| বাংলার জন্য ক্লিক করুন

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   শেয়ার করুন
Share Button
   জাতীয়
  ভারতের সঙ্গে ৪৫০ কোটি ডলারের ঋণচুক্তি
  01, October, 2017, 08:15:51:PM



॥ মনোয়ার ইমাম ॥

ভারতের সঙ্গে ৪৫০ কোটি ডলারের ঋণচুক্তি সই করেছে বাংলাদেশ। টাকার অঙ্কে যা প্রায় ৩৬ হাজার কোটি টাকা। বেলা ১১টায় সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ে এই চুক্তি সই হয়। এই চুক্তির আওতায় প্রাথমিকভাবে ১৭টি উন্নয়ন প্রকল্প থাকবে। বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) ও ভারতের এক্সিম ব্যাংকের মধ্যে এই ঋণচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে (ইআরডি) সচিব কাজী শফিকুল আজম এবং ভারত সরকারের পক্ষে এক্সিম ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডেভিড রাসকিনহা এই ঋণচুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এর মাধ্যমে সাত বছরের মধ্যে শধতীয়বারের মতো বড় ধরনের ঋণ দিল ভারত, যা তৃতীয় লাইন অব ক্রেডিট (এলওসি) নামে পরিচিত। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আল মুহিত ও ভারতের অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। অনুষ্ঠানে অরুণ জেটলি বলেন, ‘বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রীর আমন্ত্রণে প্রথম বাংলাদেশে এসে আমি আনন্দিত। আমাদের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক বিশেষ করে আমাদের অর্থনৈতিক সহযোগিতা নিয়ে পর্যালোচনা করেছি, যা সাম্প্রতিক বছরগুলোতে উল্লেøখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছে অন্তর্ভুক্তিমূলক সামাজিক উন্নয়নের সঙ্গে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে বাংলাদেশের দ্রুত অগ্রগতি দেখে আমি খুবই মুগ্ধ।

ভারত বাংলাদেশের সঙ্গে তার সম্পর্ককে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে থাকে, যা সাম্প্রতিককালে ক্রমবর্ধমান। ভারতের স্বার্থে প্রয়োজন একটি শক্তিশালী স্থিতিশীল ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ।’ অরুণ জেটলি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের অংশীদার হতে ভারত পূর্ণ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এই পর্যন্ত এটাই ভারতের কোনো দেশকে দেওয়া সর্বোচ্চ মাত্রার ঋণ। এটি অতি কম সুদের হারে দেওয়া হয়েছে।

এ সময় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, ‘দুই দেশের মধ্যে অত্যন্ত ভালো সম্পর্ক রয়েছে। এ সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরও গভীর হবে। ভারতের অর্থমন্ত্রীর প্রথম বাংলাদেশ সফর এটি। এর আগে দু’টি এলওসি আমরা পেয়েছি। এটি তৃতীয় এলওসি। উভয় দেশ পারস্পরিক উন্নয়নে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’ তৃতীয় এলওসির অর্থ দিয়ে ১৭টি প্রকল্প করার প্রাথমিক তালিকা তৈরি করেছে বাংলাদেশ। তবে ঋণচুক্তিতে কোনো প্রকল্পের নাম থাকবে না বলে ইআরডি সূত্রে জানা গেছে। তালিকায় থাকা প্রকল্পগুলো হলো রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ বিতরণ অবকাঠামো উন্নয়ন; পায়রা বন্দরের বহুমুখী টার্মিনাল নির্মাণ; বুড়িগঙ্গা নদী পুনরুদ্ধার ও তীর সংরক্ষণ; বগুড়া থেকে সিরাজগঞ্জ পর্যন্ত দ্বৈতগেজ রেলপথ নির্মাণ; সৈয়দপুর বিমানবন্দর উন্নতকরণ; বেনাপোল-যশোর-ভাটিয়াপাড়া-ভাঙ্গা সড়ককে চার লেনে উন্নীত করা; চট্টগ্রামে কনটেইনার টার্মিনাল নির্মাণ; ঈশ্বরদীতে কনটেইনার ডিপো নির্মাণ; কাটিহার-পার্বতীপুর-বরনগর দিয়ে দুই দেশের মধ্যে বিদ্যুৎ বিতরণ লাইন তৈরি; মংলা বন্দর উন্নয়ন; চট্টগ্রামে ড্রাই ডক নির্মাণ; মিরসরাইয়ের বারৈয়ারহাট থেকে রামগড় পর্যন্ত চার লেনে সড়ক উন্নীত করা; মোল্লাহাটে ১০০ মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ; মিরসরাই বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গঠন; কুমিল্লøা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর হয়ে সরাইল পর্যন্ত চার লেন সড়ক নির্মাণ; ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য যন্ত্রপাতি সরবরাহ এবং ঢাকা, চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে ১ লাখ এলইডি বাল্ব সরবরাহ প্রকল্প। কোনো ঋণচুক্তির আওতায় এটিই হচ্ছে দেশের ইতিহাসে দ্বিতীয় বড় ঋণ। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে রাশিয়ার সঙ্গে ১ হাজার ১৩৮ কোটি ডলারের (বাংলাদেশের টাকায় যা প্রায় ৯২ হাজার কোটি) ঋণচুক্তি করে বাংলাদেশ। ইআরডি সূত্রে জানা গেছে, আগের দুটি এলওসির মতো তৃতীয় এলওসির শর্ত একই। আগের মতো ভারতীয় ঠিকাদারেরাই প্রকল্পের কাজ পাবেন। ঋণের টাকার পূর্তকাজের প্রকল্প হলে ৬৫ শতাংশ মালামাল ও সেবা ভারত থেকে আনতে হবে।

অন্য প্রকল্পে ৭৫ শতাংশ মালামাল ও সেবা ভারত থেকে আনতে হবে। আর ঋণের সুদহার ১ শতাংশ, প্রতিতি মাশুল আধা শতাংশ। ৫ বছর রেয়াত সময়সহ ২০ বছরে পুরো টাকা পরিশোধ করতে হবে। আগের দুটি এলওসিতে মোট ৩০০ কোটি ডলারের ঋণচুক্তি হয়। গত জুন মাস পর্যন্ত প্রথম এলওসির মাত্র ৩৫ কোটি টাকা ছাড় হয়েছে। প্রথম এলওসির ১৫টি প্রকল্পের মধ্যে ৮টি প্রকল্প শেষ হয়েছে। দ্বিতীয় এলওসির কোনো প্রকল্পে অর্থ ছাড় হয়নি।

ইআরডি সূত্রে জানা গেছে, ঋণচুক্তি হওয়ার পর প্রকল্প চূড়ান্ত করতেই বেশ সময় লাগে। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে প্রস্তাবিত প্রকল্পগুলো এক্সিম ব্যাংকে পাঠানো হয়। 

সেখান থেকে প্রকল্প অনুমোদন হয়ে ফেরৎ আসতেও বেশ সময় কেটে যায়। অন্যদিকে বাংলাদেশের দিক থেকে সমস্যা হলো, প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য দরপত্র আহ্বান, মূল্যায়ন, ঠিকাদারকে কার্যাদেশ দেওয়াসহ এসব প্রাথমিক কাজ করতেও কালক্ষেপণ হয়। এর ফলে এক দিকে যথাসময়ে প্রকল্প বাস্তবায়িত হয় না; আবার ব্যয় বেড়ে যায়। ২০১০ সালের ৭ আগস্ট দুই দেশের মধ্যে ১০০ কোটি ডলারের প্রথম এলওসি ঋণচুক্তি হয়। পরে অবশ্য ১৩ কোটি ৮০ লাখ ডলার অনুদানে রূপান্তর করে ভারত। ২০১৫ সালের জুন মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরের সময় ২০০ কোটি ডলার ঋণ বা দ্বিতীয় এলওসি দেওয়ার সমঝোতা চুক্তি হয়। পরে ২০১৬ সালের মার্চ মাসে ভারতের এক্সিম ব্যাংকের সঙ্গে ঋণচুক্তি হয়। এ ঋণের আওতায় ১৪টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে চায় বাংলাদেশ।



সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 20        
   আপনার মতামত দিন
     জাতীয়
তাজরিন ট্র্যাজেডির পাঁচ বছর স্মরণ করলো নিহতদের শোকার্ত সহকর্মীরা
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা, বিরল রোগে আক্রান্ত জহিরুল বাঁচতে চায়
.............................................................................................
জাতীয় মানবাধিকার কমিশন চেয়ারম্যানের এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকার
.............................................................................................
বেপরোয়া রোহিঙ্গা রামুতে এক বাঙালি নিহত ॥ উখিয়ায় আহত ৪
.............................................................................................
সাংবাদিক হত্যায় বিচার না হওয়া দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ দশম
.............................................................................................
রোহিঙ্গাদের কারণে বনের ক্ষতি দেড়’শ কোটি টাকা
.............................................................................................
ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস
.............................................................................................
রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে চাপ দিন : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
১০ মাসে ২,৯২৬টি সড়ক দুর্ঘটনা নিহত ৩,৬০৮ আহত ৭,৭৮৬
.............................................................................................
প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ
.............................................................................................
বহিঃবিশ্বে সুনাম অর্জন শত বছরের ভাসমান সবজী ক্ষেত
.............................................................................................
জাতীয় নির্মম নৃশংস !
.............................................................................................
মিয়ানমারে রোহিঙ্গা গণহত্যার প্রতিবাদে বামাফা’র মানব বন্ধন
.............................................................................................
শিশুটিকে হত্যার পর ঝুলিয়ে রাখা হয় জানালায় ॥ গ্রেফতার ১
.............................................................................................
প্রধান বিচারপতি অস্ট্রেলিয়া গেলেন
.............................................................................................
ডিজিটাল হেল্থ সার্ভিস বিষয়ে উদ্বুদ্ধকরন সভা
.............................................................................................
ভারতের সঙ্গে ৪৫০ কোটি ডলারের ঋণচুক্তি
.............................................................................................
নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের পাশে মানবাধিকার খবর ও উৎস রমনাপার্ক
.............................................................................................
বিশ্বের ১৮ নারী নেতার তালিকায় শেখ হাসিনা
.............................................................................................
চাষী নজরুল মরণোত্তর সম্মাননা পেলেন
.............................................................................................
সীমাখালীর চিত্রা নদীর উপর বেইলী ব্রিজের নির্মাণ কাজ শেষের পথে
.............................................................................................
ভাগডোমায় আশ্রায়ন প্রকল্প না করার দাবীতে মানববন্ধন আবু তাহের, দিনাজপুর
.............................................................................................
সড়ক দূর্ঘটনায় স্কুলছাত্র নিহত
.............................................................................................
এনডিপি’র ইফতার মাহফিলে খালেদা জিয়া আদালতের পরিবেশ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ
.............................................................................................
বিশ্ব পরিবেশ দিবসে প্রধানমন্ত্রী কোনোভাবেই সুন্দরবনের ক্ষতি নয়
.............................................................................................
দ্বিতীয়বার আনন্দ পুরষ্কার পেলেন ড. আনিসুজ্জামান
.............................................................................................
বনানীতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ধর্ষণ অবশেষে ধর্ষক সাফাত ও সাদমান গ্রেফতার
.............................................................................................
কক্সবাজারকে আন্তর্জাতিক পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তুলব- প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
সিংড়ায় মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই সম্পন্ন
.............................................................................................
এক নজরে ঢাকা-দিল্লী ২২ চুক্তি
.............................................................................................
নতুন বছরে দেশ আরও এগিয়ে যাবে... প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
মধ্যরাতে ৬ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে ফেসবুক
.............................................................................................
‘অটিজম চ্যাম্পিয়ন’ সায়মা ওয়াজেদ
.............................................................................................
আইপিইউ সম্মেলন ঘিরে নিরাপত্তার চাদরে রাজধানী
.............................................................................................
শেখ হাসিনার ভারত সফর : সতর্ক দৃষ্টি রাখছে চীন
.............................................................................................
জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা বুধবার
.............................................................................................
১৯৭৮ চুক্তি অনুযায়ী রোহিঙ্গা বিষয়ে বাংলাদেশকেই ভুমিকা নিতে হবে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

Editor & Publisher: Rtn. Md Reaz Uddin
Mobile:+88-01711391530, Email: md.reaz09@yahoo.com Corporate Office
53,Modern mansion(8th floor),Motijheel C/A, Dhaka
E-mail:manabadhikarkhabar@gmail.com,manabadhikarkhabar34@yahoo.com,
Tel:+88-02-9585139
Mobile: +8801978882223 Fax: +88-02-9585140
    2015 @ All Right Reserved By manabadhikarkhabar.com    সম্পাদকীয়    Adviser List

Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]