বাংলার জন্য ক্লিক করুন

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   শেয়ার করুন
Share Button
   অর্থনীতি-ব্যবসা
  নানামুখী পদক্ষেপে কমছে সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ
  10, October, 2019, 12:49:58:PM

সঞ্চয়পত্রে অতিমাত্রায় বিনিয়োগ নিরুৎসাহিত করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। এতে করে সুফল মিলছে। চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে (জুলাই-আগস্ট) সঞ্চয়পত্র নিট বিক্রি হয়েছে তিন হাজার ৬৫৯ কোটি টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় ৬০ শতাংশ কম। গত ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জুলাই-আগস্ট সময়ে নিট সঞ্চয়পত্রের বিক্রির পরিমাণ ছিল নয় হাজার ৫৭ কোটি টাকা।

জাতীয় সঞ্চয় অধিদফতরের সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে। এতে বলা হয়েছে, সঞ্চয়পত্রে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অধিক বিনিয়োগ নিরুৎসাহিত করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। ৫ লাখ টাকার বেশি সঞ্চয়পত্রের সুদের ওপর উৎসে কর ৫ শতাংশের পরিবর্তে ১০ শতাংশ করা হয়েছে। এক লাখ টাকার বেশি সঞ্চয়পত্র কিনতে কর শনাক্তকরণ নম্বর বা টিআইএন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। সঞ্চয়পত্রের সব লেনদেন ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে করতে হচ্ছে ক্রেতাদের। দুর্নীতি কিংবা অপ্রদর্শিত আয়ে সঞ্চয়পত্র কেনা বন্ধ করতে ক্রেতার তথ্যের একটি ডাটাবেসে সংরক্ষণের লক্ষ্যে অভিন্ন সফটওয়্যারের মাধ্যমে বিক্রি কার্যক্রম শুরু করেছে।

 

এছাড়া সঞ্চয়পত্রে বড় বিনিয়োগে কঠোর হয়েছে সরকার। চাইলেই ভবিষ্য তহবিল বা প্রভিডেন্ট ফান্ডের অর্থে সঞ্চয়পত্র কেনার সুযোগ নেই। এখন প্রভিডেন্ট ফান্ডের অর্থ দিয়ে সঞ্চয়পত্র কিনতে হলে কর কমিশনারের প্রত্যয়ন লাগে। পাশাপাশি কৃষিভিত্তিক ফার্মের নামে সঞ্চয়পত্র কিনতে লাগছে উপকর কমিশনারের প্রত্যয়ন। এসব কারণে সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ কমেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

অধিদফতরের হালনাগাদ প্রতিবেদনের তথ্য বলছে, চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে মোট সঞ্চয়পত্র বিক্রি হয়েছে ১১ হাজার ৩০৫ কোটি ৭২ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র বিক্রি হয়েছে। এর মধ্যে আগের কেনা সঞ্চয়পত্রের মূল ও সুদ পরিশোধ বাবদ ব্যয় হয়েছে ৭ হাজার ৬৪৬ কোটি ১৯ লাখ টাকা। এর মধ্যে সুদ বাবদ পরিশোধ করা হয় ৪ হাজার ৭৮০ কোটি ১০ লাখ টাকা। আর দুই মাসে সঞ্চয়পত্রের নিট বিক্রির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৬৫৯ কোটি ৫৪ লাখ টাকা।

এদিকে বাজেট ঘাটতি মেটাতে সরকার গেল ২০১৮-১৯ অর্থবছরে সঞ্চয়পত্র থেকে যে পরিমাণ অর্থ নেয়ার লক্ষ্য ধরেছিল, তার চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ ঋণ নেয়।

অধিদফতরের তথ্য বলছে, গত অর্থবছরের বাজেটে সঞ্চয়পত্র থেকে ২৬ হাজার ১৯৭ কোটি টাকা ঋণের লক্ষ্য ছিল সরকারের। বিক্রি বাড়তে থাকায় সংশোধিত বাজেটে লক্ষ্যমাত্রা বাড়িয়ে ৪৫ হাজার কোটি টাকা ঠিক করা হয়। কিন্তু অর্থবছর শেষে নিট বিক্রি দাঁড়িয়েছে ৪৯ হাজার ৯৩৯ কোটি টাকা। সব মিলিয়ে সঞ্চয়পত্রে সরকারের ঋণের স্থিতি দাঁড়ায় ২ লাখ ৮৮ হাজার কোটি টাকা। সরকারের এ খাতের ঋণ গত অর্থবছরে তার আগের অর্থবছরের চেয়ে তিন হাজার ৪০৯ কোটি টাকা বেশি।

এমন পরিস্থিতিতে চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরে সঞ্চয়পত্র থেকে ২৭ হাজার কোটি টাকা ঋণ নেয়ার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে সরকার।

এর আগে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ৪৪ হাজার কোটি টাকা সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে বিক্রি হয় ৪৬ হাজার ৫৩০ কোটি টাকা। এর আগে ২০১৬-১৭ অর্থবছর সঞ্চয়পত্র থেকে সরকার পেয়েছিল ৫২ হাজার ৪১৭ কোটি টাকা। এ রকম পরিস্থিতির মধ্যে চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরে সঞ্চয়পত্র থেকে ২৭ হাজার কোটি টাকা ঋণ নেয়ার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে সরকার।

জানা গেছে, এর আগে সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ নিরুৎসাহিত করতে সর্বশেষ ২০১৫ সালের মে মাসে সব ধরনের সঞ্চয়পত্রের সুদহার গড়ে ২ শতাংশ করে কমানো হয়েছিল।

বর্তমানে পরিবার সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার ১১ দশমিক ৫২ শতাংশ। পাঁচ বছর মেয়াদি বাংলাদেশ সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার ১১ দশমিক ২৮ শতাংশ, তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার ১১ দশমিক ০৪ শতাংশ, পেনশনার সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার ১১ দশমিক ৭৬ শতাংশ। ২০১৫ সালের ২৩ মের পর থেকে এই হার কার্যকর আছে। এর আগে সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার ছিল ১৩ শতাংশেরও বেশি।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, জাতীয় সঞ্চয় স্কিমগুলোতে বিনিয়োগকৃত অর্থের ওপর একটি নির্দিষ্ট সময় পরপর মুনাফা প্রদান করে সরকার। মেয়াদপূর্তির পরে বিনিয়োগকৃত অর্থও ফেরত প্রদান করা হয়। প্রতি মাসে বিক্রি হওয়া সঞ্চয় স্কিমগুলো থেকে প্রাপ্ত বিনিয়োগের হিসাব থেকে আগে বিক্রি হওয়া স্কিমগুলোর মূল ও মুনাফা বাদ দিয়ে নিট ঋণ হিসাব করা হয়। ওই অর্থ সরকারের কোষাগারে জমা থাকে এবং সরকার তা প্রয়োজন অনুযায়ী বাজেটে নির্ধারিত বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় প্রকল্প বাস্তবায়নে কাজে লাগায়। এ কারণে অর্থনীতির পরিভাষায় সঞ্চয়পত্রের নিট বিনিয়োগকে সরকারের ‘ঋণ’ বা ‘ধার’ হিসেবে গণ্য করা হয়।



সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 455        
   আপনার মতামত দিন
     অর্থনীতি-ব্যবসা
করোনায় মৃত্যু ৩৬ : আক্রান্ত দুই সহস্রাধিক ব্যাংকার
.............................................................................................
বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেডের সঙ্গে ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডের চুক্তি স্বাক্ষর
.............................................................................................
নানামুখী পদক্ষেপে কমছে সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ
.............................................................................................
এনবিআর ও রিহ্যাব প্রাক-বাজেট আলোচনা
.............................................................................................
নভোএয়ারের আয়োজনে এভিয়েশন সেইফটি সেমিনার
.............................................................................................
নভোএয়ারের কক্সবাজার ও কলকাতা ভ্রমন প্যাকেজ ঘোষণা
.............................................................................................
অর্থ ও বাণিজ্য ডেনিম এক্সপো
.............................................................................................
ইউসিবিএল’র ৩৫তম সাধারন সভা অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
মুকসুদপুরে ফার্স্ট সিকিউরিটির এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট।
.............................................................................................
মাহবুব উল আলম ইসলামী ব্যাংকের নতুন এমডি
.............................................................................................
আইসিএমএবি অ্যাওয়ার্ড পেল জনতা ব্যাংক
.............................................................................................
খলিলুর রহমান আবার ন্যাশনাল হাউজিংয়ের এমডি
.............................................................................................
প্রিমিয়ার ব্যাংকের ১৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত
.............................................................................................
বসুন্ধরায় ডেনিম এক্সপো সমাপ্ত
.............................................................................................
আবারও কমল স্বর্ণের দাম
.............................................................................................
ন্যাশনাল ব্যাংকের আঞ্চলিক প্রধানদের কৌশলগত সম্মেলন
.............................................................................................
শেষ হলো ৬ষ্ঠ বাংলাদেশ ডেনিম এক্সপো-২০১৭
.............................................................................................
ঈদে নভোএয়ারে ২০১৭ টাকায় ভ্রমণের সুযোগ
.............................................................................................
ঢাকা ব্যাংকের সিএসআর কার্যক্রম
.............................................................................................
ঢাকায় সিএনজির পরিবর্তে আসছে বাজাজের ‘কিউট’গাড়ি
.............................................................................................
সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা পুঁজিবাজারে
.............................................................................................
৬.৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হবে বাংলাদেশে
.............................................................................................
ইসলামী ব্যাংকের পরিচালনায় বড় পরিবর্তন
.............................................................................................
ভালো গ্রহিতাদের প্রণোদনা দিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তাগিদ
.............................................................................................
ভারতে নির্বাচনে ধর্মের ব্যবহার নিষিদ্ধ
.............................................................................................
নাস্তিক জুকারবার্গ এখন ধর্মের পথে
.............................................................................................
ইন্দোনেশিয়ায় নৌকায় অগ্নিকাণ্ডে ২৩ যাত্রীর মৃত্যু
.............................................................................................
ইস্তাম্বুলে নাইটক্লাবে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত বেড়ে ৩৯
.............................................................................................
ধর্মে বিশ্বাস ফিরেছে জুকারবার্গের
.............................................................................................
ভারতে ৫০০ ও হাজার টাকার নোট বাতিলে দিশাহারা মানুষ
.............................................................................................
৯ মাসে পশ্চিমবঙ্গের দার্জিলিং জেলায় প্রায় আড়াই হাজার নারী, শিশু ও কিশোরী নিঁখোজ
.............................................................................................
জানুয়ারি থেকেই কলকাতা-খুলনা ট্রেন
.............................................................................................
ভারতে শান্তিতে সমাপ্ত হলো দুর্গা উৎসব ও মহররম
.............................................................................................
রাম ঠাকুরের আশ্রমের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে চট্টগ্রামের কৈবল্য ধামের ভক্তরা
.............................................................................................
ভারতের আবাসিক স্কুলে ১২ ছাত্রীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
কলকাতায় ‘আহারে বাংলা উৎসব’ বাংলাদেশের খাবার খেতে উপচেপড়া ভিড়
.............................................................................................
ডোপ মেলডোনিয়াম সেবনের অভিযোগ মামলায় জিতেছেন শারাপোভা
.............................................................................................
উড়িষ্যার ঘটনা নিয়ে শর্টফিল্ম
.............................................................................................
১৬ দফা দাবিতে কলকাতায় কৃষক বিক্ষোভ ও সমাবেশ
.............................................................................................
মদমুক্ত পশ্চিমবঙ্গ গড়ার দাবি
.............................................................................................
চুল বিক্রি করে দু’মাসে মন্দিরের আয় ১৮ কোটি রুপি!
.............................................................................................
শান্তিনিকেতনে বাংলাদেশ ভবন
.............................................................................................
মৃতব্যক্তির সাথে এ কেমন অমানবিকতা কোমর ভেঙে বাঁশে ঝুলিয়ে নেওয়া হলো বৃদ্ধার লাশ
.............................................................................................
হায়-রে মানবতা! টাকা নেই, স্ত্রীর লাশ কাঁধে ১২ কিলোমিটার!
.............................................................................................
পশ্চিমবাংলায় বন্দী বাংলাদেশী শিশু-কিশোরদের ফেরত পাঠানোর দাবি
.............................................................................................
ফারাক্কা বাঁধ তুলে দেওয়ার প্রস্তাব বিহার মুখ্যমন্ত্রীর
.............................................................................................
ভারতে পাচারের শিকার ৪ কিশোর-কিশোরী বাংলাদেশে
.............................................................................................
যৌন হয়রানির অভিযোগ আনতে পারবে ছেলেরাও
.............................................................................................
মমতার সঙ্গে সৌজন্য সাখ্যাত বাংলাদেশের হাই কমিশনারের তিস্তার পানিবন্টন চুক্তি সম্পাদনের আশ্বাস
.............................................................................................
২৯৪ আসনের মধ্যে ২১১টিই তৃণমূলের পশ্চিমবঙ্গের মসনদে ফের মমতার শপথ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

Editor & Publisher: Rtn. Md Reaz Uddin
Corporate Office
Kabbocash Bhabon (5th Floor), Room No: 5/18, Kawran Bazar, Dhaka-1215.
E-mail:manabadhikarkhabar11@gmail.com,manabadhikarkhabar34@yahoo.com,
Tel:+88-02-41010307
Mobile: +8801978882223 Fax: +88-02-41010308
    2015 @ All Right Reserved By manabadhikarkhabar.com    সম্পাদকীয়    আর্কাইভ

   
Dynamic SOlution IT Dynamic POS | Super Shop | Dealer Ship | Show Room Software | Trading Software | Inventory Management Software Computer | Mobile | Electronics Item Software Accounts,HR & Payroll Software Hospital | Clinic Management Software Dynamic Scale BD Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale Digital Load Cell Digital Indicator Digital Score Board Junction Box | Chequer Plate | Girder Digital Scale | Digital Floor Scale