শেখ মোস্তাক আহম্মেদ এর নেতৃত্বে দুই শতাধিক নেতাকর্মী নিয়ে মঞ্চে এসে উপস্থিত হয়। সম্মেলনে শেখ মোঃ মেহেদী হাসান বাবুকে সভাপতি ও বায়েজীদ হোসেনকে সাধারন সম্পাদক করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ঠ কমিটি গঠন করা হয়।

যোগিপোল ইউনিয়ন যুবদলের প্রস্তুতি সভা
                                  

॥ ফুলবাড়ীগেট খুলনা ॥ 

যোগিপোল ইউনিয়ন যুবদলের কর্মী সভা সফলের লক্ষে এক প্রস্তুতি সভা ফুলাবাড়ীগেট জমজম মার্কেট চত্বরে মোঃ হাসিবুর রহমান উজ্জলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় বক্তৃতা করেন মোঃ কামরুল ইসলাম. মোঃ কামরুজ্জান, ওয়াহিদুজ্জামান, মিজানুর রহমান, দুলু, জুয়েল, জসিম, রাসেল, ইব্রাহিম, হানিফ প্রমুখ। সভায় মহানগর যুবদলের ঘোষিত যোগিপোল ইউনিয়ন যুবদলের কর্মী সভা সফল, যুবদল নেতা হাসিবুর রহমান উজ্জলকে আহবায়ক করে কমিটি গঠন সহ বিভিন্ন পদক্ষেপের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এছাড়া মহানগর যুবদলের সভাপতি মাহবুব হাসান পিয়ারু ও সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হুদা চৌধরী সাগরের নেতৃত্বে আগামী সকল আন্দোলন সংগ্রামে বলিষ্ট ভূমিকা রেখে যোগিপোল ইউনিয়ন যুবদল কাজ করার জন্য অঙ্গিকার ব্যাক্ত করেন।


   Page 1 of 6
     সারাদেশ
শ্রীপুরে লেভেল ক্রসিংয়ে জনতার ঝুঁকিপূর্ণ পাড়াপার
.............................................................................................
বর উধাও, বিয়ের পিড়িতে বড় ভাই
.............................................................................................
নারী উন্নয়ন ফোরামের শিক্ষা উপকরন বিতরণ
.............................................................................................
এমপি‘র রোষানলে অর্ধশতাধিক সংখ্যালঘু পরিবার
.............................................................................................
কচুয়ায় দুর্বৃত্তদের হামলা আহত ৩, বসতঘর ভাংচুর, মালামাল লুট
.............................................................................................
নিখোঁজ পুত্রের খোজে দ্বারেদ্বারে ঘুরছে রাশেদ
.............................................................................................
বাগেরহাটে ভন্ডের খপ্পরে সর্বশান্ত দিনমজুর পরিবার
.............................................................................................
বেকার শ্রমজীবীর মাঝে সুদমুক্ত ঋণ বিতরণ
.............................................................................................
র‌্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে লিটন বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড নিহত
.............................................................................................
ডাক্তারের হাতে মুক্তিযোদ্ধা ও তাঁর স্ত্রী লাঞ্চিত
.............................................................................................
চাইল্ড পার্লামেন্টের ১৪তম অধিবেশন অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
পিরোজপুর মাল্টার সাম্রাজ্য হিসেবে খ্যাতি অর্জন
.............................................................................................
কিশোরীর রস্যজনক আত্মহত্যা
.............................................................................................
কিশোর বাতায়ন এর অবহিতকরন সভা
.............................................................................................
রাড়ীপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন
.............................................................................................
যোগিপোল ইউনিয়ন যুবদলের প্রস্তুতি সভা
.............................................................................................
আটোয়ারী উপজেলা প্রেস ক্লাবের কমিটি গঠন
.............................................................................................
মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত জাহিদ শেখ
.............................................................................................
প্রতিবন্দ্বী বৃদ্ধকে হত্যার দায়ে একজনের মৃত্যুদন্ড
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রী নির্দেশিত তালগাছ রোপন কর্মসূচী বাস্তবায়িত
.............................................................................................
মুক্তিযোদ্ধা মফিজ নিখোঁজ
.............................................................................................
ইসলাম প্রচার পরিষদের আলোচনা সভা
.............................................................................................
এসপি’র নির্দেশের পরও নারী নির্যাতন মামলা করতে বাদীর খরচ ২১ হাজার
.............................................................................................
কচুয়ায় কমিউনিটি পুলিশিং উলক্ষ্যে আলোচনাসভা ও র‌্যালী
.............................................................................................
গুটিকয়েক জঙ্গী-সন্ত্রাসীর জন্য উন্নয়নের অগ্রযাত্রা থেমে থাকবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
সত্যকে ধামা চাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে ফিরোজা বেগম
.............................................................................................
নিখোঁজ শহিদার সন্ধানে পুরস্কার ঘোষণা
.............................................................................................
বাড়ী ও মন্দিরের জায়গা দখলের চেষ্টা পালিয়ে বেড়াচ্ছে একটি হিন্দু পরিবার
.............................................................................................
মহেশ্বারপাশা যুব ফোরামের উদ্যোগে ত্রান বিতরণ ও চিকিৎসা সেবা প্রদান
.............................................................................................
লম্পট স্বামীর মামলা প্রত্যাহারের হুমকি বিয়ের স্বীকৃতি মেলেনি অনিতার
.............................................................................................
কালীগঞ্জে জাপার বাউল সন্ধ্যা
.............................................................................................
বৃক্ষরোপন ও বিতরনের মধ্য দিয়ে তারুন্য-৭১ এর আত্মপ্রকাশ
.............................................................................................
পিরোজপুরে আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
সরকার চলনবিলবাসীর পাশে আছে -প্রতিমন্ত্রী পলক
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু পেশাজীবীলীগের ঈদ পূর্ণমিলনী
.............................................................................................
বাগেরহাটে পরিত্রান ক্লিনিকের বিরুদ্ধে শিশু হত্যা মামলা
.............................................................................................
কুকুরের উপদ্রুপ ॥ সর্বসাধরন আতঙ্কে
.............................................................................................
১৭ মাস পর মুম্বাই থেকে ফিরলো সাগর
.............................................................................................
শ্রীপুরে টাকা চাওয়ায় স্ত্রীর মাথায় ভাতের মাড় ঢেলো দিলো স্বামী
.............................................................................................
ধর্ষন মামলায় যুবক আটক
.............................................................................................
আটোয়ারীতে ফেনসিডিলসহ দুইজন আটক
.............................................................................................
আটোয়ারীতে ফেনসিডিলসহ দুইজন আটক
.............................................................................................
কচুয়ায় রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধে মানবন্ধন
.............................................................................................
দৌলতপুরে এক যুবক সাড়ে পাঁচ মাস নিখোঁজ
.............................................................................................
মোল্লাহাটে সাজাপ্রাপ্ত ৪ আসামি আটক
.............................................................................................
একডালা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রাক সুবর্ণজয়ন্তী ও শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী
.............................................................................................
কচুয়ায় কাভার্ড ভ্যানসহ গরু চোর আটক
.............................................................................................
ধর্ষন মামলায় বাদীকে হুমকী আসামীরা প্রকাশ্যে ॥ খুজে পাচ্ছেনা পুলিশ
.............................................................................................
সাতক্ষীরা টু কালিগঞ্জ মহাসড়কের নলতা কদমতলা মোড় হতে বাগবাটি কামারবাড়ি পর্যন্ত রাস্তাটি ক্ষত-বিক্ষত চলাচলের অনুপযোগী
.............................................................................................
সামুদ্রিক প্রানী বিষয়ক কর্মশালা ও প্রদর্শনী আক্কাছ আলীকে ডাবলুসিএস কর্তৃক সর্বোচ্চ স্বীকৃতি
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

Editor & Publisher: Rtn. Md Reaz Uddin
Mobile:+88-01711391530, Email: md.reaz09@yahoo.com Corporate Office
53,Modern mansion(8th floor),Motijheel C/A, Dhaka
E-mail:manabadhikarkhabar@gmail.com,manabadhikarkhabar34@yahoo.com,
Tel:+88-02-9585139
Mobile: +8801978882223 Fax: +88-02-9585140
    2015 @ All Right Reserved By manabadhikarkhabar.com    সম্পাদকীয়    Adviser List

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]