| বাংলার জন্য ক্লিক করুন

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
সম্পাদক পরিষদের সভাপতি মাহফুজ আনাম, সম্পাদক নঈম নিজাম

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন 

ডইলি স্টার সম্পাদক ও প্রকাশক মাহফুজ আনামকে সভাপতি ও বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজামকে সাধারণ সম্পাদক করে সম্পাদক পরিষদে`র নতুন নির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়েছে।
১৫ সেপ্টেম্বর ডেইলি স্টার সেন্টারে অনুষ্ঠিত এক সভায় এই কমিটি গঠন করা হয়। নতুন কমিটিতে সহ-সভাপতি করা হয়েছে ইত্তেফাক সম্পাদক তাসমিমা হোসেনকে। এছাড়া সহকারী সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আছেন বণিক বার্তা সম্পাদক ও প্রকাশক দেওয়ান হানিফ মাহমুদ এবং কোষাধ্যক্ষ হিসেবে আছেন সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি। কমিটিতে নির্বাহী সদস্য হিসেবে ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, মানবজমিন সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী, যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম ও দৈনিক আজাদী সম্পাদক এম এ মালেক। দুই বছর মেয়াদি নতুন এই নির্বাহী কমিটি ১ অক্টোবর থেকে দায়িত্ব গ্রহণ করেছে। ২০২১ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর এই কমিটির মেয়াদ শেষ হবে। সভায় সম্পাদক পরিষদের একটি ওয়েবসাইট চালু, নতুন সদস্য যুক্ত করা এবং সংবাদপত্রের স্বাধীনত ও সাংবাদিকতা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে সেমিনার ও ইভেন্ট আয়োজনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়া সম্পাদক পরিষদ আগামী মাসগুলোতে প্রিন্ট মিডিয়ার ভবিষ্যৎ শক্তিশালীকরণ ও তৎসংশ্লিষ্ট চ্যালেঞ্জ নিয়ে সেমিনার আয়োজনের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। পরিষদের কার্যক্রম এবং সদস্যপদ জেলা পর্যায়ে বিস্তৃত করারও সিদ্ধান্ত হয় সভায়। সংবাদপত্রের স্বাধীনতা ও মত প্রকাশের অধিকার সুরক্ষায় সক্রিয় ভূমিকা পালন, সাংবাদিকতার পেশাগত মানোন্নয়ন ও সম্পাদকীয় প্রতিষ্ঠান শক্তিশালী করার লক্ষ্যে ২০১৩ সালে `সম্পাদক পরিষদ` প্রতিষ্ঠা করা হয়। `সম্পাদক পরিষদে`র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন সমকালের প্রয়াত সম্পাদক গোলাম সারওয়ার।

সম্পাদক পরিষদের সভাপতি মাহফুজ আনাম, সম্পাদক নঈম নিজাম
                                  

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন 

ডইলি স্টার সম্পাদক ও প্রকাশক মাহফুজ আনামকে সভাপতি ও বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজামকে সাধারণ সম্পাদক করে সম্পাদক পরিষদে`র নতুন নির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়েছে।
১৫ সেপ্টেম্বর ডেইলি স্টার সেন্টারে অনুষ্ঠিত এক সভায় এই কমিটি গঠন করা হয়। নতুন কমিটিতে সহ-সভাপতি করা হয়েছে ইত্তেফাক সম্পাদক তাসমিমা হোসেনকে। এছাড়া সহকারী সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আছেন বণিক বার্তা সম্পাদক ও প্রকাশক দেওয়ান হানিফ মাহমুদ এবং কোষাধ্যক্ষ হিসেবে আছেন সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি। কমিটিতে নির্বাহী সদস্য হিসেবে ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, মানবজমিন সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী, যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম ও দৈনিক আজাদী সম্পাদক এম এ মালেক। দুই বছর মেয়াদি নতুন এই নির্বাহী কমিটি ১ অক্টোবর থেকে দায়িত্ব গ্রহণ করেছে। ২০২১ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর এই কমিটির মেয়াদ শেষ হবে। সভায় সম্পাদক পরিষদের একটি ওয়েবসাইট চালু, নতুন সদস্য যুক্ত করা এবং সংবাদপত্রের স্বাধীনত ও সাংবাদিকতা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে সেমিনার ও ইভেন্ট আয়োজনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়া সম্পাদক পরিষদ আগামী মাসগুলোতে প্রিন্ট মিডিয়ার ভবিষ্যৎ শক্তিশালীকরণ ও তৎসংশ্লিষ্ট চ্যালেঞ্জ নিয়ে সেমিনার আয়োজনের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। পরিষদের কার্যক্রম এবং সদস্যপদ জেলা পর্যায়ে বিস্তৃত করারও সিদ্ধান্ত হয় সভায়। সংবাদপত্রের স্বাধীনতা ও মত প্রকাশের অধিকার সুরক্ষায় সক্রিয় ভূমিকা পালন, সাংবাদিকতার পেশাগত মানোন্নয়ন ও সম্পাদকীয় প্রতিষ্ঠান শক্তিশালী করার লক্ষ্যে ২০১৩ সালে `সম্পাদক পরিষদ` প্রতিষ্ঠা করা হয়। `সম্পাদক পরিষদে`র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন সমকালের প্রয়াত সম্পাদক গোলাম সারওয়ার।

মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকা-ের জের বুয়েটে রাজনীতি নিষিদ্ধ ঘোষণা
                                  

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন :

উপাচার্যের ক্ষমতাবলে বুয়েটে ছাত্র-শিক্ষকদের সব ধরনের সাংগঠনিক রাজনীতি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সাইল ইসলাম। ১১ অক্টোবর শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টায় বুয়েট অডিটোরিয়ামে আবরার ফাহাদ স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালনের মধ্যদিয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রশাসনের বৈঠক শুরু হয়। এতে বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক মিজানুর রহমান, ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন অধ্যাপক ইয়াজ হোসেন, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মাসুদসহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনার শুরুতে ফাহাদ হত্যা মামলায় এজাহারভুক্ত সব আসামিকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে বলে জানান ভিসি। এ ঘটনায় মামলায় এজাহারভুক্ত আসামি ১৯ জন। ফাহাদের খুনিদের ফাঁসিসহ শিক্ষার্থীদের ১০ দফা দাবি নিয়ে বুয়েটের ১৫, ১৬, ১৭ ও ১৮ ব্যাচের সঙ্গে এ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শিক্ষার্থীদের শর্ত অনুযায়ী, গণমাধ্যমের সামনে আলোচনা করতে রাজি না হলেও পরে উপাচার্য সাংবাদিকদের সামনে আলোচনা করতে রাজি হন। তবে তিনি বৈঠক সরাসরি সম্প্রচার না করার শর্ত জুড়ে দেন। সরেজমিনে দেখা যায়, বিকেল সাড়ে তিনটা থেকে শিক্ষার্থীদের পরিচয়পত্র দেখে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়। শিক্ষার্থীদের দশ দফা দাবিগুলো ছিল, খুনিদের শনাক্ত করে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে, খুনিদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১১ অক্টোবরের মধ্যে আজীবন বহিষ্কার করতে হবে, আবরার হত্যা মামলার সব খরচ এবং ক্ষতিপূরণ বিশ্ববিদ্যালয়কে বহন করতে হবে, মামলা দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালের অধীন স্বল্পতম সময়ে নিস্পত্তি করতে হবে, অবিলম্বে চার্জশিটের কপিসহ অফিসিয়াল নোটিশ দিতে হবে, বুয়েটে সাংগঠনিক ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে, ঘটনার পর ভিসি কেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হননি এবং ৩৮ ঘণ্টা পর গিয়ে কোনো প্রশ্নের উত্তর না দেওয়ায় শিক্ষার্থীদের কাছে তার জবাব দিতে হবে, আবাসিক হলগুলোতে র‌্যাগের নামে এবং ভিন্নমত দমানোর নামে নির্যাতন বন্ধে প্রশাসনের সক্রিয় ভূমিকা নিশ্চিত করতে হবে, এ ধরনের ঘটনা প্রকাশে একটি কমন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতে হবে, নিরাপত্তার জন্য সব হলের উইংয়ের দু’পাশে সিসি ক্যামেরা বসাতে হবে এবং ১১ অক্টোবরের মধ্যে শেরেবাংলা হলের প্রভোস্টকে প্রত্যাহার করতে হবে। শিক্ষার্থীদের প্রথম দাবি নিয়ে ভিসি বলেন, এ ব্যাপারে আমরা সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। খুনিদের সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। সরকারের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে আমাদের আশ্বস্ত করা হয়েছে। সব অভিযুক্তকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কার করার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে তদন্ত কমিটি কাজ করছে। সবকিছু প্রসিডিউরের মধ্যে হচ্ছে। যদি তাড়াহুড়া করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় তাহলে আমরা যদি কোর্টে হেরে যাই তাহলে সমস্যা। তাই এজহারভুক্ত ১৯ জনকে সাময়কি বহিষ্কার করা হলো। তা এখন থেকে কার্যকর করা হবে। বুয়েট প্রশাসনকে মামলা পর্যবেক্ষণের দাবিতে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে আমরা একমত। সরকারের সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। সরকার আমাদের আশ্বস্ত করছেন। এ ব্যাপারে কোনো গাফিলতি করা হবে না। এ ব্যাপারে দ্রুত সময়ের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আমরা এ ব্যাপারে সরকারকে লিখিত দোবো। শুক্রবার হওয়ায় লিখিত দিতে পারিনি। চার্জশিটের অফিসিয়াল নোটিশ দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, চার্জশিটের জন্য আমাদের অপেক্ষা করতে হবে। আমরা এ ব্যাপারে সরকারকে জোর করতে পারবো না। তাছাড়া আইন নিজস্ব গতিতে কাজ করছে। চার্জশিট হাতে পেলে আমরা নোটিশে জানিয়ে দেবো। নির্যাতনের ঘটনা জানানোর জন্য কমন প্ল্যাটফর্মের বিষয়ে উপাচার্য জানান, আমি এ ব্যাপারে আইসিটি বিভাগের সঙ্গে কথা বলেছি। এ সাইটের মধ্যে কি কি থাকতে হবে তা তোমাদের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা করা হবে। এ প্রোগ্রামের জন্য এক সপ্তাহ সময় লাগবে। সবগুলো হলের উভয় পাশে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হবে।
উল্লেখ্য, ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলে ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মীর হাতে নির্দয় পিটুনির শিকার হয়ে মারা যান তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭ ব্যাচ) ছাত্র আবরার ফাহাদ। এ ঘটনায় নিহতের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে চকবাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাটির তদন্ত করতে ডিবিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ঘটনার পরদিন থেকে ১০ দফা দাবিতে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করে। এ মামলায় দু’দিনে ১৮ আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরমধ্যে ১৩ জনকে ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আটকরা হলেন- বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান রাসেল, সহ-সভাপতি মুহতামিম ফুয়াদ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার, উপ-সমাজকল্যাণ সম্পাদক ইফতি মোশারফ সকাল, ক্রীড়া সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম জিওন, গ্রন্থনা ও গবেষণা সম্পাদক ইশতিয়াক মুন্না, মুনতাসির আল জেমি, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভীর, মুজাহিদুর রহমান ও মেহেদী হাসান রবিন, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র শামসুল আরেফিন রাফাত (২১), ওয়াটার রিসোর্সেস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মো. মনিরুজ্জামান মনির (২১) ও একই ব্যাচের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র মো. আকাশ হোসেন (২১)। তবে এ ঘটনায়
কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান রাসেল, যুগ্ম-সম্পাদক মুহতাসিম ফুয়াদ, সাংগাঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার, ক্রীড়া সম্পাদক সেফায়েতুল ইসলাম জিওন, সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির, উপ-সমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল, উপদফতর সম্পাদক মুজতবা রাফিদ, ছাত্রলীগ সদস্য মুনতাসির আল জেমি, মুজাহিদুর রহমান ও এহতেমামুল রহমান রাব্বিকে বহিষ্কার করেছে।


জাতিসংঘের বিচার দাবি :
ভারতের সঙ্গে চুক্তির বিরোধিতার জেরে ছাত্রলীগের হাতে নির্মমভাবে নিহত বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি জানিয়েছে জাতিসংঘ। বাংলাদেশে নিযুক্ত জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া সেপ্পো।
০৯ অক্টোবর ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ-ডিকাব আয়োজিত ডিকাব টক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে নিযুক্ত জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া সেপ্পো এ দাবি জানান।
রাজধানীর বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ-বিস মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
ডিকাব টক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে নিযুক্ত জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া সেপ্পো বলেন, বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকা-ে আমরা ব্যথিত। এই হত্যাকা-ের আমরা সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করছি। এ বিষয়ে জাতিসংঘ থেকে একটি বিবৃতিও দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।


মার্কিন রাষ্ট্রদূত হতবাক :
২০১৯-১০-১০
ঢাকা: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ নিহতের ঘটনায় সমবেদনা জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার। ১০ অক্টোবর দূতাবাসের এক বার্তায় সমবেদনা জানান তিনি। বার্তায় মিলার বলেন, বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের হত্যাকা-ের ঘটনায় আমি হতবাক ও মর্মাহত। মত প্রকাশের স্বাধীনতা যেকোনো গণতন্ত্রের মৌলিক অধিকার। এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি তোলা সকল কণ্ঠস্বরের সঙ্গে আমরা একাত্ম ও তার পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি। ৬ অক্টোবর দিনগত রাতে বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭তম ব্যাচ) ছাত্র ফাহাদকে মারধর করে হত্যা করা হয়।


বিস্মিত ও মর্মাহত যুক্তরাজ্য :
বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় বিস্মিত ও মর্মাহত বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্য।
যুক্তরাজ্য হাইকমিশনের এক বার্তায় বলা হয়, বুয়েটে ঘটে যাওয়া ঘটনায় আমরা বিস্মিত ও মর্মাহত। যুক্তরাজ্য বাকস্বাধীনতা, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা, মানবাধিকার ও আইনের শাসন প্রসঙ্গে নিঃশর্তভাবে অঙ্গীকারবদ্ধ। ভারতের সঙ্গে চুক্তির বিরোধিতা করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন ফাহাদ। এর জের ধরে শেরেবাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে ডেকে নিয়ে তাকে পিটিয়ে হত্যা করেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। পরে তার লাশ সিঁড়িতে ফেলে রাখা হয়। এ ঘটনায় আবরারের বাবা ১৯ জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন। ।

মর্মাহত সুইজারল্যান্ড :
মানবজমিন ডেস্ক । ১২ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার । সর্বশেষ আপডেট: ৯:০৮
বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছে বাংলাদেশস্থ সুইজারল্যান্ডের দূতাবাস। ৯ অক্টোবর তাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পাতায় তারা এ নিয়ে বিবৃতি দিয়েছে। এতে তারা লিখেছে, বুয়েটের ইঞ্জিনিয়ারিং-এর ছাত্র আবরার ফাহাদের বেদনাদায়ক মৃত্যুতে আমরা মর্মাহত। বিবৃতিতে বলা হয়, সুইজারল্যান্ড বিশ্বের প্রতিটি মানুষের বাক স্বাধীনতা ও অধিকারের পক্ষে রয়েছে। আবরার হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিতের দাবিও তুলেছে সুইজারল্যান্ড দূতাবাস। বলা হয়েছে,যারা মানবাধিকারের মৌলিক বিষয়গুলো লঙ্ঘন করে তাদেরকে আন্তর্জাতিক মানদ- অনুযায়ী শাস্তির আওতায় নিয়ে আসতে হবে।

পিরোজপুরে সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালায় শ ম রেজাউল করিম শেখ হাসিনার শাসনামল গণমাধ্যমের জন্য স্বর্ণালী অধ্যায়
                                  

পিরোজপুর প্রতিনিধি 

গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, শেখ হাসিনার শাসনামল গণমাধ্যমের জন্য স্বর্ণালী অধ্যায়। কারণ তার আমলে গণমাধ্যম যতটা বিকশিত, শক্তিশালী ও স্বাধীন হয়েছে বিগত কোনো সরকারের সময় ততটা হয়নি। মন্ত্রী স্বাধীন গণমাধ্যমের কথা উল্লেখ করে একজন বিএনপি নেতার টেলিভিশনে ‘টক-শোর’ উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, তিনি বলেছেন (বিএনপি নেতা) শেখ মুজিবকে যেভাবে হত্যা করা হয়েছে, শেখ হাসিনাও সেভাবে হত্যা হবে, প্রকাশ্যে টেলিভিশনে এ কথাগুলো বলেছেন। আর এটা বলা সম্ভব হয়েছে কেবল শেখ হাসিনার সরকারের সময়। কারণ শেখ হাসিনা কারওটুটিচেপে ধরেন না, তিনি চান তথ্যের অবাধ প্রবাহ থাক। ১৯ সেপ্টেম্বর পিরোজপুরে বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউট পিআইবি কর্তৃক আয়োজিত জেলার সাংবাদিকদের জন্য তিন দিনব্যাপী অনুসন্ধানীমূলক রিপোর্টিং প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন। পিরোজপুর জেলা সার্কিট হাউস মিলনায়তনে পিআইবির মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদের সভাপতিত্বে এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন, পিআইবির পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও যুগান্তরের বিশেষ সংবাদদাতা শেখ মামুনুর রশিদ এবং পিরোজপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি জহিরুর হক টিটু। এর আগে মন্ত্রী, পিআইবির মহাপরিচালক ও অতিথিবৃন্দকে প্রেস ক্লাব সদস্যরা ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। প্রশিক্ষণে পিরোজপুর প্রেস ক্লাবের মোট ৪০ জন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকরা প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণ কর্মশালা উদ্বোধনের আগে বঙ্গোপসাগরে ঝড়ের কবলে পড়ে পিরোজপুরের নিহত ছয়জন জেলে পরিবারের সদস্যদের মাঝে তার ব্যক্তিগত অনুদান হিসেবে প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রত্যেককে নগদ ১০ হাজার টাকা ও চাল সাহায্য হিসেবে দেয়া হয়। এ সময় মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেন, উপকূলবর্তী জনপদ পিরোজপুর জেলাকে প্রকৃতির সঙ্গে যুদ্ধ করে বেঁচে থাকতে হয়। সিডর ও আইলার মতো প্রলয়ংকারী ঘূর্ণিঝড়কে মোকাবেলা করে এ জেলার মানুষ বেঁচে ছিল। দুর্যোগের কারণে ঘর-বাড়ি, জীবনহাণি এমনকি শেষ অবলম্বনটুকুও আমাদের হারাতে হচ্ছে। কিন্তু বর্তমান সরকারের সময় দেখা গেছে প্রাকৃতিক দুর্যোগ আসার আগেই আমাদের পূর্ব প্রস্তুতিসহ দুর্যোগকালীন ও পরবর্তী করণীয় সব ধরনের প্রস্তুতি থাকায় এখন আর সেই ধরনের ক্ষয়-ক্ষতির আশংকা থাকে না।

ভারত ভ্রমণকালে অসুস্থ হলে মেডিক্যাল ভিসা লাগবে না
                                  

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন
ট্যুরিস্ট, বিজনেস, এন্ট্রিসহ যে কোনো বৈধ ভিসা থাকলে ভারতে চিকিৎসা করানো যাবে। বৈধ ভিসায় ভারতে ভ্রমণকারী কোনো বাংলাদেশি নাগরিক সে দেশে থাকাকালীন অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ভারতীয় হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার জন্য তারপ্রাথমিক ভিসাকে মেডিক্যাল ভিসায় রুপান্তর করার প্রয়োজন পড়বে না। ৯ অক্টোবর ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কোনো বিদেশি নাগরিক ভারতে প্রবেশের আগে থেকেই আক্রান্ত এমন রোগের (অঙ্গ প্রতিস্থাপন ছাড়া) ইনডোর মেডিক্যাল ট্রিটমেন্ট প্রাথমিক ভিসাতেই করতে পারবেন। এর আগে ট্যুরিস্ট কিংবা অন্য ভিসায় ভারতে প্রাথমিক চিকিৎসার অনুমতি থাকলেও হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা করানোর অনুমতি ছিল না। নতুন এ নিয়মে ভারতে চিকিৎসা নেওয়া বাংলাদেশিদের জন্য আরও ঝামেলামুক্ত হলো।

সংবাদ সন্মেলনে এএসডি ও বিএসএএফ’র তথ্য ৬ মাসে ধর্ষণের শিকার ৪৯৬ শিশু
                                  

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদক

চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ছয় মাসে ৪৯৬ জন শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। সামাজিক মূল্যবোধের অবক্ষয় ও বিচারহীনতা সংস্কৃতির কারণেই প্রতিনিয়ত বাড়ছে ধর্ষণ ও শিশু নির্যাতনের সংখ্যা। ৬ অক্টোবর রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত ‘শিশু অধিকার ও বর্তমান পরিস্থিতি’ শীর্ষক সংবাদ সন্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। যৌথভাবে এ সম্মেলনের আয়োজন করে বেসরকারি সংস্থা অ্যাকশন ফর সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট (এএসডি) ও বাংলাদেশ শিশু অধিকার ফোরাম (বিএসএএফ)।
এসময় এএসডির ডেভেলপমেন্ট অব চিলড্রেন অ্যাট হাই রিক্স (ডিসিএইচআর) প্রকল্প ব্যবস্থাপক ইউ কে এম ফারহানা সুলতানা বলেন, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ৪৯৬ জন শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। ২০১৮ সালে এ সংখ্যা ছিল ৫৭১ জন। গত বছরের তুলনায় চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে দেশে শিশু ধর্ষণ বেড়েছে ৪১ শতাংশ হারে, যা অত্যন্তআশঙ্কাজনক বলে মন্তব্য করেন তিনি। ফারহানা সুলতানা বলেন, অধিকাংশ সময় সম্মান হারানোর ভয় ও প্রভাবশালীদের চাপের মুখে শিশু নির্যাতনের ঘটনা চাপা পড়ে যায়। ধর্ষণের মামলা করতেও ভয় পান অভিভাবকরা। আবার অনেক সময় দরিদ্র অভিভাবকের পক্ষে দীর্ঘদিন মামলা চালিয়ে নেওয়াও সম্ভব হয় না। অপরাধীর শাস্তি না হওয়ায় সমাজে শিশু ধর্ষণের ঘটনা বেড়েই চলেছে। শিশু নির্যাতনের আরও একটি বড় কারণ আইনের ধীরগতি। দ্রুত বিচার কার্যকর না হওয়ায় জামিনের সুযোগ পেয়ে যায় অপরাধীরা। আসামি প্রভাবশালী হলে সঙ্কট আরও বেড়ে যায়। তাদের চাপের মুখে নির্যাতিতরা সমঝোতায় যেতে ও মামলা তুলে নিতে বাধ্য হয়। এএসডির নির্বাহী পরিচালক জামিল এইচ চৌধুরী বলেন, শিশু ধর্ষণের ঘটনা ক্রমাগত বাড়ার প্রধান কারণ নির্যাতনের পরেও আইনের আওতায় আসছে না অপরাধীরা। ফলে একের পর এক শিশু ধর্ষণের মতো ঘটনা ঘটছে। আইন থাকলেও অনেক সময় তা উপেক্ষিত হচ্ছে। এছাড়া মামলা হলে যে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দেওয়া হয় তাতে আইনের ফাঁক-ফোকরে ছাড়া পেয়ে যায় অপরাধী।
জামিল এইচ চৌধুরী বলেন, ২০২১ সালে শিশু শ্রমমুক্ত বাংলাদেশ গঠনের যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সরকার তা বাস্তবায়ন সম্ভব নয়। কারণ দেশে ঝুঁকিপূর্ণ শ্রমে নিয়োজিত শিশুর সংখ্যা ১ দশমিক ২৮ মিলিয়ন। বিভিন্ন গবেষণা হতে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী বাংলাদেশে মোট গৃহকর্মীর সংখ্যা ২ মিলিয়ন। এর মধ্যে চার লাখ বিশ হাজার শিশু গৃহকর্মীর কাজে জড়িত, যার মধ্যে ৮৩ শতাংশই মেয়ে। এরাও নানাভাবে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়। তিনি বলেন, বিদ্যমান পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে কাজ করছে এএসডি। উন্নয়ন সংস্থাটি শিশুদের ঝুঁকিপূর্ণ কাজ থেকে প্রত্যাহার করে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা দিয়ে মূলধারার প্রাথমিক শিক্ষার সঙ্গে সম্পৃক্ত করছে। পাশাপাশি বয়সভেদে শিশুদের দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ঝুঁকিমুক্ত কাজ থেকে সরিয়ে আনা, বিনোদন ও আনন্দদায়ক খেলাধুলার আয়োজন করা ও রাত্রিকালীন আবাসনের ব্যবস্থা করেছে এসএসডি। বিএসএএফের পরিচালক আবদুছ সহিদ মাহমুদ বলেন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সরকার ২০২১ সালের মধ্যে ঝুঁকিমুক্ত শিশুশ্রম বন্ধে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, সেটা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বাস্তবায়নের সম্ভাবনা খুবই কম। বর্তমান পরিস্থিতিতে এটি সুস্পষ্ট। শিশুদের সুরক্ষায় বাজেট বাড়ানো ও তা বাস্তবায়নে সব মন্ত্রণালয়ের সমন্বয় করার আহ্বান জানান তিনি।

নাছিমা বেগম জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান
                                  

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে সাবেক সিনিয়র সচিব নাছিমা বেগমকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে কমিশনে একজন সার্বক্ষণিক সদস্য এবং পাঁচজন অবৈতনিক সদস্য নিয়োগ দেওয়া হয়। রাষ্ট্রপতির অনুমোদনক্রমে ২২ সেপ্টেম্বর আইন মন্ত্রণালয় (লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগ) থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। নবনিযুক্তরা ২৩ সেপ্টেম্বর কাজে যোগদান করেন। নতুন নিয়োগ পাওয়া চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম কমিশনের সদ্যবিদায়ী চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুলের হকের স্থলাভিষিক্ত হলেন।
কমিশনের অপর সদস্যরা হলেন- সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ (সার্বক্ষণিক), অ্যাডভোকেট তৌফিকা আফতাব, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান চিংকিউ রোয়াজা, সাবেক জেলা ও দায়রা জজ জেসমিন আরা বেগম, জেলা ও দায়রা জজ মিজানুর রহমান খান এবং সাবেক সচিব ড. নমিতা হালদার। তিন বছর মেয়াদে নবনিযুক্ত মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের একজন বিচারপতির মর্যাদায় বেতন, ভাতা ও অন্যান্য সুবিধাদি পাবেন। অবৈতনিক সদস্যরা কমিশনের সভায় যোগদানসহ অন্যান্য দায়িত্ব সম্পাদনের জন্য কমিশনের নির্ধারিত হারে সম্মানী ও ভাতা পাবেন। নাছিমা বেগম সর্বশেষ মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ছিলেন। এর আগে তিনি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। গত ২ আগস্ট কাজী রিয়াজুল হকের তিন বছরের মেয়াদ শেষ হওয়ায় জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানের পদটি শুন্য হয়। এরপর থেকে গত ৬ আগস্ট পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন সার্বক্ষণিক সদস্য মো. নজরুল ইসলাম।গত ১৯ সেপ্টেম্বর কমিশনের চেয়ারম্যান ও সদস্য পদে নিয়োগ সংক্রান্ত বাছাই কমিটির বৈঠকে এই তালিকা চূড়ান্ত করা হয়। সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে বাছাই কমিটিরপ্রধান জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে কমিটির অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় ২০০৮ সালের ১ ডিসেম্বর এক অধ্যাদেশের মাধ্যমে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন গঠন করা হয়। ২০১০ সালের ১৪ জুলাই সংসদে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন আইন পাস হয়।

মানবাধিকার খবরের অভিনন্দন :
জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে সাবেক সিনিয়র সচিব নাছিমা বেগম যোগদান করায় মানবাধিকার খবরের সম্পাদক মোঃ রিয়াজ উদ্দিন অভিনন্দন জানিয়েছেন। এক অভিনন্দন বার্তায় তিনি বলেন, বিশে^র অনেক দেশের ন্যয় বাংলাদেশেও মানবাধিকার লঙ্ঘনের মতো জঘন্য ঘটনা ঘটছে। ফলে, মানবাধিকার লঙ্ঘন রোধে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের অনেক দায়িত্ব রয়েছে। আমি বিশ^াস করি, সরকারের একজন অভিজ্ঞ এবং উচ্চ পদের কর্মকর্তা হিসেবে নাছিমা বেগম নতুন পালনে বিশেষ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবেন।

মানসিক স্বাস্থ্যের চিকিৎসা, প্রতিরোধ ও সচেতনতায় অবদান সৃষ্টিশীল শত নারীর তালিকায় সায়মা
                                  

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন

বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে সৃষ্টিশীল নারী নেতৃত্বের একশজনের তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল। দীর্ঘদিন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) বিশেষজ্ঞ হিসেবে মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।
যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে মানসিক স্বাস্থ্যের উপর পরিচালিত `ফাইভ অন ফ্রাইড্রে` মানসিক স্বাস্থ্যের চিকিৎসা, প্রতিরোধ ও সচেতনতামূলক অবদানের জন্য কাজ করা নারী নেতৃত্বের তালিকা তৈরি করে। সায়মা ওয়াজেদ, বাংলাদেশে পুতুল` নামে পরিচিত। বাংলাদেশে অটিজম বিষয়ক জাতীয় কমিটির চেয়ারপারসন তিনি। সেই সঙ্গে তার পরিচালিত সূচনা ফাউন্ডেশন বাংলাদেশে মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়ন ও সচেতনতা তৈরিতে কাজ করে যাচ্ছে। সায়মা ওয়াজেদ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক বিশেষজ্ঞ প্যানেলে থেকেও কাজ করছেন। পুতুলের উদ্যোগেই ২০১১ সালে ঢাকায় প্রথমবারের মতো অটিজমের মতো অবহেলিত একটি বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় যেখানে তৎকালীন ভারতের সরকারে থাকা কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী অংশ নেন। তার অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে বাংলাদেশে `নিউরো ডেভেলপমেন্ট ডিজ্যাবিলিটি ট্রাস্ট অ্যাক্ট ২০১৩` পাস করা হয়। সেই সঙ্গে তার দেওয়া পরামর্শের উপর ভিত্তি করেই জাতিসংঘ বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেয়। মানসিক স্বাস্থ্য ও অটিজম নিয়ে কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও ২০১৪ সালে সায়মা ওয়াজেদকে `এক্সেলেন্স ইন পাবলিক হেলথ অ্যাওয়ার্ড` দেয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কার্যাবলীতে অটিজমের বিষয়টি তিনিই সংযুক্ত করেন। বাংলাদেশে অটিজম বিষয়ক বিভিন্ন নীতিনির্ধারণে উল্লেখযোগ্য সাফল্যের পর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে অটিজম বিষয়ে `শুভেচ্ছা দূত` হিসেবে সায়মা ওয়াজেদ কাজ করছেন। যুক্তরাষ্ট্রের ব্যারি ইউনিভার্সিটি থেকে `স্কুল সাইকোলজি` বিভাগে বিশেষ ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। বাংলাদেশের ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই)-এর একজন ট্রাস্টিও। গ্লোবাল মেন্টাল হেলথ প্রোগ্রাম কনসর্টিয়াম` প্রকাশিত একশ সৃষ্টিশীল নারী নেতৃত্বের তালিকা গুরুত্ব অনুসারে প্রকাশ না করে বর্ণানুক্রমে প্রকাশ করা হয়েছে।

খালেদা জিয়ার মুক্তি আইনি বিষয়: তথ্যমন্ত্রী
                                  

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদক

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমদ্র বলেছেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি পুরোপুরি আইনি বিষয়। কারণ তিনি দুর্নীতি মামলায় শাস্তিপ্রাপ্ত আসামি। তাকে রাজনৈতিক কারণে বন্দি করা হয়নি। রাজনৈতিক কারণে কাউকে বন্দি করা হলে বা রাখা হলে তাকে আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করার বিষয়টি থাকে। সুতরাং খালেদা জিয়াকে আইনের মাধ্যমেই মুক্ত মুক্ত করতে হবে।
সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে ০৩ অক্টোবর সাংবাদিকদের সঙ্গে মত বিনিমময়কালে এ বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল মালেক এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
মন্ত্রী বলেন, বিএনপির কাছে আমার প্রশ্ন, তারা কোন পথে খালেদা জিয়ার মুক্তি চান! খালেদা জিয়ার মুক্তি তো আইনের পথে ছাড়া অন্য কোনো পথে সম্ভবপর নয়। কিন্তু বিএনপি বারবার হুংকার দেন, তারা আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবেন। বিএনপির আন্দোলনের নমুনা গত সাড়ে দশ বছর থেকে দেখে আসছি। খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য বিএনপি নেতারা দৌড়-ঝাঁপ করছেন, এর ফল কি! এমন মন্তব্যের জবাবে মন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার জন্য বিএনপি নেতাদের এ রকম দৌড়-ঝাঁপ আগেও দেখেছি। গত কয়েক দিনে তাদের সংসদ সদস্যরা বেগম জিয়ার সঙ্গে দেখা করে তাকে মুক্ত করে বিদেশে পাঠাবেন এ রকম কথা বলেছেন। কোথায় পাঠাবেন সেটা পরের বিষয়, প্রথমত: তার মুক্তির বিষয়টি সুরাহা করতে হবে। মুক্তির বিষয়টা একান্ত আইনি ব্যাপার, এখানে অন্য কিছু নেই। জামিন বা খালাস বা প্যারোল সবক্ষেত্রেই আইনি প্রক্রিয়া আছে। আর উনি কোনো প্যারোলে আবেদন করেননি। উইকিলিকসে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় তারেক জিয়ার জড়িত থাকার তথ্যপ্রমাণ প্রকাশের বিষয়ে মন্ত্রীর মন্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, যে কথাটি এতোদিন আমরা বলে আসছি, সেটি উইকিলিকসে তথ্যের মাধ্যমে উঠে আসছে। এটি আদালতে প্রমাণিত হয়েছে। আদালতে সাক্ষী প্রমাণের ভিত্তিতে এটি প্রমাণিত হয়েছে যে, তারেক জিয়া ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মাস্টারমাইন্ড। তার পরিচালনা এবং বেগম খালেদা জিয়ার জ্ঞাতসারেই শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এই ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটানো হয়েছিল। আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শূন্য করার লক্ষ্যে এই গ্রেনেড হামলা পরিচালনা করা হয়েছিল। আমরা যখনই বলেছি, তখনই বিএনপি এর বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়েছে। এখন আমার প্রশ্ন জাগে তারেক জিয়া এবং খালেদা জিয়ার জ্ঞাতসারে এই ঘটনা ঘটেছে এটা উইকিলিসে উঠে এসেছে এখন বিএনপি কি বলবে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সব টিভি চ্যানেল সম্প্রচার শুরু প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী বলেন, সব প্রাইভেট চ্যানেল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সঙ্গে সংযুক্ত হয়ে সম্প্রচারে গেছে। এটি বাংলাদেশের জন্য সুখবর। এতদিন বাংলাদেশের টাকা বিদেশি স্যাটেলাইটে যারা পরিচালনা করেন তাদের দেওয়া হতো। ফরেন কারেন্সি বাংলাদেশ থেকে চলে যেতো। সেই টাকা পরিশোধ করার জন্য কিছুটা ঝামেলা ছিল। প্রতিটি চ্যানেলকে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে অনুমতি নিতে হতো। এখন বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের জন্য ব্যয় বাংলাদেশি টাকাতেই দেওয়া সম্ভব। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মান সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, ‘বিটিভি কয়েক মাস আগে থেকে শুধুমাত্র বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সম্প্রচার করছে। কোনো ধরণের ত্রুটি আমরা পাইনি। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট পরিপূর্ণ সেবা দেওয়ার জন্য যা যা প্রয়োজন সব আছে। ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্কে টিভিগুলোর ক্রম ঠিক রাখা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, আমরা নির্দেশনা দেওয়ার পর যে ক্রমটি অ্যাটকোর পক্ষ থেকে করে দেওয়া হয়েছে সেটিই আমরা ক্যাবল অপারেটরদেরকে জানিয়েছিলাম তারা সেটা অনুসরণ করছে। কোনো কোনো জায়গা না মানা হলে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে এবং ভবিষ্যতেও নেওয়া হবে। আজকে দেশ ডিজিটাল হয়েছে কিন্তু আমাদের সম্প্রচার মাধ্যম পুরোপুরি ডিজিটাল হয় নাই। সম্প্রচার মাধ্যমটাকে ডিজিটাল করতে হবে। ঢাকা ও চট্টগ্রামের ক্যাবল অপারেশন আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে ডিজিটাল হবে। পরে সমগ্র দেশে ডিজিটাল সম্প্রচার হোক এটাই আমরা চাই।

দুর্গাউৎসব-এর শুভেচ্ছা ভারতে গেল ৫০০ মেট্রিক টন ইলিশ
                                  

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন

সনাতন হিন্দু সম্প্রদারের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতে ৫০০ টন ইলিশ রপ্তানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ। শুভেচ্ছা হিসেবে ৩০ সেপ্টেম্বর সোমবার দুপুরে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ইলিশের পথম চালান রফতানি হয়েছে ভারতে। ৮টি ট্রাকে করে ৩০ হাজার ৫৬০ কেজি ইলিশের চালান বেনাপোল বন্দরে এসে পৌঁছালে কাস্টমস কর্মকর্তারা দ্রুত আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে রফতানির অনুমতি দেন।
বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. জাফর উদ্দিন জানান, ৭ বছর পর বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ভারতে ৫০০ মেট্রিক টন ইলিশ পাঠানোর অনুমোদন দেয় সরকার। প্রতিকেজি ইলিশের মূল্য ধরা হয়েছে ৬ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশের রফতানি কারক প্রতিষ্ঠান একোয়াটিক রিসোর্স লি: ঢাকা ও ভারতের আমদানি কারক প্রতিষ্ঠান নাজ ইমপেক্স ইন্ডিয়া প্রাঃ লিঃ কলকাতা। সিএন্ডএফ এজেন্ট এমি এন্টারপ্রাইজের প্রতিনিধি মহিতুল হক রুবাই জানান, ইলিশের প্রথম চালান ভারতে রফতানি করা হয়েছে। বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা ভারতের কলকাতায় ইলিশ নিয়ে যান। পরে সেখানকার বাজারে তা বিক্রি করেন। মূলত কলকাতার বাজারেই এই ইলিশ বিক্রি হবে। ২০১২ সালের পর থেকে ভারতে ইলিশ রফতানি বন্ধ করে দেয় বাংলাদেশ। এরপর থেকে বৈধ পথে বাংলাদেশের ইলিশ আর ভারতে রফতানি হয়নি। কলকাতায় ইলিশ ইমপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আনোয়ার মকসদ বলেন, ২০১২ সালে বাংলাদেশ সরকার ভারতে ইলিশ রফতানি বন্ধ করে দিয়েছিল। এবার বাংলাদেশ সরকার পশ্চিমবঙ্গে ৫০০ মেট্রিক টন ইলিশ রফতানির অনুমতি দিয়েছে শুভেচ্ছা হিসেবে। প্রথম চালান ভারতে এসেছে। বাংলাদেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় রফতানির ছাড়পত্র দেয় গত ২২ সেপ্টেম্বর। এই ইলিশ কয়েক ধাপে আগামী ১০ অক্টোবরের মধ্যে পৌঁছাবে পশ্চিমবঙ্গে। বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে ইলিশ যাবে কলকাতায়। এরপর এই ইলিশ চলে যাবে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন বাজারে। এ বছর পশ্চিমবঙ্গে তেমন ইলিশ ধরা পড়েনি। গত বছর যে ইলিশ ২০০ রুপি কেজিতে বিক্রি হয়েছিল, এবার সেই ইলিশ ৫০০ রুপিতে বিক্রি হচ্ছে। বেনাপোল কাস্টম হাউজের সহকারী কমিশনার উত্তম চাকমা বলেন, দীর্ঘদিন বাংলাদেশ থেকে ভারতে ইলিশ রফতানি বন্ধ ছিল। সোমবার ৮টি বাংলাদেশি ট্রাকে ৩০ হাজার ৫৬০ কেজি ইলিশের প্রথম চালান বেনাপোল বন্দর দিয়ে রফতানি হয়েছে। যার রফতানি মূল্য ১৮ লাখ ৩ হাজার ৩৬০ মার্কিন ডলার। ইলিশ পচনশীল পণ্য হওয়ায় দ্রুত রফতানির নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বাক-শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের মানববন্ধন : ১৫ দফা দাবি
                                  

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদক
‘সাইন ল্যাঙ্গুগুয়েজ রাইট ফর অল’ প্রতিপাদ্য সামনে রেখে রাজধানীতে ১৫ দফা দাবিতে মানববন্ধন করেছে বাক-শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের সংগঠন ঢাকা বধির সংঘ।
পঞ্চম আন্তর্জাতিক বধির সপ্তাহ উদযাপন উপলক্ষে ২৬ সেপ্টেম্বর বেলা সাড়ে ১২টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বধির সংঘের পক্ষ থেকে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, আমরা বধির কিন্তু অক্ষম নয়। যথোপযুক্ত শিক্ষা প্রশিক্ষণ ও সহযোগিতা পেলে আমরাও পারি সমাজ ও দেশের উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখতে। সরকারি নীতিমালা অনুযায়ী শারীরিক প্রতিবন্ধীদের জন্য ১০ শতাংশ চাকরির সংরক্ষিত কোটা প্রাপ্তির নিশ্চয়তা পাওয়া গেছে। কিন্তু বাস্তবে বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধীরা সরকারি চাকরি পায়নি। চাকরিতে নিয়োগ প্রাপ্ত প্রতিবন্ধীদের মধ্যে বধিরদের সংখ্যা খুবই কম। বধিরদের জন্য চাকরিতে নিয়োগের বিশেষ সুযোগ থাকা প্রয়োজন। এ সময় শ্রবণ-বাক প্রতিবন্ধীদের পক্ষ থেকে তাদের বোবা অথবা অন্ধ না বলে বধির বলার অনুরোধ জানিয়ে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, উপহাস করবেন না বধির সাহায্য করুন। পাশাপাশি তাদের বৈধ বাড়ির বিদ্যুৎবিল, গ্যাস বিল, পানির বিল, ভ্যাট-ট্যাক্স অর্ধেক মওকুফের ব্যবস্থা এবং প্রতিবন্ধীদের বিনা ভাড়ায় বাস-মিনিবাস, রেল এবং বিমানে অর্ধ ভাড়ায় যাতায়াতের সুযোগসহ ১৫ দফা দাবি উত্থাপন করা হয়।

নাসায় চাকরি পেয়েছেন বাংলাদেশের মাহজাবিন
                                  

মানবাধিকার খবর প্রতিবেদন

যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন বাংলাদেশের মেয়ে মাহজাবিন হক।
তিনি সিলেটের মেয়ে। তার বাবা সৈয়দ এনামুল হক পূবালী ব্যাংক লিমিটেডের সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার। তাদের গ্রামের বাড়ি গোলাপগঞ্জ উপজেলার কদমরসুল গ্রামে। মাহজাবিন হক এ বছরই মিশিগান রাজ্যের ওয়েন স্টেইট ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে উচ্চতর ডিগ্রি সম্পন্ন করেছেন। তার এমন সাফল্যে পুরো মিশিগান শহরে বাঙালি কমিউনিটির মধ্যে উৎসবের আমেজ সৃষ্টি হয়েছে। পেইন্টিং ও ডিজাইনে পারদর্শী মাহজাবিন হক ২০০৯ সালে বাবা-মা’র সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে যান। কর্মসূত্রে তার বাবা সৈয়দ এনামুল হক বর্তমানে সিলেটে অবস্থান করলেও তার সঙ্গে আছেন মা ফেরদৌসী চৌধুরী ও একমাত্র ভাই সৈয়দ সামিউল হক। নাসা অ্যামাজনসহ বিশ্বের অনেক খ্যাতনামা কোম্পানি থেকে তিনি চাকরির অফার পেয়েছেন। এর মধ্যে নাসাকেই বেছে নেন তিনি।

মানবাধিকার খবর পত্রিকার সম্পাদক মোঃ রিয়াজ উদ্দিন, আন্তর্জাতিক শান্তি পুরষ্কারে ভুষিত, গৃহায়ন ও গনপূর্ত মন্ত্রী, উপ রাষ্ট্রদূত, রাজ্য সভার সাংসদ সহ বিভিন্ন মহলের অভিনন্দন
                                  

পাপলুশ রায়, সঞ্জীব সাধুকা ও ডোনা ভট্টাচার্জ, কলকাতা থেকে : প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রুপনারায়নপুরের পিস্ ওয়েলফেয়ার অর্গানইজেশনের "দ্য পিস্ অ্যাওয়ার্ড ২০১৯" পেয়েছেন মানবাধিকার বিষয়ক বিশ্বের একমাত্র নিয়মিত সৃজনশীল বাংলা প্রকাশনা মানবাধিকার খবর পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক রোটারিয়ান মোঃ রিয়াজ উদ্দিন। গত ২৮ সেপ্টেম্বর ভারতের বর্ধমানের আসানসোলে অনুষ্ঠিত এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ মানবাধিকার ও সমাজ সেবায় অসামান্য অবদান স্বরুপ তার হাতে এই পিস অ্যাওয়াড তুলে দেন। এ সময় রাজ্যের রাজনৈতিক ও মানবাধিকার সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সহ গুরুত্বপুর্ণ ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
রুপনারায়নপুরের পিস্ ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন ঐদিন সন্ধ্যায় শারদীয় দূর্গোৎসবকে সামনে রেখে সংগঠনের নবম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে গুনীজন সংবর্ধনা, দরিদ্র বিধবা মহিলাদের কাপড় বিতরণ, পিছিয়ে পড়া অসহায় শিশুদের নতুন পোষাক বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
উক্ত মনোমুগ্ধকর অনুষ্ঠান দ্বীপ শিখা জ্বালিয়ে উদ্বোধন করেন তিনি। প্রতি বছরের ন্যায় ভিন্ন ধারায় অন্যান্য গুণী ব্যক্তিত্বদেরকে সংবর্ধনা ও সম্মাননা জানানো হয় এ অনুষ্ঠানে। প্রসঙ্গত, মানবাধিকার খবর সম্পাদক মোঃ রিয়াজ উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে দেশ-বিদেশে পাচার হয়ে যাওয়া নারী-শিশু উদ্ধারে কাজ করে আসছেন। তিনি ভারতের বিভিন্ন রাজ্য থেকে শতাধিক নারী-শিশু উদ্ধার করে তাদের পরিবারের হাতে তুলে দিয়েছেন। তিনি অধিকারবঞ্চিত অসহায় মানুষের কল্যাণে নানামুখি সামাজিক কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়াও
তিনি সমাজ কর্মী হিসেবে ধর্মীয়, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, ক্রীড়া, সাংস্কৃতিসহ বিভিন্ন বিষয়ে অবদান রেখে চলছেন। এর আগেও তিনি মানবাধিকার ও সমাজ সেবায় অবদানের জন্য দেশ-বিদেশ থেকে একাধিক সম্মাননা পেয়েছেন।
মানবাধিকার খবর সম্পাদক মোঃ রিয়াজ উদ্দিন আন্তর্জাতিক শান্তি পুরষ্কারে ভুষিত হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ.ম. রেজাউল করিম, ভারতের রাজ্য সভার সাংসদ ও সরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্য, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের কলকাতা উপরাষ্ট্রদূত দপ্তরের কাউন্সিলর এবং হেড অব চ্যান্সারী বি.এম জামাল হোসেন সহ দেশ-বিদেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক, ব্যবসায়ী, সামাজিক ও মানবাধিকার সংগঠন এর নেতৃবৃন্দ।
এদিকে, নবম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান উপলক্ষে রূপনারায়ণপুর পিস ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন এর নবদ্যুতি আনন্দমুখর সন্ধ্যাটি সকলের হৃদয় জয় করে নেয়। রূপনারায়ণপুর এর নান্দনিক প্রেক্ষাগৃহ এই অনুষ্ঠানে মঙ্গলদীপ প্রজ্জ্বলন করেন সমাজকর্মী রথীন মজুমদার, রোটারিয়ান মোঃ রিয়াজ উদ্দিন, সাহিত্যিক সমরেশ চৌধুরী ও পিস ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন এর পক্ষ থেকে সভাপতি শুভদীপ সেন, সম্পাদক তনু বিশ্বাস ও অম্ব্রীজ সরকার। এছাড়াও দূর্গাপূজা উপলক্ষে দুইশত দুঃস্থ, দরিদ্র ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য নতুন বস্ত্র বিতরণ করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে " পিস সমাজকর্মী সম্মান ২০১৯"প্রদান করা হয় মোঃ রিয়াজ উদ্দিন মহাশয়কে এছাড়াও" পিস অনন্য সম্মান ২০১৯"প্রদান করা হয় রথীন মজুমদার কে এবং "পিস সাহিত্য সম্মান ২০১৯" প্রদান করা হয় সমরেশ চৌধুরী
মহাশয়কে। স্বাগত বক্তব্য রাখেন পিস্ ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন এর সভাপতি শুভদীপ সেন। এছাড়া ও উক্ত অনুষ্ঠানে পিস ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন এর
সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সকলের হৃদয়জয় করে নেয়। এছাড়াও অন্যান্য আবৃত্তি শিল্পী ও নৃত্য শিল্পীদের মনোগ্রাহী পরিবেশন নবম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান সার্থক হয়ে ওঠে। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন বেণুবিনোদ সাহু ও রুমা চৌধুরী।
কলকাতা থেকে মানবাধিকার খবর’র সম্পাদকের সাথে সফর সঙ্গী হিসেবে ছিলেন কলকাতা রিপোর্টার পাপলুস রায়, সঞ্জীব সাধুকা, সোমেন সহ অন্যান্য।

 

প্রধানমন্ত্রী: জনগণ ভোট না দিলে বিরোধী দল টেনে নামাতো
                                  

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, কথায় কথায় কী? ভোট দিয়ে এই সরকার আসে নাই। জনগণের ভোটেই যদি নির্বাচিত না হতাম তাহলে তো খালেদা জিয়াও ১৯৯৬ সালে ১৫ ফেব্রুয়ারি ভোটারবিহীন ভোট করেছিল। জনগণ ভোট দেয় নাই। সারা দেশে আর্মি নামিয়ে এবং সমস্ত এজেন্সি দিয়ে ফলাফল ঘোষণা করে সে ঘোষণা করলো তৃতীয়বারের প্রধানমন্ত্রী। সেই তৃতীয়বারের প্রধানমন্ত্রী কত দিন ক্ষমতায় ছিল? দেড় মাস, দুই মাসও ক্ষমতায় থাকতে পারে নাই।

শনিবার রাজধানীর ফার্মগেট খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে মহিলা শ্রমিক লীগের সম্মেলনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

 

তিনি বলেন, কেন পারে নাই? ভোট চুরি করেছিল বলে জনগণ টেনে নামিয়েছিল আন্দোলন করে। তখন আমরা ওই নির্বাচনের বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছিলাম। যার জন্য খালেদা জিয়া পদত্যাগে বাধ্য হয়েছিল। আজকে যদি জনগণ আমাদের ভোট না দিত তাহলে তো বিরোধী দল আন্দোলন করে আমাদের নামাতে পারতো। এই পর্যন্ত তারা তো কিছুই করতে পারলো না।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তারা করবে কীভাবে? তারা তো নির্বাচনটাকে নিয়েছিল একটা বাণিজ্য হিসেবে। এক সিট বিক্রি করেছে তিনজনের কাছে। তিনজন টাকা খাইছে। কেউ লন্ডনে টাকা নিয়েছে, কেউ নিয়েছে গুলশান অফিস থেকে। কেউ নিয়েছে পল্টন অফিস থেকে।

তিনি বলেন, যাদের ভোট চুরির অভ্যাস। দেখলাম তাদের এক নেতা খুব বক্তৃতা দিচ্ছেন এই সরকার ভোটে নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতায় আসেনি। আমি তাকে জিজ্ঞেস করতে চাই উনি কবে কখন কোন নির্বাচিত সরকারের মন্ত্রী ছিলেন? যখনই অবৈধভাবে যে ক্ষমতায় আসছে সে তার সাথে চলে গেছে মন্ত্রী হতে।

ফেনী নদীর পানি বণ্টন-সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারকের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্ডার এলাকার নদী মানে নদীতে সমান অংশীদার ভারত এবং বাংলাদেশ। সেখান থেকে তারা একটু খাবার পানি নেবে। সেইটা দিয়েই নাকি নদী বেঁচে দিলাম, নদী বেঁচে দিলাম। খুব আন্দোলন, স্লোগান, বক্তৃতা। একটা মানুষ যদি পান করার জন্য পানি চায়, দুশমন হলেও তো মানুষ তাকে পানি দেয়।

তিনি বলেন, সেটার জন্য এত কান্নাকাটি করার কী আছে? যারা এত কাঁদছেন তাদের জিজ্ঞেস করি, গঙ্গার পানি কোথায় আনবার কথা, খালেদা জিয়া দিল্লি যেয়ে ভুলে গেল। কেউ তো আনলো না! তিস্তায় ব্যারাজ দিল ইন্ডিয়ারে শিক্ষা দেবে। এখন শিক্ষা দেওয়ার পরিবর্তে পানি ভিক্ষা চাইতে হচ্ছে। এই নীতি ছিল এরশাদের।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জিয়াউর রহমান গিয়ে ওই হাঁটু গেড়ে বসে থাকলো। তার ক্ষমতাটা নিরঙ্কুশ করতে। কোনো কথা বলতে পারলো না। যা বললো হুবুহু তাই শুনে আসলো। যদি ন্যায্য অধিকার আদায় করে থাকি, আমি শেখ হাসিনা করেছি।

তিনি বলেন, আমরা গঙ্গার পানির ন্যায্য হিস্যা এনেছি। আমরা পানির চুক্তি করতে সক্ষম হয়েছি। আমাদের যে বর্ডার স্থল সীমানা চুক্তি আমরা করেছি। সমুদ্র সীমায় আমাদের অধিকার আমরা রক্ষা করতে পেরেছি। লাভ-লোকসান হিসাব করলে বাংলাদেশেরই লাভ বেশি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষের মাঝে একটা বিভ্রান্তি সৃষ্টি করার জন্য জ্ঞানপাপীরা জেনেশুনেই কথা বলে যাচ্ছেন।

সম্রাট আপাতত হাসপাতালেই থাকছেন
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক:  জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তবে মেডিকেল বোর্ডের চিকিৎসকরা তাকে আপাতত হাসপাতালে থেকে চিকিৎসা গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছেন। মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী শারীরিক বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র সেবন করছেন সম্রাট। ফলে আপাতত তাকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ফিরিয়ে নেওয়া হচ্ছে না।

জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. আফজাল হোসেন আজ বৃহস্পতিবার জাগো নিউজের এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে জানান, সম্রাটের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার ভিত্তিতে চিকিৎসা চলছে।

 

আর কদিন তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সুনির্দিষ্ট করে কবে নাগাদ তাকে রিলিজ দেয়া হবে সে সম্পর্কে বলা সম্ভব নয়। তিনি সুস্থ হয়ে উঠলে মেডিকেল বোর্ডের মাধ্যমে তা গণমাধ্যমকে অবহিত করা হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

ক্যাসিনো সম্রাট হিসেবে আলোচিত যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাবেক সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরীকে গত ৬ অক্টোবর ভোর ৫টার দিকে গ্রেফতার করে র‍্যাব।

এদিন দুপুরে র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে র‍্যাবের একটি দল সম্রাটকে নিয়ে কাকরাইলে ভূঁইয়া ট্রেড সেন্টারে তালা ভেঙে তারই কার্যালয়ে ঢুকে অভিযান শুরু করে। সন্ধ্যা সোয়া ৬টা পর্যন্ত অভিযান চলে।

সম্রাটের কাকরাইলের কার্যালয় থেকে একটি পিস্তল, বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ ও দুটি ক্যাঙ্গারুর চামড়া জব্দ করে তারা।

অমিত শাহ’র প্রাথমিক সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে পুলিশ : আবরার হত্যা
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেছেন, ঘটনাস্থলে হয়তো অমিত শাহ উপস্থিত ছিলেন না। কিন্তু প্রাথমিক তদন্তে আবরার হত্যায় প্রত্যক্ষভাবে না থাকলেও পরোক্ষভাবে তার দায়দায়িত্ব রয়েছে। তদন্ত, পারিপার্শ্বিক অবস্থা ও তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে তা উঠে এসেছে।

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) দুপুর আড়াইটায় ডিএমপি মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি।

 

বিস্তারিত আসছে….

১১ নম্বর আসামি গ্রেফতার আবরার হত্যায়
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক:  বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় ১১ নম্বর আসামি হোসেন মো. তোহাকে গাজীপুরের মাওনা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তাকে গ্রেফতারের কথা বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় নিশ্চিত করে পুলিশ।

 বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বীকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় এ পর্যন্ত ১৫ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা ও অপরাধ তথ্য বিভাগ।

গত সোমবার রাতে আবরার হত্যার ঘটনায় ১৯ জনকে আসামি করে তার বাবা বরকত উল্লাহ ঢাকার চকবাজার থানায় মামলা করেন।

বিস্তারিত আসছে...


   Page 1 of 7
     জাতীয়
সম্পাদক পরিষদের সভাপতি মাহফুজ আনাম, সম্পাদক নঈম নিজাম
.............................................................................................
মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকা-ের জের বুয়েটে রাজনীতি নিষিদ্ধ ঘোষণা
.............................................................................................
পিরোজপুরে সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালায় শ ম রেজাউল করিম শেখ হাসিনার শাসনামল গণমাধ্যমের জন্য স্বর্ণালী অধ্যায়
.............................................................................................
ভারত ভ্রমণকালে অসুস্থ হলে মেডিক্যাল ভিসা লাগবে না
.............................................................................................
সংবাদ সন্মেলনে এএসডি ও বিএসএএফ’র তথ্য ৬ মাসে ধর্ষণের শিকার ৪৯৬ শিশু
.............................................................................................
নাছিমা বেগম জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান
.............................................................................................
মানসিক স্বাস্থ্যের চিকিৎসা, প্রতিরোধ ও সচেতনতায় অবদান সৃষ্টিশীল শত নারীর তালিকায় সায়মা
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার মুক্তি আইনি বিষয়: তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
দুর্গাউৎসব-এর শুভেচ্ছা ভারতে গেল ৫০০ মেট্রিক টন ইলিশ
.............................................................................................
বাক-শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের মানববন্ধন : ১৫ দফা দাবি
.............................................................................................
নাসায় চাকরি পেয়েছেন বাংলাদেশের মাহজাবিন
.............................................................................................
মানবাধিকার খবর পত্রিকার সম্পাদক মোঃ রিয়াজ উদ্দিন, আন্তর্জাতিক শান্তি পুরষ্কারে ভুষিত, গৃহায়ন ও গনপূর্ত মন্ত্রী, উপ রাষ্ট্রদূত, রাজ্য সভার সাংসদ সহ বিভিন্ন মহলের অভিনন্দন
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রী: জনগণ ভোট না দিলে বিরোধী দল টেনে নামাতো
.............................................................................................
সম্রাট আপাতত হাসপাতালেই থাকছেন
.............................................................................................
অমিত শাহ’র প্রাথমিক সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে পুলিশ : আবরার হত্যা
.............................................................................................
১১ নম্বর আসামি গ্রেফতার আবরার হত্যায়
.............................................................................................
আবরার হত্যার দ্রুততম সময়ে বিচায় চায় জাতীয় মানবাধিকার কমিশন
.............................................................................................
শপথ নিলেন এমপি হিসেবে সাদ এরশাদ
.............................................................................................
সরব প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গণ আবরার হত্যার প্রতিবাদে
.............................................................................................
আবরার হত্যার শিগগিরই মামলার চার্জশিট : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
আজ সাদ এরশাদের শপথ
.............................................................................................
রাজপথে নামবে আবরার হত্যার বিচারে রাজধানীর শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
মানবাধিকার খবর সম্পাদক ভারতে পিস এ্যাওয়ার্ড পেলেন প্রথম বাংলাদেশী রিয়াজ উদ্দিন
.............................................................................................
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এবং সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ আর নেই
.............................................................................................
লাইফ সাপোর্টে এরশাদ
.............................................................................................
আশা করছি হোলি আর্টিজানে হামলার দ্রুত বিচার কাজ শেষ হবে : মনিরুল
.............................................................................................
আমরা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছি দায়িত্বশীল জাতি হিসেবে : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
ঢাকেশ্বরী মন্দিরে ধর্মীয় সম্মেলনে শ ম রেজাউল করিম
.............................................................................................
এতিম শিশুদের সঙ্গে ইফতার করলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
ইউনাইটেড ব্রাদার্স ফোরাম’র উদ্যোগে সুবিধাবঞ্চিত পথ শিশুদের মাঝে ইফতার ও পোশাক বিতরন
.............................................................................................
দেশে ফিরলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
যুব সমাজকে মানবতার সেবায় নিয়োজিত করলে অপরাধ কমবে: আইনমন্ত্রী
.............................................................................................
গভীর নিম্নচাপে রূপ নিয়েছে ‘ফণী’, বন্দরে ৩ নম্বর সর্তকতা
.............................................................................................
ঘূর্ণিঝড় ফণী: যে সব নির্দেশনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
নিহত দুজন জঙ্গি দাবি বেনজীর আহমেদের
.............................................................................................
সিনিয়র সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহ আর নেই
.............................................................................................
কাজের প্রলোভন দেখিয়ে ভারতে পাচার কারাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে ২৯ বাংলাদেশি
.............................................................................................
গণপূর্তমন্ত্রীর পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেকের মৃত্যুতে মানবাধিকার খবর সম্পাদকের গভীর শোক
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে বিএনপিকর্মীর চিঠি
.............................................................................................
আমার মন্ত্রণালয়কে দেখতে চাই স্বচ্ছ, দুর্নীতি, ভোগান্তি ও হয়রানিমুক্ত
.............................................................................................
মানবাধিকার খর্বের কোনো বিষয়ে সরকারের বিন্দুমাত্র হস্তক্ষেপ নেই : গণপূর্তমন্ত্রী
.............................................................................................
পিআইবির মহাপরিচালক শাহ আলমগীর আর নেই
.............................................................................................
জাবিতে ক্লাস নিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ
.............................................................................................
মহাজোটের অভাবনীয় জয় ঃ বিশ্ব নেতাদের অভিনন্দন
.............................................................................................
মহান বিজয় দিবস
.............................................................................................
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠ নির্বাচনের জন্য সকল দলকে সুমতির পরিচয় দিতে হবে
.............................................................................................
সাফজয়ী কিশোরদের ৪ লাখ করে টাকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
বাংলাদেশ প্রশংসিত প্রস্তাবিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের নিবর্তনমূলক বিধানগুলো নিয়ে উদ্বেগ
.............................................................................................
এবার যমজ ছেলের বাবা হলেন রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীকে ও সংবাদ সম্মেলনে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া মানবতাবোধ বাংলাদেশের কাছে বিশ্বের শেখার আছে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

Editor & Publisher: Rtn. Md Reaz Uddin
Corporate Office
53,Modern mansion(8th floor),Motijheel C/A, Dhaka
E-mail:manabadhikarkhabar34@gmail.com,manabadhikarkhabar34@yahoo.com,
Tel:+88-02-9585139
Mobile: +8801978882223 Fax: +88-02-9585140
    2015 @ All Right Reserved By manabadhikarkhabar.com    সম্পাদকীয়    Adviser List

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]